Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বিএনপির ‘ভিশন ২০৩০’ প্রচার শুরু

বিএনপির সূত্র জানায়, দলের রিসার্চ টিম বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট রিসার্চ সেন্টার এই ‘ভিশন ২০৩০’ প্রচার করছে। সেখানে আধুনিক প্রযুক্তিতে দক্ষ ২০ জন সদস্য রয়েছে।

আপডেট : ২২ জুলাই ২০১৮, ০১:৫২ পিএম

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ‘ভিশন ২০৩০’ নিয়ে প্রচারণা শুরু করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)। দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া ঘোষিত ‘ভিশন ২০৩০’ কে সামনে রেখে গত দুই-তিন দিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এই প্রচারণা চলছে।

আগামীতে বিএনপি রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় গেলে রাষ্ট্রের উন্নয়নে কী ধরনের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে, সে বিষয়ে সুনিদিষ্ট প্রস্তাবনা ‘ভিশন ২০৩০’-এ রয়েছে বলে জানিয়েছেন বিএনপির নেতারা। এই সূত্র ধরেই নির্বাচনের আগে সব পেশার ও বয়সের ভোটারদের জানান দিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, ভিডিও শেয়ারিং পোর্টাল ইউটিউব, মাইক্রোব্লগিং সাইট টুইটারসহ বিভিন্ন ধরনের ব্লগ ও ওয়েবসাইটে ‘ভিশন ২০৩০’ প্রচার করা হচ্ছে।

২০১৭ সালের ১০ মে রাজধানীর একটি হোটেলে সংবাদ সম্মেলনে ‘ভিশন ২০৩০’ ঘোষণা করেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বিএনপির সূত্র জানায়, দলের রিসার্চ টিম বাংলাদেশ ন্যাশনালিস্ট রিসার্চ সেন্টার এই ‘ভিশন ২০৩০’ প্রচার করছে। সেখানে আধুনিক প্রযুক্তিতে দক্ষ ২০ জন সদস্য রয়েছে। এই টিম থেকে কয়েকজনকে সম্মানীও দেওয়া হচ্ছে। এর মূল দায়িত্বে রয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ।

শামা ওবায়েদ বলেন, ‘বিএনপি কিংবা আওয়ামী লীগ নয়, বিশ্বের রাজনৈতিক দলগুলো সামাজিক যোগাযোগ প্রচার-প্রচারণার জন্য গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছে। তাই আগামীদিনে বিএনপি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আরও বেশি সক্রিয় হবে। আগামী নির্বাচনে অন্যদলগুলোর মতো বিএনপিও তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা তরুণ প্রজন্মকে জানাতে এবং ভোটারদের কাছে পৌঁছাতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমকে গুরুত্ব দিচ্ছে।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয় সূত্র জানায়, ‘ভিশন ২০৩০’ প্রচার করার জন্য ফেসবুকে বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল (বিএনপি) এবং বিএনপি কমিউনিকেশন, টুইটারে বিএনপি বাংলাদেশ, ইউটিউবে বিএনপি কমিউনিকেশন নামে চ্যানেল করা হয়েছে। এগুলোতে প্রচার করা হচ্ছে ‘ধানের শীষ সমৃদ্ধির প্রতীক, সৌন্দের্যের প্রতীক’, ‘নির্বাচনে ধানের শীষে ভোট দিন’। এছাড়া ফেসবুক এবং টুইটারে ইমেজ আকারে প্রচার করা হচ্ছে “পুলিশকে অতিরিক্ত কাজের জন্য ‘ওভারটাইম ভাতা’ দেওয়া হবে।” ‘কৃষি জমি রক্ষায় বহুতল আবাসন গড়া হবে।’ “নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য `Start-up fund' তৈরি করা হবে। সেখান থেকে নতুন উদ্যোক্তাদের জন্য পরামর্শ এবং স্বল্প সুদে ঋণের ব্যবস্থা করা হবে।” “প্রশাসনিক স্বচ্ছতা-জবাবদিহিতা নিশ্চিতে ‘ন্যায়পাল’ নিয়োগ করা হবে।”

এবারের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সব প্রার্থী নির্বাচনী প্রচারের মাধ্যম হিসেবেও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার শুরু করেছেন বলে জানিয়েছেন দলটির নেতারা। 

About

Popular Links