• সোমবার, জানুয়ারী ২০, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৪৫ রাত

৬ তারকা পেলেন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন

  • প্রকাশিত ০৪:২৫ বিকেল নভেম্বর ২৬, ২০১৮
al nomination
উপরে বাঁ থেকে: মাশরাফি বিন মুর্তজা, আসাদুজ্জামান নূর, নাঈমুর রহমান দুর্জয়। নিচে বাঁ থেকে: আকবর হোসেন পাঠান ফারুক, মমতাজ বেগম, আবদুর সালাম মুর্শেদী। ছবি- সংগৃহীত

মাশরাফি বিন মুর্তজা বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশের সব সচেতন, যোগ্য ও ভালো মানুষের রাজনীতিতে আসা উচিত"

একাদশ জাতীয় নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন পেতে অন্তত দশজন তারকা মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেছিলেন। তবে সর্বশেষ খবর অনুযায়ী এদের মধ্যে মনোনয়ন পেয়েছেন ৬ জন। 

তারা হলেন: জাতীয় দলের তারকা ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা, সাবেক ফুটবল তারকা আবদুস সালাম মুর্শেদী, চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুক, অভিনেতা আসাদুজ্জামান নূর, কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম ও জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক অধিনায়ক নাঈমুর রহমান দুর্জয়।

রবিবার (২৫ নভেম্বর) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে তারা দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন। এ সময় তারা আশাবাদ ব্যক্ত করেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একাদশ নির্বাচনেও আওয়ামী লীগের বিজয় হবে। 

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর মনোনয়ন পেয়েছেন নীলফামারী-২ আসন থেকে। এর আগে একই আসন থেকে ২০০১, ২০০৮ ও ২০১৪ সালে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি।

নড়াইল-২ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন তারকা ক্রিকেটার মাশরাফি বিন মুর্তজা। মনোনয়ন পাওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে দেওয়া এক পোস্টে তিনি বলেন, “জানি, বলা যত সহজ, কাজ করে দেখানো তারচেয়ে অনেক বড় চ্যালেঞ্জ। কিন্তু চ্যালেঞ্জটা নিতে আমি পিছপা হইনি। চাইলেই আমি নিজের সহজাত পরিবেশের ভেতর থাকতে পারতাম। কিন্তু আমি স্বপ্ন দেখি, আমার এলাকার মানুষ সমৃদ্ধির পথে আরেক ধাপ এগিয়ে যাক। আলো ছড়িয়ে পড়ুক নড়াইলবাসীর ওপর। আমি চাই সমৃদ্ধ নড়াইল। সেই পথে আমার যত কষ্টই হোক, আমি থাকবো আমার প্রিয় নড়াইলবাসীর পাশে।”

ওই পোস্টে তিনি আরও বলেন, “আমি বিশ্বাস করি, বাংলাদেশের সব সচেতন, যোগ্য ও ভালো মানুষের রাজনীতিতে আসা উচিত। অনেকেই হয়তো সাহস করে উঠতে পারেন না নানা কারণে, মানসিক সীমাবদ্ধতায়। আমার মনে হয়েছে, মানসিক বাধার সেই দেয়াল ভাঙা জরুরি। তাই ভেতরের তাগিদ পূরণের উদ্যোগটা আমিই নিলাম। ক্রিকেটের মাঠে দেড় যুগ ধরে তিলতিল করে গড়ে ওঠা মাশরাফির অবস্থান হয়তো আজ অনেকের কাছে প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে রাজনীতির মাঠে নামার কারণে। কিন্তু আমি নিজে সত্যিকার অর্থেই রোমাঞ্চিত নতুন কিছুর সম্ভাবনায়। আমি আশা করি এমন কিছু করতে পারবো, যা দেখে ভবিষ্যতে হাজারও মাশরাফি এগিয়ে আসবে ইনশাল্লাহ।”

খুলনা-৪ আসন থেকে মনোনয়ন পাওয়ার পর দলীয় কার্যালয়ের সামনে সালাম মুর্শেদী সাংবাদিকদের বলেন, “দল আমাদের যোগ্য মনে করে মনোনীত করেছে। আমি বিশ্বাস করি উন্নয়নের এই ধারা অব্যাহত রাখার জন্য জনগণ আবারও নৌকা প্রতীককে জয়ী করবে।”

ঢাকা-১৭ আসন থেকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন চিত্রনায়ক আকবর হোসেন পাঠান ফারুক। তিনি নিজে গাজীপুর-৫ থেকে মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করলেও তাকে ঢাকা-১৭ আসনের জন্য মনোনীত করা হয়েছে।

তৃতীয়বারের মতো সংসদ সদস্য হওয়ার জন্য রবিবার (২৫ নভেম্বর) দুপুরে নিজের মনোনয়ন সংগ্রহ করেছেন কণ্ঠশিল্পী মমতাজ বেগম। মানিকগঞ্জ-২ থেকে তাকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে। মনোনয়ন নেওয়ার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেন, “বিগত সময়ে আমি নিজ এলাকায় অনেক উন্নয়ন করেছি। আগামীতেও এই উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা করার জন্য জনগণ আমাকে ভোট দিয়ে জয়ী করবে। নৌকার জয় হবে ইনশাল্লাহ।”

এর আগে ২০০৮ সালে প্রথমে সংরক্ষিত আসনে এবং দ্বিতীয়বার ২০১৪ সালের নির্বাচনে সংসদ সদস্য হয়েছিলেন মমতাজ বেগম।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক ও সাবেক ক্রিকেটার নাঈমুর রহমান দুর্জয় রবিবার দুপুরে আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় থেকে মনোনয়নের চিঠি নেন। এ সময় তিনি বলেন, “জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে চলছে। এর ধারাবাহিকতা রক্ষায় নৌকার জয় নিশ্চিত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করতে হবে।”

এদিকে সাবেক তারকা ফুটবলার এবং যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী আরিফ খান জয় নেত্রকোনা-২ আসনে মনোনয়ন পাননি। তার আসনে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী খানকে।

আওয়ামী লীগ থেকে আরও মনোনয়ন পত্র কিনেছিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী অ্যাডভোকেট তারানা হালিম, চিত্রনায়ক শাকিল খান, খলনায়ক মনোয়ার হোসেন ডিপজল, অভিনেত্রী রোকেয়া প্রাচী, অভিনেত্রী শমী কায়সার, অভিনেতা সিদ্দিকুর রহমান, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ, চলচ্চিত্র পরিচালক মাসুদ পথিক ও গীতিকার সুজন হাজং। সর্বশেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, তাদের কেউ মনোনয়ন পাননি।