• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১৩, ২০১৮
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৫৪ রাত

‘ন্যায়বিচার’ নিশ্চিত করায় ইসিকে ফখরুলের ধন্যবাদ

  • প্রকাশিত ০৯:১৭ রাত ডিসেম্বর ৬, ২০১৮
মির্জা ফখরুল ইসলাম
১৭ ডিসেম্বর ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন ঐক্যফ্রন্টের মুখপাত্র মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর । ছবি: সংগৃহীত।

সরকার পরাজয়ের ভয়ে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার জন্য এখন রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করছে বলে মন্তব্য করেন তিনি

মনোনয়নপত্র বাতিল হয়ে যাওয়া বিএনপির বেশির ভাগ প্রার্থী আপিলের মাধ্যমে প্রার্থিতা ফিরে পাওয়ার ঘটনায় ‘ন্যায়বিচার’ নিশ্চিত করায় নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বৃহস্পতিবার বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি আশা প্রকাশ করেন, কমিশন ন্যায়বিচার করলে তাদের চেয়ারপার্সনের মনোনয়নও বৈধ ঘোষণা করা হবে।

তিনি বলেন, "আমরা মনে করি বেশির ভাগ প্রার্থীকে বৈধ ঘোষণা করা আমাদের জন্য এক বিজয়। সেই সাথে আমরা আশা করি আমাদের নেত্রী খালেদা জিয়াকেও বৈধ প্রার্থী ঘোষাণা করা হবে, যদি ন্যায়বিচার করা হয়।"

ফখরুল বলেন, "রিটার্নিং কর্মকর্তারা আমাদের অসংখ্য প্রার্থীর মনোনয়নকে অবৈধ ঘোষণা করেছিলেন কিন্তু তাদের অনেকে নির্বাচন কমিশনের শুনানির মাধ্যমে বৈধ প্রার্থী হিসেবে বিবেচিত হয়েছেন। তাই, আমি নির্বাচন কমিশনকে ধন্যবাদ জানাই।"

বিএনপি মহাসচিবের অভিযোগ, সরকারি আদেশ মানতে হয় বলে রিটার্নিং কর্মকর্তারা বিএনপির বেশিরভাগ প্রার্থীর মনোনয়নকে অবৈধ ঘোষণা করেছিলেন এবং এই কারণে তারা অনেক ক্ষেত্রে ন্যায়বিচার করতে পারেননি।

এক প্রশ্নের জবাবে ফখরুল জানান, তাদের চূড়ান্ত প্রার্থীদের আংশিক তালিকা তারা আজ রাত ৮টার পর ঘোষণা করতে পারেন।

সরকার পরাজয়ের ভয়ে নির্বাচনকে প্রভাবিত করার জন্য এখন রাষ্ট্রযন্ত্রকে ব্যবহার করছে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপির এ নেতা আরও অভিযোগ করেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এখনো তাদের নেতা-কর্মীদের গ্রেপ্তার চালিয়ে যাচ্ছে।