• বৃহস্পতিবার, ডিসেম্বর ১২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৩৯ দুপুর

শেষ মুহুর্তে বিএনপির মনোনয়ন থেকে বাদ পড়লেন মোরশেদ খান

  • প্রকাশিত ০৫:৫৫ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ৯, ২০১৮
এম মোরশেদ খান
এম মোরশেদ খান। ফাইল ছবি।

আজ সকালেই নিজের প্রার্থীতা ফিরে পান এম মোরশেদ খান

শেষ মুহুর্তে চট্টগ্রাম ৮ আসনে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিএনপির হেভিওয়েট প্রার্থী এম মোরশেদ খানকে সরিয়ে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সিনিয়র সহ-সভাপতি আবু সুফিয়ানকে প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপি। রবিবার (৯ ডিসেম্বর) মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিনে সকালে বিএনপির গুলশান কার্যালয় থেকে তাঁর মনোনয়ন চূড়ান্ত করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন আবু সুফিয়ান। ইউএনবির একটি খবরে এই তথ্য জানানো হয়েছে।

এর আগে ২০০১ সালের নির্বাচনে এই আসন থেকে  ধানের শীষ প্রতীকে নির্বাচন করে সংসদ সদস্য হন এম মোরশেদ খান। তবে, ২০০৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের শরিক দল জাসদ থেকে নৌকা প্রতীকে সাংসদ নির্বাচিত হন মঈন উদ্দিন খান বাদল। ২০১৪ সালে তিনি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচিত হন।

এবারের নির্বাচনে তিনি বিএনপি থেকে মনোনয়ন তুললেও তা বাতিল করেন সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তারা। তবে, তার মনোনয়ন বাতিলের বিরুদ্ধে নির্বাচন কমিশনে আপিল করার প্রেক্ষিতে আজ সকালেই নিজের প্রার্থীতা ফিরে পান এম মোরশেদ খান।

অভিযোগ রয়েছে দীর্ঘ ১০ বছর বিএনপি কোনো আন্দোলন সংগ্রামে মোরশেদ খান ছিলেন না। এমনকি নিজের নির্বাচনী এলাকাও তিনি আসতেন না। ফলে নেতাকর্মী ও ভোটারদের সাথে তাঁর দুরত্ব সৃষ্টি হয়।

অপরদিকে তরুণ নেতা আবু সুফিয়ান ছাত্র রাজনীতির মধ্য দিয়ে তাঁর রাজনৈতিক ক্যারিয়ার গড়ে তুলেন। মাঠে ময়দানে আন্দোলন সংগ্রামে তাঁর উপস্থিত তৃণমূলের নেতাকর্মীদের সাথে সেতুবন্ধন তৈরী হয়। ফলে আগামী একাদশ নির্বাচনের সংসদ সদস্য হিসেবে তাঁকেই দলের তথা ধানের শীষের চুড়ান্ত মনোনয়ন দিয়েছে বিএনপির হাই কমান্ড।

এদিকে, আবু সুফিয়ানের মনোনয়ন চুড়ান্ত করায় চান্দগাঁও- বোয়ালখালী এলাকায় নেতাকর্মীদের মধ্যে মিষ্টি বিতরণ হয়েছে।