• বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩০ রাত

ফখরুল: প্রশাসনকে ব্যবহার করে তামাশার নির্বাচন করছে সরকার

  • প্রকাশিত ০৬:৩৬ সন্ধ্যা ডিসেম্বর ৩০, ২০১৮
মির্জা ফখরুল
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

ফখরুল বলেন, আমার কেন্দ্রে ভোটাররা আসতে পারছে না, ভোট দিতে দেওয়া হচ্ছে না

বিএনপি’র মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, সরকার প্রশাসনকে ব্যবহার করে একটি প্রহসনমূলক নির্বাচন করেছে।

রবিবার (৩০ ডিসেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে ঠাকুরগাঁওয়ের নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, মানুষ সকালে দল বেধে ভোট দিতে এসেছে। কিছু সময় ভোটাররা ভোট দিতে পারছিলো। তারপর যখন তারা দেখলো এভাবে যদি ভোট হয়, তাহলে তাদের পরাজয় রোধ করা যাবে না। তখনই সরকার দলের ক্যাডাররা ও পুলিশ প্রশাসন ভোটকেন্দ্র থেকে ভোটারদের বের করে দেয়। এরপরে আওয়ামী লীগের গুন্ডা-সন্ত্রাসীরা সিল মারতে শুরু করে।

ফখরুল বলেন, আমার কেন্দ্রে ভোটাররা আসতে পারছে না, ভোট দিতে দেওয়া হচ্ছে না। তাদের বাধা দেয়া হচ্ছে। প্রশাসনের সাহায্যে এটা করা হচ্ছে। আমি প্রশাসন ও রিটার্নিং অফিসারের কাছে বার বার গিয়েছি, বিষয়গুলি জানিয়েছি। কিন্তু তারা কোনো ব্যবস্থাই নেয়নি। দেশের সব জায়গা থেকেই এরকম খবর পাচ্ছি।

অনেক প্রার্থীর নির্বাচন বর্জন করার বিষয়ে তিনি বলেন, ব্যক্তিগতভাবে কেউ বর্জন করলে করতে পারে, তবে দলীয় সিদ্ধান্ত হলো আমরা বিকাল ৪টা পর্যন্ত দেখব।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচন কমিশন ও প্রশাসনের ওপর জনগণের কোনো আস্থা নেই। রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর ওপর কোনও আস্থা নেই। আমি মনে করি এটা দেশের জন্য দীর্ঘদিনের একটা ক্ষতি, যা পূরণ করা কঠিন হবে। মানুষ আস্থাহীনতায় ভুগবে।