• বৃহস্পতিবার, জুন ২৭, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:৩০ রাত

ধানের শীষের প্রার্থীদের জরুরি বৈঠকে ডেকেছে বিএনপি

  • প্রকাশিত ০৯:৫৩ রাত জানুয়ারী ১, ২০১৯
বিএনপি

বৈঠক শেষে নির্বাচন কমিশনে স্মারকলিপি জমা দিতে যেতে পারেন ধানের শীষের প্রার্থীরা

একাদশ জাতীয় সংসদে ভরাডুবির পর ‘ধানের শীষ’ প্রতীকের প্রার্থীদের জরুরি বৈঠকে ডেকেছে বিএনপি।

বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানায়, দলটির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী মঙ্গলবার (১ জানুয়ারি) জানান, আগামী বৃহস্পতিবার সকল ১০টায় বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশান কার্যালয়ে বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হবে।

এর আগে বিএনপির নয়াপল্টন কার্যালয় থেকে এক জরুরি বার্তায় মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের কাছে ‘ধানের শীষের’ প্রত্যেক প্রার্থীকে ভোটে অনিয়ম-কারচুপির প্রমাণ, প্রতিটি কেন্দ্রের ‘অস্বাভাবিক’ ভোটের হিসাব, গ্রেফতার এজেন্ট ও নেতা-কর্মীদের তালিকা, সহিংসতায় আহত ও নিহতদের তালিকাসহ ৮টি বিষয়ে তথ্যসহ একটি প্রতিবেদনও দিতে বলা হয়েছে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে বিএনপির একজন সহকারী দপ্তর সম্পাদক জানান, ‘উপরোক্ত বিষয়ে প্রতিবেদন ছাড়াও ভোট কারচুপির ভিডিও থাকলে তাও সাথে দিতে বলা হয়েছে।’

ওই নেতা জানান, নির্দলীয় প্রশাসনের অধীনে পুনরায় নির্বাচনের দাবি জানাতে নির্বাচন কমিশনের পাশাপাশি দেশে ও বিদেশে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠানের কাছে তথ্য প্রমাণ জমা দেয়ার জন্য প্রত্যেক প্রার্থীর থেকে এসব তথ্য চাওয়া হয়েছে।

এর আগে নির্বাচনের পরের দিন সোমবার রাতে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে সিনিয়র নেতাদের সাথে বৈঠকে বসে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ওই বৈঠকে নির্দলীয় প্রশাসনের অধীনে পুনরায় নির্বাচনের দাবিতে নির্বাচন কমিশন বরাবর স্মারকলিপি জমা দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

ঐক্যফ্রন্টের একজন সিনিয়র নেতা জানান, আগামী বৃহস্পতিবার বিএনপি চেয়ারপার্সনের গুলশান কার্যালয়ের ওই বৈঠক শেষে নির্বাচন কমিশনে স্মারকলিপি জমা দিতে যেতে পারেন ধানের শীষের প্রার্থীরা।

গত রবিবার অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মাত্র সাতটি আসন পায় জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। এর মধ্যে বিএনপি পাঁচটি এবং গণফোরাম দুটি আসনে জয় পায়। অপরদিকে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট ২৮৮টি এবং বাকি তিনটি আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী বিজয়ী হয়।