• রবিবার, মে ১৯, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০৩:১০ বিকেল

মির্জা ফখরুল: আওয়ামী লীগ বন্দুকের নলে ক্ষমতায় টিকে আছে

  • প্রকাশিত ০৪:৩৭ বিকেল এপ্রিল ৬, ২০১৯
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর
বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। ফাইল ছবি

"জনগণের সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই, বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে"

আওয়ামী লীগ বন্দুকের নলে জোর করে ক্ষমতায় টিকে আছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। 

তিনি  বলেন, "আওয়ামী লীগ জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে কীভাবে ক্ষমতায় টিকে আছে? শুধু বন্দুকের নলে জোর করে টিকে আছে। রাষ্ট্রযন্ত্রকে সম্পূর্ণ করায়ত্ত করে জোর করে ক্ষমতায় টিকে আছে।"

শনিবার (৬ এপ্রিল) দুপুরে পুরানা পল্টনের মুক্তি ভবনে কল্যাণ পার্টির চতুর্থ জাতীয় কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

তিনি আরও বলেন, জোর করে ক্ষমতায় বেশি দিন টিকে থাকা যায় না। সাময়িক সময়ের জন্য থাকা যায়, বিশ্বের ইতিহাস তাই বলে। আওয়ামী লীগ প্রায় বলে, বিএনপি চক্রান্ত করে ক্ষমতায় আসে। বিএনপি কোনও দিন চক্রান্ত করে ক্ষমতায় আসেনি। বিএনপি প্রতিবার জনগণের সুষ্ঠু ভোটে নির্বাচিত হয়ে ক্ষমতায় এসেছিল। কখনও পেছনের দরজা বা অসুস্থভাবে ক্ষমতায় আসেনি।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, "এই সরকার অত্যন্ত সচেতনভাবে চক্রান্তকারীদের সঙ্গে আপস করে ক্ষমতায় টিকে আছে। আজকে আওয়ামী লীগ জনগণ থেকে দূরে। জনগণের সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই, বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। তারা সম্পূর্ণ দেউলিয়া হয়ে গেছে।"

তিনি অভিযোগ করেন, "‘গত বছর হাতিরঝিলে আমরা স্থায়ী কমিটির নেতারা বসে নাশকতার চক্রান্ত করেছিলাম। এটা যখন দেশের রাজা পুলিশ জানতে পেরে সেখানে রেট করতে গেলেও তাদেরকে বোমা মেরে চলে গেলাম। এটাই হচ্ছে প্রথম গায়েবি মামলা। এই মামলার রেশ ধরে গোড়া দেশে প্রায় ৪-৫ হাজার মামলা হয়েছে। যার কোনও ভিত্তিই নেই।"

কাউন্সিলে কল্যাণ পার্টি আবারও চেয়ারম্যান হিসেবে মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহম্মদ ইবরাহিম, আর মহাসচিব হিসেবে এমএম আমিনুর রহমান নির্বাচিত হয়।

ইব্রাহিম বলেন, "আমাকে চতুর্থবারের মতো চেয়ারম্যান নির্বাচিত করায় দলের সব পর্যায়ের কাউন্সিলরদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আর তিনি নতুন মহাসচিব ও যুগ্ম-মহাসচিবের নাম ঘোষণা করেন।" 

আগামী ৯৬ ঘণ্টার মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হবে বলেও জানান তিনি। অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল প্রমুখ।