• সোমবার, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:২৪ রাত

হাছান মাহমুদ: আইনের স্বার্থেই তারেককে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছে সরকার

  • প্রকাশিত ০৯:৫৭ রাত এপ্রিল ৯, ২০১৯
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ। ফাইল ছবি

‘তারেক রহমান যদি মনে করেন তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন, তাহলে তো তার নিজেরই দেশে চলে এসে আদালতে আত্মসমর্পণ করার কথা’

তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, “আইন ও আদালতকে সমুন্নত রাখার স্বার্থেই তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছে সরকার, এখানে প্রতিহিংসার কোনো কারণ নেই।”

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) রাজধানীর ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে দলের প্রচার উপকমিটির সভার শুরুতে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের ‘তারেক রহমানকে ফিরিয়ে আনার চেষ্টা সরকারের রাজনৈতিক প্রতিহিংসা’ এমন মন্তব্যের জবাবে একথা বলেন তথ্যমন্ত্রী বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বাসস।

তিনি বলেন, “তারেক রহমান যদি মনে করেন তিনি রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হচ্ছেন, তাহলে তো তার নিজেরই দেশে চলে এসে আদালতে আত্মসমর্পণ করার কথা। কিন্তু তার দুর্নীতি ও হত্যা মামলার অপরাধ এত সুস্পষ্ট যে, তার সে সৎ সাহস নেই।”

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও দলের অন্যতম মুখপাত্র বলেন, “তারেক রহমানের দুর্নীতি বাংলাদেশ সরকার উদঘাটন করেনি, করেছে, যুক্তরাষ্ট্রের এফবিআই। আর একুশে আগস্টের গ্রেনেড হামলায় তার অপরাধ সাক্ষ্য-প্রমাণে সুস্পষ্টভাবে প্রমাণিত হয়েছে তিনি একজন দন্ডপ্রাপ্ত আসামী। বিএনপিরই উচিত ছিলো তাকে বাদ দেয়া। কিন্তু তা না করে তারা একজন দুর্নীতি ও ফৌজদারী হত্যা মামলার দন্ডপ্রাপ্ত আসামীকে রাজনৈতিক সুরক্ষা দেবার অপচেষ্টা করছে।”

তিনি বলেন, “দুর্নীতি বা ফৌজদারী মামলায় দন্ড হলে যেসব দেশের সাথে চুক্তি আছে, সেখান থেকে আসামিদের ফিরিয়ে আনা হয়, কিন্তু যুক্তরাজ্যের সাথে চুক্তি নেই বলে সরকার সেদেশে চিঠি দিয়েছে।” এ প্রসঙ্গে তিনি আরো বলেন, “এখানে প্রতিহিংসার কোনো কারণ নেই, আইন ও আদালতকে সমুন্নত রাখার স্বার্থেই তা করা হয়েছে।”

এসময় উপস্থিত ছিলেন, আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন, প্রচার উপ-কমিটির সহ-সম্পাদক ও দৈনিক সংবাদের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক কাশেম হুমায়ুন, সুভাষ সিংহ রায়, সদস্য আকতার হোসেন, শাহ মোস্তফা আলমগীর ও সুজাদুর রহমান প্রমুখ ।