• মঙ্গলবার, অক্টোবর ২২, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ০১:১৮ দুপুর

জবিতে ছাত্রদলের মিছিলে ছাত্রলীগের হামলায় আহত ৫

  • প্রকাশিত ০২:৩২ দুপুর অক্টোবর ৩, ২০১৯
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়
বৃহস্পতিবার জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রদলের ওপর ছাত্রলীগের হামলা ইউএনবি

ধাওয়া খেয়ে পালাতে গিয়ে ক্যাম্পাসের মূল ফটকের সামনে ছাত্রদলের কয়েকজন নেতা-কর্মী পড়ে গেলে তাদেরকে মারধর করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা

বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও ক্যাম্পাসে সহাবস্থানের দাবিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) মিছিল করতে গিয়ে ছাত্রলীগের হামলায় ছাত্রদলের পাঁচ কর্মী আহত হয়েছেন।

বার্তা সংস্থা ইউএনবি জানিয়েছে, বৃহস্পতিবার (৩ অক্টোবর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে কলা ভবনের সামনে থেকে একটি মিছিল বের করে ছাত্রদল। মিছিলটি শান্ত চত্বরের কাছে পৌঁছালে পেছন থেকে ধাওয়া করে জবি শাখা ছাত্রলীগের কর্মীরা।

পালাতে গিয়ে ক্যাম্পাসের মূল ফটকের সামনে ছাত্রদলের কয়েকজন নেতা-কর্মী পড়ে গেলে তাদেরকে মারধর করেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল নেতা আব্দুর রশিদসহ অন্তত দুজনকে বেধড়ক মারধর করতে দেখা যায়। পরবর্তীতে রশীদকে পুলিশ হেফাজতে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

ছাত্রদলের অপর চার আহত নেতা-কর্মী হলেন- এম এ ফয়েজ, জাহিদুল ইসলাম, জায়েদ হাসান ও সাইফুল হক তাজ।

ঘটনার পর জবি ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক সাদিকুর রহমান সাদিক বলেন, ‘‘ক্যাম্পাসে সহাবস্থানের দাবিতে আমরা শান্তিপূর্ণ মিছিল শুরু করি। হঠাৎ পেছন থেকে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা আমাদের ওপর হামলা চালায়। এতে আমাদের বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন।’’

জবি ছাত্রলীগের আহ্বায়ক (সম্মেলন প্রস্তুত কমিটি) আশরাফুল আলম টিটন বলেন, ‘‘ক্যাম্পাসে বুড়ো ও অছাত্রদের কোনো স্থান হবে না। দলীয় কার্যক্রমের নাম দিয়ে কেউ অশান্ত পরিবেশ তৈরির চেষ্টা করলে আমরা বসে থাকবো না।’’

‘‘তবে যাদের ছাত্রত্ব আছে তারা ক্যাম্পাসে আসুক, এতে আমাদের কোন বাধা থাকবে না,’’ যোগ করেন ছাত্রলীগের এ নেতা।

যোগাযোগ করা হলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, ‘‘সকালে ছাত্রদল কর্মীরা মিছিল করলে ছাত্রলীগের হামলায় একজন গুরুতর আহত হয়। তার নিরাপত্তার কথা ভেবে আমরা প্রথমে তাকে প্রক্টর অফিসে নিয়ে আসি এবং পরবর্তীতে তাকে পুলিশের সহযোগিতায় মিটফোর্ড হাসপাতালে পাঠানো হয়।’’