• বুধবার, ডিসেম্বর ১১, ২০১৯
  • সর্বশেষ আপডেট : ১০:১৮ রাত

'জাপা ক্ষমতায় গেলে নূর হোসেন-ডা. মিলন হত্যার বিচার করা হবে'

  • প্রকাশিত ০৫:৩২ সন্ধ্যা নভেম্বর ১০, ২০১৯
জিএম কাদের
জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের। ফাইল ছবি।

'এরশাদ ১৯৮৬ সালের ১০ নভেম্বর সামরিক শাসন তুলে দিয়ে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন'

জাতীয় পার্টি (জাপা) ক্ষমতায় গেলে নূর হোসেন ডা. মিলন হত্যার বিচার করা হবে বলে জানিয়েছেন দলটির চেয়ারম্যান জিএম কাদের।রবিবার (১০ নভেম্বর) গণতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বনানীতে জাপা'র চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এই কথা বলেন।

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, "নূর হোসেন ও ডাক্তার মিলন হত্যার ইস্যু তুলে দেশের মানুষকে বারবার বিভ্রান্ত করা হয়। আমাদের নেতা এরশাদকে অপবাদ দেওয়া হয়। এর একটা সমাধান জরুরি হয়ে পড়েছে। আমরা রাষ্ট্র ক্ষমতায় গেলে নুর হোসেন ও ডা. মিলন হত্যার বিচার করবো।"

"নূর হোসেন ও ডাক্তার মিলনকে কারা হত্যা করেছে, কেন হত্যা করেছে এবং কীভাবে হত্যা করেছে তা নিরপেক্ষ তদন্তের মাধ্যমে প্রকাশ করা জরুরি হয়ে পড়েছে।", যোগ করেন তিনি।

জি এম কাদের আরও বলেন, "এরশাদ ১৯৮৬ সালের ১০ নভেম্বর সামরিক শাসন তুলে দিয়ে দেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। তার পর থেকেই কাঠামোগত গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা অব্যাহত আছে। তবে গণতান্ত্রিক চর্চা ব্যাহত হয়েছে বারবার। গণতন্ত্রের সঠিক চর্চা থাকলে দেশে ৫ কোটিরও বেশি বেকার থাকতো না।"

জাপা মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা, প্রেসিডিয়াম সদস্য হাবিবুর রহমান, শেখ মুহাম্মদ সিরাজুল ইসলাম, সুনীল শুভ রায়সহ দলের কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, ১৯৮৭ সালের ১০ নভেম্বর বুকে ও পিঠে "স্বৈরাচার নিপাত যাক, গণতন্ত্র মুক্তি পাক" শ্লোগান লিখে রাস্তায় নেমেছিলেন নূর হোসেন। এরশাদের স্বৈরশাসনবিরোধী আন্দোলন তখন তুঙ্গে। ওইদিন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগের একটি মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন নূর হোসেন। মিছিলটি "জিরো পয়েন্ট" এলাকায় পৌঁছালে পুলিশ পুলিশ কাঁদুনে গ্যাস ও গুলি ছোড়ে। এতে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান নূর হোসেন।