• শুক্রবার, ফেব্রুয়ারি ২১, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৪ দুপুর

৪২ হাজার লাইট লাগানোর প্রতিশ্রুতি দিলেন আতিকুল

  • প্রকাশিত ০৮:২৩ রাত জানুয়ারী ১৯, ২০২০
আতিকুল ইসলাম
আতিকুল ইসলাম। ফাইল ছবি সৈয়দ জাকির হোসেন/ঢাকা ট্রিবিউন

'নির্বাচিত হলে নারীবান্ধব ঢাকা শহর গড়ে তোলা হবে'

নির্বাচিত হলে আলোকিত ঢাকা গড়তে ৪২ হাজার লাইট লাগানোর প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে আওয়াামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী আতিকুল ইসলাম।

শনিবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে রাজধানীর কল্যাণপুরে নির্বাচনী প্রচারনা ও গণসংযোগ শুরু করার সময় সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি।

আতিকুল ইসলাম বলেন, “আলোকিত ঢাকা নির্মাণে নগরীতে ৪২ হাজার লাইট লাগানো হবে। এই লাইট লাগানোর জন্য কন্ট্রোল প্যানেলও কমান্ড সেন্টারের মাধ্যমে চলে আসবে। নিরাপদ, পরিষ্কার ও আলোকিত ঢাকা গড়তে ইতিমধ্যে আমরা কমান্ড সেন্টারের কাজ শুরু করেছি।"

"এখন থেকে কমান্ড সেন্টারের মাধ্যমে ঢাকার কোথায় ময়লা পড়ে আছে- পরিচ্ছন্নকর্মীরা কোথা থেকে ময়লা নেয়নি, কমান্ড সেন্টারের মাধ্যমে সেই খবর চলে আসবে," যোগ করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, "নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে সব সেবা প্রতিষ্ঠানকে কেন্দ্রীয় মনিটরিং ব্যবস্থার আওতায় আনা হবে। আগামী এক বছরের মধ্যে আলোকিত ঢাকা বিনির্মাণে পুরো ঢাকা সিটি কমান্ড সেন্টারের অধীনে চলে আসবে।"

এ সময় তিনি নারী বান্ধব ঢাকা গড়ে তোলারও প্রতিশ্রুতি দেন। আতিকুল বলেন, "নারীবান্ধব শহর গড়তে পুরো শহরকে সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা হবে। সিসি ক্যামেরার নেটওয়ার্কও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের কমান্ড সেন্টারের মাধ্যমে চলে আসবে।"

ইতোমধ্যে ৯ মাস দায়িত্ব পালন করেছেন উল্লেখ করে আতিকুল ইসলাম বলেন, "আমি ঢাকা নগরীকে ডিজিটাল সিটি বিনির্মাণের জন্য অনেক কিছু করেছি। সত্যিকার অর্থে ৯ মাস অল্প সময়ের মধ্যে কাজের ভিজিবিলিটি হয় না এবং এটি আমার পরিকল্পনার মধ্যে ছিল কমান্ড সেন্টার। ইতোমধ্যে কমান্ড সেন্টার তৈরি করেছি।"

দুর্নীতিমুক্ত সিটি করপোরেশন গড়ার অঙ্গীকার ব্যক্ত করে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী বলেন, "এখন থেকে আপনারা অনলাইনের মাধ্যমে সবাই বাড়ির ট্যাক্স দেবেন, আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে আর যেতে হবে না। এ ধরনের কাজ ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে। অসাধু কর্মকর্তাদের দিন শেষ, এগুলো আর চলবে না। চলতে দেয়া হবে না।"

গণসংযোগ ও প্রচারণাকালে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচি, আওয়ামী-যুবলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল, ঢাকা মহানগর উত্তর যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মো. ইসমাইল হোসেন প্রমুখ।