• রবিবার, এপ্রিল ০৫, ২০২০
  • সর্বশেষ আপডেট : ১২:৫৯ দুপুর

বিএনপি: মিরপুর বস্তির আগুনের পেছনে প্রভাবশালী মহল জড়িত

  • প্রকাশিত ১০:৩৬ রাত মার্চ ১১, ২০২০
মিরপুর-আগুন
আগুনে পুড়ে যাওয়া বস্তির সামনে ‘গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের অধীনে ফ্ল্যাট প্রকল্পের নির্ধারিত স্থান’ লেখা একটি সাইনবোর্ড লাগানো দেখা যায়। সার্জিন শরীফ/ঢাকা ট্রিবিউন

‘বস্তিবাসীদের অভিযোগ রয়েছে ক্ষমতাসীন দলের প্রশ্রয়ে একটি প্রভাবশালী মহল এখানে বস্তি উচ্ছেদ করে গৃহায়ণ বা প্লট নির্মাণের চেষ্টা করছে’

মিরপুরের রূপনগর বস্তিতে আগুনের ঘটনার পেছনে প্রভাবশালী মহল জড়িত এবং তারা সেখানে গৃহায়ণ প্রকল্প করার জন্য এটা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

বুধবার (১১ মার্চ) আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি ঘটনার নিরপেক্ষ তদন্তও দাবি করেন।

“আমরা এ রূপনগর বস্তিতে বার বার আগুনের ঘটনা দেখছি। সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কিছু দিন আগেও আমরা এখানে এসেছিলাম। বস্তিবাসীদের অভিযোগ রয়েছে যে ক্ষমতাসীন দলের প্রশ্রয়ে একটি প্রভাবশালী মহল এখানে বস্তি উচ্ছেদ করে গৃহায়ণ বা প্লট নির্মাণের চেষ্টা করছে,” বলেন বিএনপি নেতা।

তিনি আরও বলেন, “আমরা মনে করি

এ ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্ত করা প্রয়োজন এবং তা কোনো মহলের প্রভাবমুক্ত থেকে নিরপেক্ষ হতে হবে।”


আরও পড়ুন - মিরপুরের রূপনগর বস্তির আগুন নিয়ন্ত্রণে


ফখরুল আক্ষেপ করে বলেন, “বিত্তশালীদের জন্য নতুন গৃহায়ণ প্রকল্প গ্রহণ করা হলেও বস্তিবাসী ও অতি দরিদ্রদের বাসস্থান ও পুনর্বাসনের জন্য এখন পর্যন্ত কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এটি আমাদের জন্য খুব দুর্ভাগ্যজনক।”

নিম্ন আয়ের মানুষজন বস্তিতে থাকে উল্লেখ করে তিনি বলেন, যেসব বস্তিবাসী আগুনের শিকার হয়েছেন তারা একেবারে নিঃস্ব হয়ে গেছে। তারা সবকিছু হারিয়ে ফেলেছেন।

আগুনে বস্তিবাসীদের ক্ষয়ক্ষতির ঘটনায় ফখরুল গভীর দুঃখ প্রকাশ করেন এবং বার বার এমন ঘটনা ঘটার পরও কর্তৃপক্ষ বস্তিবাসীদের আগুন থেকে রক্ষায় ব্যবস্থা না নেওয়ায় নিন্দা জানান।

রূপনগর বস্তিতে বুধবার সকাল পৌনে ১০টার দিকে ভয়াবহ আগুন লাগে এবং মুহূর্তের মধ্যেই তা আশপাশে ছড়িয়ে পড়ে। পরে অগ্নিনির্বাপক কর্মীরা তিন ঘণ্টা চেষ্টা চালিয়ে তা নিয়ন্ত্রণে আনেন। এতে শতাধিক ঘর পুড়ে গেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন।