ইনু: ফেরেশতাকেও যদি ক্ষমতায় বসান পণ্যের দাম কমাতে পারবে না

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘বিএনপি সাম্প্রদায়িকতার পাইকারি ব্যবসায়ী এবং জামায়াত, হেফাজত, জেএমবি সাম্প্রদায়িকতার খুচরা ব্যবসায়ী। খুচরা ব্যবসায়ী থাকলো কী গেলো তাতে কিছু যায়-আসে না’

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেছেন, “আজকে যদি দেশের সরকার অদল-বদল হয়ে যায়, ফেরেশতাও যদি ক্ষমতায় বসে, তারপরও যুদ্ধের কারণে বৃদ্ধি পাওয়া পণ্যের দাম কমাতে পারবে না। কার কতটুকু ক্ষমতা অতীতে দেখেছি। আমরা জানি কে চোর আর কে ভালো মানুষ।”

সোমবার (২৯ আগস্ট) দুপুর ১২টায় কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলা অডিটোরিয়ামে শিল্পকলা অ্যাকাডেমিতে আধুনিক বাদ্যযন্ত্র প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

বিএনপির সঙ্গে জামায়াতের সম্পর্ক ছিন্নের বিষয়ে হাসানুল হক ইনু বলেন, “মুসলিম লীগ আর জামায়াত পাকিস্তান আমলে ছিল দুই পার্টি। কিন্তু রাজাকারদের নিয়ে একসঙ্গে যুদ্ধ করলো। মুসলিম লীগ আর জামায়াত হাতের এপিঠ-ওপিঠ। একদলের লোক প্যান্ট পরে আরেক দলের লোক রাজনৈতিক মোল্লা। একদল ধর্মের মুখোশ পরে, আরেক দল গণতন্ত্রের। তারা সম্পর্ক রাখুক আর না রাখুক আত্মা তো এক।”

তিনি আরও বলেন, “বিএনপি সাম্প্রদায়িকতার পাইকারি ব্যবসায়ী এবং জামায়াত, হেফাজত, জেএমবি সাম্প্রদায়িকতার খুচরা ব্যবসায়ী। খুচরা ব্যবসায়ী থাকলো কী গেলো তাতে কিছু যায়-আসে না। সাম্প্রদায়িকতার পাইকার যতক্ষণ বাজারে থাকবে, সাম্প্রদায়িকতার ব্যবসা চলতেই থাকবে।”

জাসদ সভাপতি বলেন, “যারা জামায়াতকে ছেঁটে ফেলো, হেফাজতকে ছেঁটে ফেলো বলে, তারা বিএনপিকে ছাঁটার কথা বলে না। বিএনপি তো জাতির পিতা মানে না। সংবিধানের চার নীতি মানে না। ৩০ লাখ শহীদ মানে না। স্বাধীনতার ঘোষণা মানে না। ১৫ আগস্টে কেক কাটে। এই বিএনপি ক্ষমতায় গেলে দেশেকে আগামীকালই দ্বিতীয় পাকিস্তান বানিয়ে দেবে।”

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন মিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আব্দুল কাদের, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হারুন আর রশিদ, জেলা জাসদের সভাপতি গোলাম মহসিন, মিরপুর উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আহম্মদ আলী প্রমুখ।

ADVERTISEMENT

×