Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

তথ্যমন্ত্রী: বিএনপি সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা পরিস্থিতির সুযোগ নিচ্ছে

মন্ত্রীর দাবি, মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও রুহুল কবির রিজভী সারাদিন শুধু আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে আবোল-তাবোল কথা বলেন। বাংলাদেশ সরকার দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে

আপডেট : ০৯ মার্চ ২০২২, ০৫:৩১ পিএম

দেশে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির বিষয়ে তথ্যমন্ত্রী ড.হাছান মাহমুদ বলেছেন, “বিএনপির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীদের পাশাপাশি কিছু অসাধু ব্যবসায়ী পরিস্থিতির সুযোগ নিচ্ছে। সরকার এ বিষয়ে সজাগ রয়েছে।”

বুধবার (৯ মার্চ) দুপরে ঠাকুরগাঁও জেলা পরিষদের বিডি হলে জেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত বর্ধিত সভা শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন মন্ত্রী।

হাছান মাহমুদ আরও বলেন, “বিএনপি নির্বাচনকে ভয় পায়। কারণ সন্ত্রাস আশ্রিত এবং জ্বালাও-পোড়াও রাজনীতির কারণে তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। এছাড়া বেগম খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমান দুজনই শাস্তিপ্রাপ্ত আসামি। যেহেতু তাদের নেতারা নির্বাচনে অংশ নিতে পারবেন না, সে কারণে নির্বাচনে তাদের আগ্রহ নেই। জনগণ হতে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ায় তাদের পরাজয় অনেকটা নিশ্চিত।”

আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, “মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও রুহুল কবির রিজভী সারাদিন শুধু আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে আবোল-তাবোল কথা বলেন। রিজভী সাহেব নয়া পল্টনের দলীয় অফিসে বসে থাকেন। সেখানে খান ও ঘুমান, সে কারণে তারা দেশের অবস্থা জানেন না। দলীয় অফিসে বসে থাকতে থাকতে তাদের মেজাজ খিটখিটে হয়ে গেছে।”


আরও পড়ুন- তথ্যমন্ত্রী: এক দিনের আয় দিয়ে ২০ কেজি চাল কিনতে পারেন শ্রমিক


মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্য করে হাছান মাহমুদ বলেন, “তিনি মিডিয়ার সামনে বক্তব্য দিতে গিয়ে জনগণকে বিভ্রান্ত করতে  যেসব অভিযোগ করছেন তা সঠিক নয়। কারণ সাম্প্রতিক রুশ -ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সমস্ত পৃথিবীতে অনেকগুলো পণ্যের দাম বেড়েছে। বাংলাদেশেও কয়েকটি পণ্যের দাম বেড়েছে। বাংলাদেশ সরকার দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে। যাতে সাধারণ মানুষ কমমূল্যে পণ্য কিনতে পারেন সেজন্য টিসিবির আওতা বাড়ানো হয়েছে। কোটি মানুষকে কমদামে পণ্য দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। যেসব অসাধু ব্যবসায়ী ইচ্ছাকৃতভাবে পণ্যের দাম বাড়িয়ে ফায়দা লোটার চেষ্টা করছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।”

জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মুহ.সাদেক কুরাইশীর সভাপতিত্বে সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য রমেশ চন্দ্র সেন, সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক, অ্যাডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, অ্যাডভোকেট সফুরা বেগম রুমি, ঠাকুরগাঁও -২ আসনের এমপি আলহাজ্জ দবিরুল ইসলাম, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক দীপক কুমার রায় প্রমুখ।

বর্ধিত সভায় ঠাঁকুরগাও জেলার ৬ সাংগঠনিক থানা এবং সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের বিভিন্ন ইউনিয়নের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

About

Popular Links