Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিএনপির আন্দোলনের বিরুদ্ধে পাল্টা ব্যবস্থা নিচ্ছে আওয়ামী লীগ

আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতারা মনে করছেন এই সফরের সময় বিএনপি দেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালানোর চেষ্টা করবে

আপডেট : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৪:৫৯ পিএম

প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ৫ সেপ্টেম্বর নয়াদিল্লিতে চারদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে যাবেন। তবে আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ  নেতারা মনে করছেন এই সফরের সময় বিএনপি দেশে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালানোর চেষ্টা করবে

তাদের ধারণা, আওয়ামী লীগের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করতে আসন্ন দুর্গাপূজার জন্য নির্মিত হিন্দু মূর্তির ওপর কল্পিত হামলা চালাতে পারে বিএনপির লোকজন।

আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতারা জানিয়েছেন, যে কোনো ধরনের নৈরাজ্য রোধে সরকার সারাদেশে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিচ্ছে। বিএনপির নেতাকর্মী ও সমর্থকদের তালিকা তৈরি করছে পুলিশ এবং আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মাঠে তাদের সঙ্গে রয়েছে।

মে মাসে আওয়ামী লীগের এক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিরোধী দলের আন্দোলনে কোনো বাধা না দিতে দলের কর্মীদের প্রতি নির্দেশ দেন। এরপর ২৩ জুলাই আওয়ামী লীগের এক কর্মসূচিতে প্রধানমন্ত্রী একই বার্তা দিয়ে একটি পাবলিক বিবৃতি জারি করেন।

তবে ১১ আগস্ট ঢাকায় বিএনপির বিশাল সমাবেশের পর দলটি এ বিষয়ে নিজেদের অবস্থান পরিবর্তন করে।

আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ এক ব্যক্তি ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “বিএনপি কোনো রাজনৈতিক কর্মসূচি পালন করছে না। বিএনপির কর্মীরা রাজনৈতিক কর্মসূচির নামে ভাংচুর করছে। এজন্য আওয়ামী লীগের কর্মীদের গণমানুষের পাশে দাঁড়ানোর এবং তাদের অধিকার ও জানমাল রক্ষার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।”

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ রবিবার ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “বিএনপি লাশ নিয়ে রাজনীতি করতে চায়। তারা জনগণের ক্ষমতায় বিশ্বাস করে না, সরকারকে বিব্রত করতে তাদের সন্ত্রাস ও ভাঙচুরের পুরনো রীতি বেছে নিয়েছে।”

তিনি আরও বলেন, “তারা শান্তিপূর্ণভাবে রাজনৈতিক কর্মসূচি চালাতে চাইলে আমাদের কিছু বলার নেই। তবে রাজনৈতিক বিক্ষোভের নামে যদি তারা সহিংস আচরণ করে, তাহলে স্থানীয় প্রশাসন ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে।”

জ্বালানি তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের মূল্যবৃদ্ধি এবং ভোলায় ছাত্রদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের দুই নেতা নিহতের প্রতিবাদে গত ২২ আগস্ট থেকে সারাদেশে কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি। আগস্টের শেষ থেকে সেপ্টেম্বরের শুরু পর্যন্ত নারায়ণগঞ্জসহ সারাদেশে বিএনপির কিছু কর্মসূচিতে বাধা দিয়েছে স্থানীয় প্রশাসন ও ক্ষমতাসীন দলের সমর্থকরা।

আরেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম ঢাকা ট্রিবিউনকে বলেন, “আওয়ামী লীগ বাংলাদেশে ধর্মনিরপেক্ষতা ও সকল ধর্মের স্বাধীনতায় বিশ্বাস করে। বিএনপি ও জামায়াতের কর্মীরা দুর্গাপূজার আগে হিন্দু মন্দির ও প্রতিমা ভাংচুর করতে চাইলে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা তা রক্ষা করবে। প্রয়োজনে আওয়ামী লীগ সমর্থকরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পাশাপাশি মন্দির রক্ষা করবে।”

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “অতীতে সারাদেশে অগ্নিসংযোগ, বোমা হামলা ও সন্ত্রাসে অংশ নেওয়া অপরাধীদের তালিকা তৈরি করছে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। বিএনপি ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের তালিকায় নাম থাকলে প্রশাসন কী করতে পারে।”

About

Popular Links