Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নানক: বিএনপির শব্দবোমায় আমরা আতঙ্কিত নই

‘এই সরকারের মানবিক বোধ বলতে কিছু নেই’ মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যের জবাবে জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, ‘মানুষ পুড়িয়ে মারার দল বিএনপির মুখে মানবতার কথা মানায় না। আন্দোলনের নামে তারা বাসের ভেতরে যাত্রীকে জীবন্ত পুড়িয়ে মেরেছ’

আপডেট : ১৫ নভেম্বর ২০২২, ১১:৪৯ পিএম

বিএনপি নেতাদের দাবি এই নির্বাচন তাদের মুখ্য নয়, সরকার পতনই তাদের মুখ্য এ সম্পর্কিত এক প্রশ্নের জবাবে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেছেন, “আসলে বিএনপি এই কথা বলছে ২০০৮ সাল থেকে। তারা যে শব্দবোমা নিক্ষেপ করছে, এই শব্দবোমায় আমরা আতঙ্কিত নই।”

মঙ্গলবার (১৫ নভেম্বর) বিকেলে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনসহ মহিলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রস্তুতি মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপ-কমিটির পক্ষ থেকে পরিদর্শনে এসে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, “আমরা তাদেরকে (বিএনপি) অনুরোধ করবো, বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতির কারণে বাংলাদেশ একটি চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে। আমাদের নেত্রী শেখ হাসিনা এ চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছেন। তিনি করোনাভাইরাস মহামারি মোকাবেলা করে সফল হয়েছেন। তেমনিভাবে এই বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি মোকাবেলার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছেন। কাজেই সেই মুহূর্তে জনগণের মধ্যে কোনো আতঙ্ক না ছড়ানো অনুরোধ জানাচ্ছি।”

আরও পড়ুন- পদপ্রত্যাশী ছাত্রলীগ নেতাদের এসএমএসে বিরক্ত কাদের

“এই সরকারের মানবিক বোধ বলতে কিছু নেই” বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের এমন বক্তব্যের জবাবে তিনি বলেন, “যারা মানবতাকে ভুলন্ঠিত করেছে। যাদের প্রতিষ্ঠাতা সামরিক জান্তা জিয়াউর রহমান এবং যারা ক্ষমতায় এসে একাত্তরের পরাজিত জামায়াতকে নিয়ে এই দেশে মায়ের সামনে মেয়েকে ধর্ষণ করেছে, ভাইয়ের সামনে বোনকে ধর্ষণ করেছে, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় সমুন্নত মানুষের বাড়িঘর জ্বালিয়ে দিয়েছে। আমার বোধহয় তাদেরকে মানবতার শিক্ষা নেওয়া দরকার। যে মানবতা তারা লঙ্ঘন করেছে তার জন্য তাদের জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়া উচিত।”

তিনি বলেন, “মানুষ পুড়িয়ে মারার দল বিএনপির মুখে মানবতার কথা মানায় না। আন্দোলনের নামে তারা বাসের ভেতরে যাত্রীকে জীবন্ত পুড়িয়ে মেরেছে। তারাই বলছেন মানবতার কথা, এটি মনে হয় ভূতের মুখে রাম নাম।”

আরও পড়ুন- ছাত্রলীগ, যুব মহিলা লীগের সম্মেলন পেছাল

জাতীয় সম্মেলনকে সফল করার লক্ষ্যে ১১টি উপ-কমিটি গঠন করা হয়। জাহাঙ্গীর কবির নানককে আহ্বায়ক ও মির্জা আজমকে সদস্য সচিব করে মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। ২৫ নভেম্বর মহিলা আওয়ামী লীগ এবং ২৪ ডিসেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে অনুষ্ঠিত হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জাতীয় সম্মেলন উপলক্ষে গঠিত মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপ-কমিটির সদস্য সচিব ও আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, মহিলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা বেগমসহ সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

About

Popular Links