Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রধানমন্ত্রীর জনসভার জন্য প্রস্তুত যশোর, কঠোর নিরাপত্তা

সমাবেশ সফল করতে ৪০০ স্বেচ্ছাসেবকের একটি দল গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির সদস্যরা সমাবেশে আগতদের সহযোগিতা করবেন

আপডেট : ২৩ নভেম্বর ২০২২, ০৭:৫৯ পিএম

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে প্রধান অতিথি রেখে জনসভার প্রস্তুতি নিচ্ছে যশোর আওয়ামী লীগ। সমাবেশস্থলে ইতোমধ্যে নৌকা আকৃতির মঞ্চ প্রস্তুত করা হয়েছে। আশা করা হচ্ছে, আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা জনসভায় যোগ দিবেন।

মঙ্গলবার (২২ নভেম্বর) থেকে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে জেলা প্রশাসন সতর্কতার সঙ্গে কাজ করছে।

আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‌্যাব) ডগ স্কোয়াড মোতায়েন করা হয়েছে। কারণ প্রায় “দশ লাখ” মানুষ সমাবেশে যোগ দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন- দলীয় একগুচ্ছ গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত আওয়ামী লীগের

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি ও মঞ্চ সজ্জা উপ-কমিটির আহ্বায়ক আব্দুল মজিদ জানান, সমাবেশ সফল করতে তারা প্রস্তুত রয়েছেন।

যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম মিলন বলেন, “প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য শোনার জন্য জেলা ও দক্ষিণাঞ্চলের মানুষ অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন।”

বৃহস্পতিবার যশোর স্টেডিয়াম জনসমুদ্রে পরিণত হবে আশা প্রকাশ করে মিলন বলেন, “সুশৃঙ্খল ও উৎসবমুখর পরিবেশে সমাবেশ করতে বাড়তি প্রস্তুতিও নেওয়া হয়েছে।”

আওয়ামী লীগের এই নেতা বলেন, “যশোরে প্রধানমন্ত্রীর জনসভা প্রমাণ করবে আওয়ামী লীগ নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলার বিরুদ্ধে। আর দল মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সঙ্গে তাল মিলিয়ে দেশকে এগিয়ে নিতে বদ্ধপরিকর।”

সমাবেশ সফল করতে ৪০০ স্বেচ্ছাসেবকের একটি দল গঠন করা হয়েছে। এই কমিটির সদস্যরা সমাবেশে আগতদের সহযোগিতা করবেন বলে জানিয়েছেন জেলা আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক এবং শৃঙ্খলা ও স্বেচ্ছাসেবক উপ-পরিষদের আহ্বায়ক সুখেন মজুমদার।

আরও পড়ুন- কাদের: আওয়ামী লীগ পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি করছে না

যশোর স্টেডিয়ামে সমাবেশস্থলের সংযোগস্থলে আবদুর রাজ্জাক কলেজের মাঠে খাবার পানি ও স্যানিটেশনের প্রস্তুতিও যথাযথভাবে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছেন জেলা জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী জাহিদ পারভেজ।

যশোর বিমানবন্দর থেকে স্টেডিয়াম পর্যন্ত  সরকারি-বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠানের দেয়াল প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য ও দলের বিভিন্ন স্লোগান ও রঙে রাঙানো হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত সড়কের সংস্কার কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে।

যশোর সদরের ট্রাফিক ইন্সপেক্টর শুভেন্দু কুমার মুন্সি জানান, অনুষ্ঠানস্থলে পৌঁছতে ১২টি নির্দিষ্ট রুট দেওয়া হয়েছে। সমাবেশের দিন শহরে কোনো যানবাহন প্রবেশ করবে না।

তিনি আরও বলেন, “জেলা আওয়ামী লীগের লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী প্রায় ২০টি পার্কিং এলাকা নির্বাচন করা হয়েছে।”

About

Popular Links