Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আওয়ামী লীগের অধীনে নির্বাচনে না যাওয়ার দাবি পুনর্ব্যক্ত বিএনপির

ফখরুল বলেন, ‘যারা বার কাউন্সিলের নির্বাচনে ভোট ডাকাতি করে, তাদের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়’

আপডেট : ২০ মার্চ ২০২৩, ১০:০১ পিএম

যারা সামান্য বার কাউন্সিলের নির্বাচনে ভোট ডাকাতি করে, তাদের অধীনে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয় বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগের অধীনে আগামী নির্বাচনে যাচ্ছে না বিএনপি, এটাই চূড়ান্ত। বরং সেই পরিকল্পিত প্রহসনের নির্বাচন জনগণকে সঙ্গে নিয়ে প্রতিহত করা হবে।”

সোমবার (২০ মার্চ) সকাল সাড়ে ১১ টায় নীলফামারীর সৈয়দপুরে রাজনৈতিক জেলা বিএনপি'র দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, “আওয়ামী লীগ সুপরিকল্পিতভাবে দেশে রাজনৈতিক সংকট সৃষ্টির মাধ্যমে জাতিকে বিভ্রান্ত করছে। দলীয় ফায়দা হাসিলে মত্ত হয়ে জনগণের অধিকার কেড়ে নিয়ে লুট ও সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করে একদলীয় বাকশালী শোষণ চালাচ্ছে।”

তিনি বলেন, “বর্তমান কর্তৃত্ববাদী আওয়ামী লীগ স্বৈরশাসকের জুলুমের ফলে বাক স্বাধীনতা হারিয়ে মানুষ আজ দিশেহারা। এই সরকার স্বেচ্ছাচারিতায় হাজার হাজার কোটি টাকা পাচার করে দেশকে দেউলিয়াত্বের দিকে ঠেলে দিয়েছে। আর তার খেসারত স্বরূপ দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতিতে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে দেশবাসীকে।”

তিনি বলেন, “গণতন্ত্রকে নির্বাসনে পাঠিয়ে দিয়ে সকল সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানকে ধ্বংস করে প্রহসনের নির্বাচনের মাধ্যমে বিনাভোটে ক্ষমতা কুক্ষিগত করে জাতির ঘাড়ে জগদ্দল পাথরের মত চেপে বসেছে। এই নাভিশ্বাস পরিস্থিতি থেকে উত্তরণে দেশ ও জনবিরোধী সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করে দেশকে রক্ষায় ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। এছাড়া দুর্বার আন্দোলনে ভোট চোরদের মসনদ তছনছ করে স্বাধীনতা নতুন সূর্যোদয় ঘটাতে ৭১ ও ৯১ এর মতো সংগ্রামে অবতীর্ণ হতে হবে।”

তিনি বলেন, “প্রকৃত দেশপ্রেমিক দল হিসেবে বিএনপি ১০ দফা কর্মসূচি দিয়েছে। যার অন্যতম দাবি হলো নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন। আওয়ামী লীগের অধীনে আর কোনো নির্বাচনে জনগণ যাবে না। প্রশাসনের পছন্দের লোকজনকে দিয়ে তামাশার নির্বাচন করে বাকশালীদের আর ক্ষমতা দখল করতে দেওয়া হবে না।”

মির্জা ফখরুল বলেন, “বেগম খালেদা জিয়া আর তারেক জিয়ার নেতৃত্বে আবারও স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারের মাধ্যমে জাতির ভোট, ভাত ও কথার অধিকার ফিরিয়ে দেওয়া হবে।” এ জন্য দলীয় নেতাকর্মীসহ দেশবাসীকে প্রস্তুত থাকার আহ্বান জানান তিনি।

সৈয়দপুর পৌরসভা কমিউনিটি হলে দুই অধিবেশনে দিনব্যাপী চলে ওই সম্মেলন। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে ভার্চুয়ালি যোগ দেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

About

Popular Links