Friday, May 31, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ওবায়দুল কাদের: আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মার্কেট পাহারা দেবেন

দেশের বিভিন্ন স্থানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা অগ্নিকাণ্ড ষড়যন্ত্রমূলক কি-না, সেটিও চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে বলে উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২৩, ০৪:৫০ পিএম

সাম্প্রতিক সময়ে দেশে একের পর এক মার্কেটে অগ্নিকাণ্ডের পেছনে নাশকতা থাকার আশঙ্কা করছে আওয়ামী লীগ। এ কারণে ক্ষমতাসীন দলটির নেতাকর্মীরা মার্কেটগুলোয় পাহারায় থাকবেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

বুধবার (১৯ এপ্রিল) সকালে ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলটির সভাপতিমণ্ডলী, সম্পাদকমণ্ডলী ও মহানগর নেতাদের যৌথসভায় ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন,  সাম্প্রতিক সময় দেশের বিভিন্ন স্থানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা অগ্নিকাণ্ড ষড়যন্ত্রমূলক কি-না, সেটি চিন্তার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। বিএনপির ইতিহাসে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা রয়েছে উল্লেখ করে সাম্প্রতিক সময়ে মাথাচাড়া দিয়ে ওঠা অশুভ শক্তি প্রতিহত করা হবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “পরপর কয়েক জায়গায় আগুন লাগার ঘটনা তো অগ্নিসন্ত্রাসের মতোই। মার্কেটে কি আগুন লেগেছে নাকি লাগানো হয়েছে, সেটাই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। 

দেশের স্বাভাবিক পরিস্থিতিকে অস্থিতিশীল করতে অশুভ শক্তি কাজ করছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অগ্নিসন্ত্রাসের কালো ছায়ার আশঙ্কা আছে। ১৩, ১৪, ১৫ সালের পদধ্বনি শুনতে পাওয়া যাচ্ছে। তারা কি আবারও আগুন নিয়ে খেলা শুরু করলো? আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে তারা শেখ হাসিনাকে হঠানোর জন্য উঠেপড়ে লেগেছে।”

ওবায়দুল কাদের বলেন, “রাজনৈতিক অঙ্গনে স্বাভাবিক পরিস্থিতিকে অস্বাভাবিক পরিণতির দিকে নিয়ে যেতে অশুভ শক্তির অশুভ তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে। বিএনপির নেতৃত্ব যে অশুভ শক্তি মাথাচাড়া দিয়ে উঠছে তা মোকাবিলায় মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। অগ্নিসন্ত্রাসের কালো ছায়া যেন নির্বাচনি পরিবেশ নষ্ট না করতে পারে সেজন্য সারা দেশে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকতে হবে।”

রাতের অন্ধকারে বিএনপি বাসে আগুন দিয়ে মানুষ পুড়িয়ে হত্যা করেছে উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, “নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্য বিএনপি যত ধরনের অপচেষ্টা করার তা-ই করছে। অগ্নিসন্ত্রাস কিংবা কালো ছায়া যেন বিশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করতে না পারে। বিএনপি আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে আগুন নিয়ে খেলছে কি -না, সেটাই এখন দেখার বিষয়।”

নেতাকর্মীদের কঠোর অবস্থানে থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “বিএনপির নেতৃত্বে অশুভ শক্তি মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে তা প্রতিহত করা হবে। সংবিধান অনুযায়ী নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছি। যত বাধাবিপত্তি কিংবা অপরাধী আসুক, আমরা প্রতিহত-প্রতিরোধ করব।”

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “দেশি-বিদেশি যে বা যারা কোনো কারণ ছাড়াই শেখ হাসিনাকে অন্যায়ভাবে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করে উৎখাত করতে চায়, তাদের উদ্দেশে বলতে চাই, ২০০৬-০৭ কিংবা ওয়ান-ইলেভেনের মতো অস্বাভাবিক পরিস্থিতি সৃষ্টি হতে দেবো না।”

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, “বিএনপি বিক্ষোভ-সমাবেশ, মানববন্ধন-পদযাত্রা, অবস্থান কর্মসূচি জনসম্মতি নিয়ে করতে পারেনি। বিএনপির কোনো আন্দোলনে জনগণ সাড়া দেয়নি। বিদেশিদের কাছে নালিশ করেই থেমে থাকেনি তারা, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং জাতিসংঘেও যোগাযোগের চেষ্টা করেছে।”

ওবায়দুল কাদের সবশেষে বলেন, “যে দেশে নিজেদের কোনো মানবাধিকার নেই, তারা অন্য দেশকে কীভাবে পরামর্শ দেবে? সংবিধানকে বাদ দিয়ে অন্য কোনো দেশে পরামর্শ ফরমায়েশি আমরা গ্রহণ করব না। এ দেশের গণতন্ত্র যেভাবে চলছে, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আমরা এগিয়ে যাব।”

About

Popular Links