Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ফখরুল : নোয়াখালীর ঘটনায় আওয়ামী লীগকে ক্ষমা চাইতে হবে

বিএনপির মহাসচিব বলেন, 'দেশে এক দলীয় শাসন প্রতিষ্ঠার নীল নকশা বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া চলছে এবং নির্বাচনের নামে দেশে যে প্রহসন হয়েছে, এটা জনগণের সাথে এক ধরণের প্রতারণা, প্রহসন। জনগণ তা মেনে নেয়নি এবং নেবে না।'

আপডেট : ০৫ জানুয়ারি ২০১৯, ০৩:১৪ পিএম

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে চার সন্তানের জননীকে গণধর্ষণের ঘটনার জন্য ক্ষমতাসীন আওয়ামীকে দায়ী করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেছেন, এ ঘটনার জন্য আওয়ামী লীগকে ক্ষমা চাইতে হবে। 

আজ শনিবার দুপুরে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন গণধর্ষণের শিকার ওই নারীর সঙ্গে দেখা করতে গিয়ে এ কথা বলেন ফখরুল।

বিএনপির মহাসচিব বলেন, 'দেশে এক দলীয় শাসন প্রতিষ্ঠার নীল নকশা বাস্তবায়নের প্রক্রিয়া চলছে এবং নির্বাচনের নামে দেশে যে প্রহসন হয়েছে, এটা জনগণের সাথে এক ধরণের প্রতারণা, প্রহসন। জনগণ তা মেনে নেয়নি এবং নেবে না।'

এ সময় মির্জা ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, 'এই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বহু নেতা-কর্মী আহত ও পঙ্গু হয়েছে। নির্বাচনের পূর্বে এবং পরে যে ধরনের নৃশংসতা হয়েছে তা ইতিহাসে বিরল। নোয়াখালীতে চার সন্তানের জননীকে গণধর্ষন করা হয়েছে। আমরা এ ঘটনায় ধিক্কার ও তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এ ঘটনায় রাজনীতিতে একটি দীর্ঘস্থায়ী ক্ষতের সৃষ্টি হলো, বাংলাদেশ অন্ধকার যুগে প্রবেশ করলো এবং বাংলাদেশ গণতন্ত্রবিহীন হলো।' 

'জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমরা এ সহিংসতার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করবো ও রুখে দাঁড়াব। এর বিচারের ভার জনগণের কাছে দিলাম। এর পিছনে যারা জড়িত তাদের প্রত্যেকের বিচার করতে হবে এবং আওয়ামী লীগকে এজন্য জাতির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।' 

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন-কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি কাদের সিদ্দিকী, জেএসডির আসম আবদুর রব, বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান ও বরকত উল্যা বুলু, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার এএম মাহবুব উদ্দিন খোকন, বিএনপি নেত্রী সৈয়দা আশিফা আশরাফি পাপিয়া, আতাউর রহমান ঢালীসহ জেলা নেতাকর্মীরা।

আজ বিকেল ৩ টায় জেলা আইনজীবি সমিতি মিলনায়তনে স্থানীয় সাংবাদিক ও আইনজীবিদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা করবেন ফখরুল।

About

Popular Links