Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কাদের: বিএনপির পদযাত্রা নয়, এটা পেছনযাত্রা-মরণযাত্রা

কাদের বলেন, বিএনপি তো এখন কথার রাজা। মির্জা ফখরুল, কাজ নেই শুধু কথা আর কথা। কাজ করছি, আর বাধ্য হয়ে তাদের কথার জবাব দিচ্ছি। তারা একতরফা মিথ্যাচার করবে। আমরা কী চুপচাপ বসে থাকব

আপডেট : ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০১:৪৯ পিএম

বিএনপির ঢাকার “পদযাত্রা” কর্মসূচিকে “পেছনযাত্রা ও মরণযাত্রা” বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, “বিএনপির মরণযাত্রা শুরু হয়ে গেছে। এভাবেই তারা পরাজিত হবে। আন্দোলনে হবে, আগামী নির্বাচনেও তাদের মরণ হবে। রাজনৈতিক মরণ।”

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) দুপুরে ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের আয়োজিত শীতবস্ত্র বিতরণ ও সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, “এত লাফালাফি, এত ছোটাছুটি, এত লোটা-কম্বল, এত কাঁথা-বালিশ। সমাবেশ হলে সাতদিন ধরে সমাবেশস্থলে শুয়ে পড়ে, আর পাতিলের পর পাতিল খাবার তৈরি হয়, কোথায় গেল সে দিন। কোথায় গেল লালকার্ড? কোথায় গেল গণঅভ্যুত্থান? কোথায় গেল গণজোয়ার? গণজোয়ারে এখন ভাটার টান। তাই এটা পদযাত্রা নয়, পেছনযাত্রা। এটা পদযাত্রা নয়, মরণযাত্রা।” 

ওবায়দুল কাদের বলেন, “বিএনপি তো এখন কথার রাজা। মির্জা ফখরুল, কাজ নেই শুধু কথা আর কথা। শুধু কথার মালার চাতুরী। কাজ করছি, আর বাধ্য হয়ে তাদের কথার জবাব দিচ্ছি। তারা একতরফা মিথ্যাচার করবে। আমরা কী চুপচাপ বসে থাকব? আমাদের অবশ্যই জবাব দিতে হবে।”

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “ডাক দিলেই চলে আসবেন। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা লড়াই করছি। রাজপথে আছি, রাজপথে থাকবো, রাজপথ আমরা ছাড়বো না আগামী নির্বাচন পর্যন্ত। আমরা মানুষের পাশে ছিলাম। এই শীতের কষ্টেও মানুষের পাশে আছি। মানুষের দুঃখে-কষ্টে, দুর্যোগে-ঝড়ে-বন্যায়-জলোচ্ছ্বাসে আমরা মানুষের পাশে ছিলাম, আছি। বঙ্গবন্ধু থেকে শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের ৭০ বছর মানুষের পাশে আমরা আছি। নির্বাচনে জিতলেও আছি, নির্বাচনে হেরে গেলেও আছি।”

“শেখ হাসিনার কথা, জনগণ চাইলে আমরা নির্বাচিত হবো আর জনগণ না চাইলে ২০০১ সালের মতো আমরা বিদায় নেব। এটাই তো আওয়ামী লীগের রাজনীতি! আমরা জোর করে বন্দুকের নল উঁচিয়ে ক্ষমতায় যাওয়ার বা ক্ষমতায় থাকার দল নই। এই দলের শেকড় বাংলাদেশের মাটির অনেক গভীরে তাই আওয়ামী লীগকে ধাক্কা দিয়ে সরিয়ে দেবেন এই দিবাস্বপ্ন দেখে লাভ নেই।”

আওয়ামী লীগ পালাবে না মন্তব্য করে তিনি বলেন, “আওয়ামী লীগ পালানোর দল নয়। এই দেশের জন্ম আমার, যেন এই দেশেতে মরি। আমরা পাল্টাপাল্টি নই। তারা করছে পদযাত্রা, আমরা দিচ্ছি শীতবস্ত্র। তারা বাড্ডাতে, আমরা উত্তরায়। ধারের কাছেও নেই। নেত্রী বলে দিয়েছেন, কোনো সংঘাত-উসকানি নয়।”

জগাখিচুড়ির ঐক্যজোটের জগাখিচুড়ি কর্মসূচি কোনো দিনও এই দেশে সফল হবে না বলেও এ সময় মন্তব্য করেন কাদের।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “প্রস্তুত হয়ে যান। ঘরে ঘরে যান। মানুষের কাছে যান, গণসংযোগ করুন। ভোট পেতে হলে শেখ হাসিনার উন্নয়ন আর আপনার আচরণ; এই দুটি মিলে ভোট হবে। এই দুটি মিলে ভোটের আসরে খেলা হবে।”

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুল রহমানের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, কার্যনির্বাহী সদস্য সানজিদা খানম, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম মান্নান কচি, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মেহের আফরোজ চুমকী, ঢাকা ১৮ আসনের সংসদ সদস্য হাবিব হাসান প্রমুখ।

About

Popular Links