Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

১২ জুলাই আন্দোলনের নতুন ঘোষণা আসবে, জানালেন ফখরুল

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘আওয়ামী লীগ দেশটাকে তাদের বাপের তালুকদারি মনে করে। এ জন্য তারা বেআইনিভাবে, নির্যাতন করে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়’

আপডেট : ০৯ জুলাই ২০২৩, ০৮:৩২ পিএম

“গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে” আগামী ১২ জুলাই ঢাকার সমাবেশ থেকে আন্দোলনের নতুন ঘোষণা আসবে বলে জানিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি এই আন্দোলনে দেশের আপামর জনসাধারণকে ঝাঁপিয়ে পড়ে “দানবীয় সরকারের” বিদায় নিশ্চিতের আহ্বান জানান।

রবিবার (৯ জুলাই) বিকেলে ছাত্রদল, যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দল আয়োজিত “তারুণ্যের সমাবেশে” প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। সিলেট নগরীর সরকারি আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত এ সমাবেশে প্রধান বক্তা ছিলেন যুবদল সভাপতি সুলতান সালাউদ্দিন টুকু।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল বলেন, “আজকে সমগ্র জাতি অত্যন্ত সংকটের মধ্যে আছে। এ জাতি স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব, অস্তিত্ব ও স্বকীয়তা নিয়ে বেঁচে থাকতে পারবে কি-না, এটা নির্ভর করছে আগামী কয়েক মাসের মধ্যে। আগামী জাতীয় সংসদকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ অন্যায় ও বেআইনিভাবে জোর করে আবারও ক্ষমতাকে সম্প্রসারিত করার চেষ্টা করছে।”

তিনি বলেন, “একদলীয় শাসন ব্যবস্থা বাকশালের বিরোধিতা করে মহান স্বাধীনতা যুদ্ধের সর্বাধিনায়ক বঙ্গবীর এম এ জি ওসমানী পার্লামেন্ট থেকে বেরিয়ে এসেছিলেন। আজ আবার শেখ হাসিনা একটি ভিন্ন আঙ্গিকে জাতির ওপর বাকশাল চাপিয়ে দিতে চাচ্ছেন।”

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “নির্বাচন হচ্ছে এ সরকারের ক্ষমতায় টিকে থাকার অস্ত্র। নির্বাচন কমিশনকে তারা তাদের মতো ব্যবহার করে। আওয়ামী লীগ দেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকেও ধ্বংস করে দিয়েছে।”

আওয়ামী লীগ আমলে কখনো সুষ্ঠু নির্বাচন হয় না উল্লেখ করে তিনি বলেন, “এ দল সুষ্ঠু নির্বাচন দিতে জানে না। এটা তাদের চরিত্রে নেই। আওয়ামী লীগ দেশটাকে তাদের তালুকদারি মনে করে। এজন্য তারা বেআইনিভাবে, নির্যাতন করে ক্ষমতা ধরে রাখতে চায়।”

এ সরকার দেশের মানুষের অনেক ক্ষতি করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “দেশের তরুণরা চাকরি পায় না। ১৫-২০ লাখ টাকা দিলে চাকরি হয়। এই অবস্থার পরিবর্তন ঘটাতে হবে। এজন্য এ সরকারকে বিদায় দেওয়া ছাড়া আর কোনো উপায় নেই। এজন্য সরকারকে পদত্যাগ করে সংসদ বিলুপ্ত করতে হবে। গঠন করতে হবে নতুন নির্বাচন কমিশন। এর মাধ্যমেই দেশের নতুন যাত্রা শুরু করতে হবে।”

সমাবেশে স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এস এম জিলানী, ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনাকুল ইসলাম শ্রাবণসহ দলীয় নেতাকর্মীরা বক্তব্য রাখেন।

About

Popular Links