Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কাদের: ইইউ’র সঙ্গে তত্ত্বাবধায়ক সরকার নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি

ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ) নির্বাচন নিয়ে কোনো উদ্বেগের কথা বলেনি। তারা ভালোটা আশা করেছে বলেও উল্লেখ করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক

আপডেট : ১০ জুলাই ২০২৩, ০৪:০১ পিএম

ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে বৈঠকে আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে আলোচনা হয়েছে। তবে, বৈঠকে তত্ত্বাবধায়ক সরকার বা সংসদ বিলুপ্তির বিষয়ে কোনো আলোচনা হয়নি বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

নির্বাচন নিয়ে ইইউ কোনো উদ্বেগের কথা বলেনি। তারা ভালোটা আশা করেছে বলেও উল্লেখ করেন ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (১০ জুলাই) সচিবালয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইটলি ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে দেখা করেন। বৈঠক শেষে সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

আলোচনার বিষয়বস্তু সম্পর্কে ওবায়দুল কাদের বলেন, “মূলত নির্বাচন নিয়ে কথাবার্তা হয়েছে। এ ছাড়া ইউরোপীয় ইউনিয়নে বন্ধু দেশগুলোর সঙ্গে সম্পর্কের অগ্রগতি এবং চলমান বিশ্বপরিস্থিতি নিয়ে কথা হয়েছে। একটি অবাধ, স্বচ্ছ ও বিশ্বাসযোগ্য সুষ্ঠু নির্বাচন হবে।”

নির্বাচন নিয়ে তাদের (ইইউ) উদ্বেগ কোন জায়গায়, সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, “কোনো উদ্বেগের কথা তারা বলেনি। তারা ভালোটা আশা করেছে। কোনো খারাপ কিছু নিয়ে কোনো কথা বলেনি। বাংলাদেশে একটি শান্তিপূর্ণ ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন হোক, সেটা তারা চেয়েছে। বাংলাদেশের গণতন্ত্র আরও শক্তিশালী ও পরিপক্কতা অর্জন করুক, এ নিয়ে আলোচনা হয়েছে।”তিনি আরও বলেন, “তাদের বলা হয়েছে, শেখ হাসিনা সরকার নিয়মিত (নির্বাচনকালীন) কাজ করে যাবে এবং এই সরকার তখন নির্বাচনকালে নির্বাচন কমিশনকে সহায়তা করবে, সহযোগিতা করবে, যাতে সবার কাছে গ্রহণযোগ্য ও বিশ্বাসযোগ্য নির্বাচন হয়। আর সরকারি দল তখন শুধু রুটিন ওয়ার্ক পালন করবে।”

মন্ত্রী বলেন, “অন্যান্য গণতান্ত্রিক দেশে যেভাবে নির্বাচন হয়, সেভাবেই নির্বাচন হবে। সংবিধানের বিধান অনুযায়ী নির্বাচন হবে। এ বিষয়ে আমাদের বক্তব্য জানিয়েছি এবং তাদের সঙ্গে সুন্দর আলোচনা হয়েছে। আলোচনা ফলপ্রসূ ও অর্থবহ।”

কাদের বলেন, “বৈঠকে জানানো হয়েছে, নির্বাচনে পর্যবেক্ষক আসবেন, পর্যবেক্ষণ করবেন। ভিয়েনা কনভেনশন নীতিমালা অনুযায়ী তারা তাদের দায়িত্ব পালন করবেন। আমাদের কোনো আপত্তি নেই। আওয়ামী লীগ তাদের স্বাগত জানাবে।”

এদিকে বৈঠকের বিষয়ে বাংলাদেশে ইইউ রাষ্ট্রদূত চার্লস হোয়াইটলি সাংবাদিকদের বলেন, “বাংলাদেশে সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায় ইইউ। এ দেশের নির্বাচন নিয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়নের আগ্রহ আছে। সেজন্য ৬ সদস্যের প্রতিনিধি দল এসেছে। নির্বাচন নিয়ে দলটি বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও নিরাপত্তা সংস্থার সঙ্গে আলোচনা করবে।”

উল্লেখ্য, আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরিবেশ মূল্যায়ন করতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের ৬ সদস্যের নির্বাচন অনুসন্ধানী মিশন রবিবার ঢাকায় এসে পৌঁছায়। আগামী ২৩ জুলাই পর্যন্ত দুই সপ্তাহের সফরে ইইউ প্রতিনিধি দলটি সরকার, রাজনৈতিক দলগুলো, নির্বাচন কমিশন, নিরাপত্তা কর্মকর্তা, সুশীল সমাজ এবং গণমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলবে।

About

Popular Links