Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

হানিফ: সরকারের পতন ঘটানোর শক্তি বিএনপির নেই

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, ‘বিএনপি মুখে এক কথা বলছে আর ভেতরে ভেতরে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে’

আপডেট : ১০ জুলাই ২০২৩, ০৮:২৪ পিএম

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ বলেছেন, “বিএনপির মূল ভরসার জায়গা হচ্ছে বিদেশি ষড়যন্ত্র। কারণ দেশের জনগণের সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক নেই। দেশের জনগণ তাদের পক্ষেও নেই। দেশের জনগণ যদি পক্ষে না থাকে তাহলে কোনো আন্দোলন সফল হয় না। এই কথা আমরা বহুবার বলেছি, এটা বিএনপিও জানে। জানে বলেই তাদের এখন মূল ভরসার জায়গা বিদেশি ষড়যন্ত্রের ওপরে। এতে কিছু যায় আসে না। এ দেশে মাটি মানুষের দল হচ্ছে আওয়ামী লীগ। আওয়ামী লীগের শেকড় বাংলার মাটির অনেক গভীরে। আন্দোলন করে আওয়ামী লীগ সরকারকে পতন ঘটানোর ক্ষমতা বিএনপির নেই।”

সোমবার (১০ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কুষ্টিয়ার হরিপুরে গড়াই নদী ভাঙন পরিদর্শন ও তীর সংরক্ষণ কাজের উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। পরে সেখানে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন হানিফ।

তিনি বলেন, “আগামী সংসদ নির্বাচন সংবিধান অনুযায়ী এই সরকারের অধীনেই হবে। আমার বিশ্বাস বিএনপি সংবিধান অনুযায়ী বর্তমান সরকারে অধীনে যে নির্বাচন হবে সেখানে তারা অংশগ্রহণ করবে। আর যদি বিএনপি অংশগ্রহণ না করে তাহলে তারা অস্তিত্ব সংকটে পড়বে।”

বিএনপি মুখে এক কথা বলছে আর ভেতরে ভেতরে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, “বিএনপি আসলে সরকার পতনের আন্দোলনের কথা বলে তাদের জনবিচ্ছিন্ন কর্মীদের মনোবল ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করছেন। বিএনপির লক্ষ্য নির্বাচনে যাওয়া। বিএনপির স্বভাব হচ্ছে সবসময় দ্বিচারিতা টাইপের। ওরা মুখে এক কথা বলে আর কাজ করে তার উল্টো। বিএনপির ঠকবাজি এসব কর্মকাণ্ড দেশের জনগণ জানে। অতএব এবার দেশের জনগণকে কোনো কিছু করেই বিভ্রান্ত করা যাবে না।”

“১২ জুলাই ঢাকায় বিএনপির তারুণ্যের সমাবেশ থেকে সরকার পতনের এক দফা কর্মসূচির ঘোষণা দেওয়া হবে”- বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্য প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, “খালেদা জিয়া ২০১৩ সালে যখন সরকার পতনের এক দফা আন্দোলন কর্মসূচি দিয়েছিল তারপর থেকে সেই একদফা কর্মসূচিই আছে। তাহলে তখন ওইটা কী কর্মসূচি ছিল?”

আওয়ামী লীগের এই যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বলেন, “এই এক দফার কর্মসূচিতো আমরা বহু দেখেছি। বাংলাদেশে বিদেশি কূটনৈতিক মেহমানরা আসছেন- তাদের কাছে নিজেদের শক্তি ও সাংগঠনিক অবস্থা জাহির করার জন্য তারা ১২ জুলাই একটা কর্মসূচি দিয়ে স্টান্টবাজি করছেন।”

কুষ্টিয়ার নদী ভাঙন প্রসঙ্গে হানিফ বলেন, “পদ্মা ও গড়াই নদীর ভাঙন প্রতিরোধে স্থায়ী প্রকল্প গ্রহণ করা হচ্ছে।”

এ সময় কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) আসনের সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার সেলিম আলতাফ জর্জ, মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামরুল আরেফিনসহ দলীয় নেতাকর্মী ও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

About

Popular Links