Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

প্রধানমন্ত্রী: খালেদা জিয়া ছাত্রদের দিয়েছিল অস্ত্র, আমি দিয়েছি খাতা-কলম

শেখ হাসিনা বলেন, ‘বাংলাদেশের যেকোনো স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ছাত্রলীগ মাঠে নেমেছে। ছাত্রলীগ হচ্ছে সেই শক্তি, যারা তারুণ্যের শক্তি দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাবে দেশকে’

আপডেট : ০১ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৮:৫৫ পিএম

“আওয়ামী লীগের জন্য ছাত্রদলই যথেষ্ট”- খালেদা জিয়ার এমন বক্তব্য উদ্ধৃত করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, “খালেদা জিয়া ছাত্রদলের হাতে অস্ত্র তুলে দিয়েছিল। বলেছিল, আওয়ামী লীগকে ধ্বংস করতে ছাত্রদলই যথেষ্ট। আর আমি ছাত্রলীগকে দিয়েছিলাম খাতা-কলম। বলেছিলাম, পড়াশোনা করতে হবে।”

শুক্রবার (১ সেপ্টেম্বর) জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ছাত্রলীগের উদ্যোগে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছাত্রসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, “অশিক্ষিত-মূর্খদের হাতে দেশ এগোতে পারে না। এরা মানুষের কল্যাণে কাজ করতে পারে না।”

প্রধানমন্ত্রী ছাত্রলীগের প্রতিটি নেতাকর্মীকে পাঠে মনোনিবেশ করে নিজেদের যোগ্য নাগরিক হিসেবে গড়ে তোলার পাশাপাশি তার সরকারের করে দেওয়া সুযোগকে কাজে লাগিয়ে উদ্যোক্তা হিসেবে নিজেদের গড়ে তোলারও পরামর্শ দেন।

শেখ হাসিনা বলেন, “বাংলাদেশের যেকোনো স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে ছাত্রলীগ মাঠে নেমেছে। ছাত্রলীগ হচ্ছে সেই শক্তি, যারা তারুণ্যের শক্তি দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাবে দেশকে। আজকের বাংলাদেশ বদলে যাওয়ার বাংলাদেশ। এই বাংলাদেশ আমরা গড়তে পেরেছি। প্রতিটি কাজ আমরা দেশের উন্নয়নে করতে পেরেছি। এর পেছনে ছাত্রলীগের ভূমিকা রয়েছে। যেকোনো দুর্বিপাকে তারা অগ্রণী ভূমিকা পালন করে।”

বিএনপি-জামায়াতের বিরুদ্ধে ছাত্রলীগসহ সব সংগঠনের নেতাকর্মীদের সতর্ক থাকার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “জনগণকে মনে করিয়ে দেবেন, ওরা (বিএনপি) ভোট করতে আসে না। ভোট পায় না। ভোট চায় না। ভোট পাবে না। কারণ, তারা তো লুটেরা, সন্ত্রাস। মানুষের শান্তি কেড়ে নেয়। মানুষের সম্পদ-ঘরবাড়ি কেড়ে নেয়। তারা জঙ্গিতে বিশ্বাসী। ১০ ট্রাক অস্ত্র চোরাকারবারি। এরা কখনও মানুষের কল্যাণ করতে পারে না।”

স্বাধীনতার পরপরই বাংলাদেশের বিরুদ্ধে চক্রান্ত শুরু হয়েছিল উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, “স্বাধীনতা যাতে নস্যাৎ হয়, সেই চেষ্টা করেছিল কিছু লোক। বঙ্গবন্ধু যখন যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশ গড়ছিলেন, তখন দেখেছি একশ্রেণি ধ্বংসাত্মক কাজ করে যাচ্ছে। পাটের গুদামে আগুন দেওয়া, থানা লুট করা, নির্বাচিত জনপ্রতিনিধিকে হত্যা করা। তারা যে চক্রান্ত স্বাধীনতার পর পর শুরু করেছিল, সেটা তো শেষ হয়ে যায়নি।”

পদ্মা সেতু নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “পদ্মা সেতু নিয়ে আমাদের ওপর অপবাদ চাপাতে চেষ্টা করতে চেয়েছে। দেশের মানুষের ভাগ্য গড়তে এসেছি; নিজের ভাগ্য নয়। রাষ্ট্রপতির মেয়ে ছিলাম। প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে ছিলাম। নিজেও আরও তিনবার প্রধানমন্ত্রী ছিলাম। কই, নিজের জন্য তো কিছু করার চিন্তা করিনি! বা আমাদের ছেলেমেয়েদের জন্যও নয়। তাদের শিক্ষা দিয়েছি। তারা কষ্ট করে পড়াশোনা করেছে। লোন নিয়ে পড়াশোনা করেছে। শিক্ষাটাই তাদের সম্পদ।”

এর আগে শুক্রবার বিকেল ৩টায় রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে ছাত্রলীগের ছাত্র সমাবেশ শুরু হয়। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত হন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি ৩টা ৪০ মিনিটে মঞ্চে আসেন। এরপর জাতীয় সংগীতের মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে সমাবেশ শুরু হয়।

About

Popular Links