Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ফখরুল: ইউরেনিয়াম কী জিনিস ওবায়দুল কাদের তা-ই জানেন না

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ওবায়দুল কাদের সাহেবকে আমি ব্যক্তিগতভাবে চিনি। আওয়ামী লীগে পড়াশোনা জানা যে কয়েকজন মানুষ আছেন, তাদের মধ্যে তিনি একজন। আমরা তাই জানতাম’

আপডেট : ১০ অক্টোবর ২০২৩, ০৯:৫৪ পিএম

বিএনপির নেতাদের মাথায় ইউরেনিয়াম ঢেলে ঠাণ্ডা করার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের যে বক্তব্য দিয়েছেন, তার জবাবে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, “ওবায়দুল কাদের সাহেবকে আমি ব্যক্তিগতভাবে চিনি। আওয়ামী লীগে পড়াশোনা জানা যে কয়েকজন মানুষ আছেন, তাদের মধ্যে তিনি একজন। আমরা তাই জানতাম। কিন্তু তার কি করুন অবস্থা। ইউরেনিয়াম কী জিনিস তা-ই জানেন না।”

মঙ্গলবার (১০ অক্টোবর) ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির নসরুল হামিদ মিলনায়তনে গণঅধিকার পরিষদ আয়োজিত “গণতন্ত্র, সার্বভৌমত্ব ও রোহিঙ্গা: শহীদ আবরার ফাহাদের প্রেরণা” শীর্ষক আলোচনা সভায় এসব কথা বলেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, “খনিজ ইউরেনিয়াম, এর জন্য তো বিশেষ কোনো জ্ঞানের প্রয়োজন হয় না। এর আগে উনি উল্টা-পাল্টা কথা বলেছেন না? তলে তলে আপস হয়েছে। এটার জন্য মনে হয় তার মনিব ক্ষুব্ধ হয়েছেন। ওই কারণে তিনি তার চেয়েও বেশি কথা বলতে চাচ্ছেন। এটাই হয় সাধারণত এ ধরনের দলগুলোতে! সরকারের পক্ষে তোষামোদি এমন পর্যায়ে চলে যায়, যা হাস্যরসে পরিণত হয়।”

আওয়ামী লীগ যখন গণতন্ত্রের কথা বলে তখন ভূতের মুখে রাম নাম মন্তব্য করে তিনি বলেন, “ঢাকার লোকের চেয়ে গ্রামের লোকেরা আরও বেশি ক্ষিপ্ত। গ্রাম এবং মফস্বলের মানুষ এই সরকারকে এক মুহূর্তও দেখতে চায় না।”

তিনি বলেন, “ঘরের মধ্যে সভা করার সময় এখন আর নেই। এখন সময় এসেছে বাইরে রাজপথে আমাদের কথাগুলোকে সামনে নিয়ে আসার। এই ভয়াবহ দানবীয় সরকারের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে আন্দোলন করে একে সরানোর। এছাড়া জাতির সামনে আর কোনো বিকল্প নাই।”

ফখরুল বলেন, “‘আমার এক জুনিয়র বন্ধু আমাকে বলেছেন যে, ওবায়দুল কাদের এ ধরনের কথা বলেছেন। আপনি এর প্রতিবাদ করতে যাবেন না। কথাগুলো আমাদের জন্য বিনোদনের ব্যাপার হয়ে গেছে। এটা আমাদের জন্য বিনোদন। আমাদের জীবন তো দুর্বিষহ, এইটুকু এন্টারটেইনমেন্ট থেকে আমাদের বঞ্চিত করবেন না।”

গণঅধিকার পরিষদের আহ্বায়ক ড. রেজা কিবরিয়ার সভাপতিত্বে এবং যুগ্ম আহ্বায়ক সাদ্দাম হোসেনের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন এবি পার্টির আহ্বায়ক এএফএম সোলায়মান চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী অ্যাডভোকেট শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, গণঅধিকারের ভারপ্রাপ্ত সদস্য সচিব ফারুক হাসান, যুগ্ম আহ্বায়ক কর্নেল (অব) মিয়া মশিউজ্জামান, ব্যারিস্টার জিসান মহসিন, আবদুল মালেক ফরাজি, যুগ্ম সদস্য সচিব আতাউল্লাহ, তারেক রহমান প্রমুখ।

About

Popular Links