Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কাদের: পিটার হাসের মুরুব্বিদের সঙ্গে আমাদের কথা হয়ে গেছে

তত্ত্বাবধায়ক সরকার এখন মরা লাশ উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘আজিমপুরের গোরস্তানে চিরনিদ্রায় শায়িত। গোরস্তান থেকে ফখরুল এখন সেই মরা লাশ টেনে আনবেন?'

আপডেট : ১২ অক্টোবর ২০২৩, ০৮:২০ পিএম

ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত পিটার হাসের নাম উল্লেখ করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, “পিটার হাস সাহেবের মুরুব্বিদের সঙ্গে আমাদের কথা হয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের মুরুব্বি যারা আছেন, তাদের সঙ্গে আমাদের কথাবার্তা শেষ।”

বৃহস্পতিবার (১২ অক্টোবর) বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের শান্তি ও উন্নয়ন সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।

পিটার হাসের সঙ্গে বিএনপি নেতাদের বৈঠকের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের বলেন, “এসব (বিএনপি-পিটার হাস বৈঠক) করে লাভ কী? পিটার হাসকে দেখিয়ে নির্বাচন বন্ধ করবেন, ঢাকায় তাণ্ডব করবেন, সেই খেলা আর খেলতে দেব না।”

পিটার হাসের সঙ্গে বিএনপি নেতাদের বৈঠকের প্রতি ইঙ্গিত করে ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, “আর কাউকে তো পায় না! ওইভাবে আমেরিকানরাও আসে না। পাত্তাও দেয় না। দৌড়ে যায় পিটার হাসের কাছে। সকালে ঘুম থেকে উঠে পিটার হাস, দুপুরে লাঞ্চ করতে যায় পিটার হাস, রাতে ডিনার করতে যায় পিটার হাস।”

তিনি বলেন, “ফখরুল সাহেব, দিল্লি বহু দূর! ক্ষমতায় যাওয়ার পথ আপনারা নিজেরাই বন্ধ করে দিয়েছেন। পিটার হাস সাহেব কী করবেন? ভিসানীতি দেবেন? নিষেধাজ্ঞা দেবেন? পিটার হাস সাহেবের মুরুব্বিদের সঙ্গে আমাদের কথা হয়ে গেছে। আমেরিকার (যুক্তরাষ্ট্রের) মুরুব্বি যারা তাদের সঙ্গে কথাবার্তা শেষ। উচ্চ পর্যায়েও কথাবার্তা হয়ে গেছে।”

তত্ত্বাবধায়ক সরকার এখন মরা লাশ দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আজিমপুরের গোরস্তানে চিরনিদ্রায় শায়িত। গোরস্তান থেকে ফখরুল এখন সেই মরা লাশ টেনে আনবেন? এই মরা লাশে মুক্তি আসবে না।”

বিএনপি নেতাদের মাথায় ইউরেনিয়াম ঢেলে ঠাণ্ডা করে দেওয়ার বক্তব্যের ব্যাখ্যা দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, “পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র যারা বন্ধ করে দিতে চায়, আমরা এত কোটি কোটি টাকার ইউরেনিয়াম কেন আনলাম? এজন্য বলেছি ওদের মাথার ওপর ঢালবো। ফখরুল মির্জা আব্বাসরা গরম হয়ে যায় তাদের মাথার ওপর ঢালতে হবে।”

সামনে দেশে ফাইনাল খেলা হবে উল্লেখ করে নেতাকর্মীদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ দেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। তিনি বলেন, “খেলার জন্য প্রস্তুত হয়ে যান। সামনে আসছে সেমিফাইনাল, তারপরে ফাইনাল। সামনে আরও দুই মাস, এখনই তোমরা বেশি ক্লান্ত হইয়ো না। ওরা ফাউল করবে, ফাউলের জবাব দিতে হবে।”

ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মন্নাফীর সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কামরুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির প্রমুখ।

About

Popular Links