Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিএনপির নির্বাচন বর্জনকে ‘সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র’ মনে করেন কাদের

কাদের বলেন, বিএনপি অংশ নিলে নির্বাচন আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতো। তবে তাদের অনুপস্থিতিতেও ভোটার শূন্য হয়নি, প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীনও হয়নি। দলটির নির্বাচনে অংশ না নেওয়া সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ

আপডেট : ১৯ জানুয়ারি ২০২৪, ০৪:০৬ পিএম

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির অংশ না নেওয়া সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ মনে করেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, “বিএনপি অংশ নিলে নির্বাচন আরও প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হতো। তবে তাদের অনুপস্থিতিতেও ভোটার শূন্য হয়নি, প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীনও হয়নি। দলটির নির্বাচনে অংশ না নেওয়া সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের অংশ।”

শুক্রবার (১৯ জানুয়ারি) দুপুরে ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, “পৃথিবীর অনেক দেশে সব দলের অংশ নেওয়ার পরও ৪০% এর ওপরে ভোটারের উপস্থিতি দেখা যায় না। আমরা জানি, ইউরোপসহ অনেক দেশে ভোটারের উপস্থিতি ২৫ থেকে ৩০% হয়। আবার কোথাও কোথাও এর চেয়েও কম হয়।”

তিনি বলেন, “বিশ্বে এখন সর্বগ্রাসী একটা সংকট সবাইকে ঘিরে ধরেছে। শৈত্যপ্রবাহে যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশে গত কয়েকদিনে তুষারঝড়ে ৩০ জন মারা গেছেন। এমন কোনো রাষ্ট্র নেই তুষার ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত। যুদ্ধ তো লেগেই আছে। রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ, সুদানের দুই জেনারেলের যুদ্ধ, ইসরায়েল-গাজার যুদ্ধ তো চলছেই। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, সংকট নিরসনে কয়েক মাস লাগবে, কিন্তু হামাসের ধ্বংস ছাড়া যুদ্ধ থামবে না “

কাদের বলেন, “দ্বাদশ জাতীয় সংসদের প্রথম অধিবেশন আগামী ৩০ জানুয়ারি থেকে শুরু হবে। শেখ হাসিনার সাহসিকতার কারণে আমরা দাবি করতে পারি যে দেশে গণতান্ত্রিক ধারাবাহিকতা রয়েছে। নির্বাচনের পরেও বিএনপির নেতৃত্বে চিহ্নিত সন্ত্রাসীরা ষড়যন্ত্রের পাঁয়তারা করছে।”

প্রসঙ্গত, দীর্ঘদিন মাঠের রাজনীতিতে অনেকটা নিষ্ক্রিয় থাকার পর দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনকে ঘিরে ২০২২ মাঝামাঝি সময় থেকে সক্রিয় হয় বিএনপি। সারাদেশে বিভাগীয় সমাবেশ করে দলটি তাদের নেতাকর্মীদের উজ্জীবিত করে। একইসঙ্গে নির্দলীয় সরকারের অধীনে নির্বাচন ও সরকারের পদত্যাগের দাবি জানিয়ে আসছিল। নির্বাচনের দিনক্ষণ যত ঘনিয়ে আসছিল রাজনৈতিক অঙ্গনে তত সহিংসতার আশঙ্কা স্পষ্ট হয়ে উঠছিল।

শেষমেশ গত বছরের ২৮ অক্টোবর দির্ঘদিন পর সহিংস রাজনৈতিক পরিস্থিতি তৈরি হয়। নানা প্রেক্ষাপটে বিএনপির শীর্ষ নেতাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এরমধ্যেই জাতীয় নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হলে বিএনপি তা বর্জন করে; একইসঙ্গে তাদের পুরোনো দাবি জানাতে থাকে। ভোটের একসপ্তাহ আগে থেকে তারা ভোট বর্জনে জনসমর্থন আদায়ে অসহযোগ আন্দোলনের ঘোষণা করে। এরমধ্যেই ২৮টি দলের অংশগ্রহণে নিরঙ্কুশ জয় পায় আওয়ামী লীগ। টানা চতুর্থবারের মতো সরকার গঠন করে শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগ।

About

Popular Links