Tuesday, May 28, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

কারামুক্ত হয়ে সংবর্ধনা পেলেন পাবনার ছয় শতাধিক বিএনপি নেতাকর্মী

কারামুক্তি পাওয়া বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের ৬ শতাধিক নেতাকর্মীকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়

আপডেট : ০৩ মার্চ ২০২৪, ০৮:২৬ পিএম

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আন্দোলনের সময় কারাগারে যাওয়া নেতাকর্মীদের সংবর্ধনা দিয়েছে পাবনা জেলা বিএনপি। এসময় কারাগার থেকে বের হওয়া বিএনপি ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের ৬ শতাধিক নেতাকর্মীকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেওয়া হয়।

রবিবার (৩ মার্চ) বিকেল ৩টায় পাবনা জেলা শহরের লাহেড়ীপাড়ায় বিএনপির কার্যালয়ে এই সংবর্ধনা অনুষ্ঠান হয়। এতে জেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা ছাড়াও কয়েকজন কেন্দ্রীয় নেতাও অংশ নেন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে কেন্দ্রীয় বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আওয়াল মিন্টু বলেন, “দেশি-বিদেশি ষড়যন্ত্রেও আমাদের নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ ছিল। যার কারণে হাজার চেষ্টা করেও দলকে ভাঙতে পারেনি। যে কারণে আমরা স্বাধীনতা যুদ্ধ করেছিলাম সেই উদ্দেশ্য আজ ধূলিসাৎ হতে চলেছে। মানুষের অধিকার আজ লুণ্ঠিত। সেই অধিকার ফিরিয়ে আনার জন্য আমাদের সংগ্রাম চলবেই।”

তিনি আরও বলেন, “বিএনপি সংগ্রাম না করলে কেউ সংগ্রাম করবে না। কারণ বিএনপিই দেশের সবচেয়ে বড় ও জনপ্রিয় দল। এজন্যই চলমান আন্দোলনে বিএনপি নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই স্বৈরাচার সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে।”

এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের বিশেষ সহকারী ও পাবনা জেলা বিএনপির সমন্বয়ক শামসুর রহমান শিমুল। নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, “ভোট বর্জনের যে ডাক দেওয়া হয়েছিল, জনগণ সেই ডাকে সাড়া দিয়ে ভোট বর্জনের মাধ্যমে তারেক রহমানকে নৈতিক সমর্থন দিয়েছে। আমাদের আন্দোলন চালিয়ে যেতে হবে। আন্দোলন ফসল ঘরে তোলার আগে আমরা ঘরে ফিরে যাব না। এজন্য সবার আগে আমাদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। নিজেদের মধ্যে বিভেদ ভুলে যেতে হবে।”

পাবনা জেলা বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুস সামাদ খান মন্টুর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব অ্যাডভোকেট মাকসুদুর রহমান মাসুদ খন্দকারের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক (রাজশাহী বিভাগ) ওবায়দুর রহমান চন্দন ও কৃষক দলের আহ্বায়ক কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন।

এছাড়া সাবেক সংসদ সদস্য কে এম আনোয়ারুল হক, কেন্দ্রীয় বিএনপির সদস্য জহুরুল ইসলাম বাবু, জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ মান্নান, যুগ্ম আহ্বায়ক আনিসুল হক বাবু, আবু ওবায়দা শেখ তুহিন, নুর মোহাম্মদ মাসুম বগা, জেলা বিএনপির সাবেক প্রচার সম্পাদক জহুরুল ইসলাম, ঈশ্বরদী উপজেলা বিএনপির সাবেক আহ্বায়ক সন্টু সরদার, সদর উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রেহানুল ইসলাম বুলাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

About

Popular Links