Monday, June 17, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ফখরুল: আজিজ আহমেদের নিষেধাজ্ঞার জন্য দায়ী সরকার

ভারতে সরকারদলীয় সংসদ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে মির্জা ফখরুল প্রশ্ন তোলেন, ‘সরকারের সক্ষমতা কোথায়’

আপডেট : ২২ মে ২০২৪, ০৬:২৩ পিএম

“সরকারের কারণেই” সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদের ওপর যুক্তরাষ্ট্রের স্যাংশন দেওয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, “দেখুন কত বড় লজ্জার কথা… সাবেক সেনাপ্রধানকে আমেরিকা থেকে স্যাংশন দেওয়া হয়েছে। এটা জাতির জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক, শেইম।”

বুধবার (২২ মে) বিকেলে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব এ মন্তব্য করেন।

ভারতে সরকারদলীয় সংসদ সদস্যের মৃত্যুর ঘটনা নিয়ে মির্জা ফখরুল প্রশ্ন তোলেন, “সরকারের সক্ষমতা কোথায়?”

যুক্তরাষ্ট্রের নিষেধাজ্ঞা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “এর জন্য দায়ী কে? এর জন্য (স্যাংশন) দায়ী তো এই সরকারই, এই শাসকগোষ্ঠী…তারা সেনাবাহিনীকে অন্যায়ভাবে ব্যবহার করার চেষ্টা করার জন্য এ ঘটনাটা ঘটেছে। আমরা আগেই বলেছি, এর জন্য দায়ী এই শাসকগোষ্ঠী, এই সরকার। তারাই তাদের বিভিন্ন কাজে ব্যবহার করেছে।”

বিএনপি মহাসচিব বলেন, “সেজন্য এদের (সরকার) সরিয়ে দেওয়া ছাড়া, জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা ছাড়া কোনো বিকল্প নাই… এটাই একমাত্র পথ।”

তিনি বলেন, “আজকে অনেকবার বলা হয়েছে বিভিন্ন জায়গা থেকে, মিডিয়াগুলো থেকে বিশেষ করে বাইরের মিডিয়া থেকে এই আজিজের (আজিজ আহমেদ) কথা। কিন্তু সরকার ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। শুধু তাই নয়, এখনও যেটা বলছে যে এটা নাকি রাজনৈতিক কথাবার্তা। এভাবে দেশকে, একটা জাতিকে তার মর্যাদা থেকে ধ্বংস করে দেওয়া, তার অনারকে কেড়ে নেওয়া... এটার অধিকার কারো নেই।”

মির্জা ফখরুল বলেন, “সেনাবাহিনী হচ্ছে আমাদের সবচেয়ে ভরসার স্থল, একটি প্রতিষ্ঠান। সেই সেনাবাহিনীকে সরকারের কারণে হেয়-প্রতিপন্ন করা হয়, সেটা কখনোই দেশের মানুষ মেনে নেবে না।”

তিনি বলেন, “আমরা দেখলাম র‌্যাবের যেসব কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা এলো, তা থেকে তো তারা (সরকার) কোনো শিক্ষা নিল না। তাদের মধ্য থেকে একজন পুলিশ বাহিনীর আইজি হয়ে গেলেন… এখন বোধহয় আইজি আছেন। এটার কতটুকু ইমপ্যাক্ট পড়ে এ ব্যাপারে আমার ধারণা নেই।”

তিনি আরও বলেন, “এজন্য নাই যে এই ধরনের সরকারগুলো, যারা গায়ের জোরে দখল করে, রাষ্ট্রকে ব্যবহার করে, এই বাহিনীগুলোকে ব্যবহার করে ক্ষমতায় টিকে থাকে, যারা তাদের ক্ষমতাটাকে চূড়ান্ত করার লক্ষ্যে এই বাহিনীগুলোকে ব্যবহার করে- এটা বাংলাদেশের জন্য একটা চরম দুর্ভাগ্য, আনফরচুনেট শুধু নয়, এটা লজ্জার কথা, শেইম।”

মির্জা ফখরুল অভিযোগ করে বলেন, “আজকে এই সরকার পরিকল্পিতভাবে (বাংলাদেশকে) ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করার চেষ্টা করছে। আজকে আন্তর্জাতিক বিশ্বে গণতন্ত্রের সূচকে বাংলাদেশ যে অবস্থানে গিয়ে পৌঁছেছে… দুর্নীতির ব্যাপারে যে অবস্থানে পৌঁছেছে, সেটা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক, দুঃখজনক… দেশের মাথা নিচু হয়ে আসে।”

তিনি বলেন, “আপনারা কি এখনও এই সরকারের সক্ষমতা দেখেন- আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে, নাগরিকদের অধিকার প্রতিষ্ঠার ক্ষেত্রে? বাংলাদেশের সাধারণ নাগরিক নয়, তাদের তথাকথিত একজন সংসদ সদস্য বিদেশে গিয়ে নিখোঁজ হয়ে গেলেন… তার কোনো খবর দিতে তারা পারলেন না। না পারল বাংলাদেশ সরকার, না পারল তাদের বন্ধুরাষ্ট্র ভারত। তাহলে আমরা কী মনে করব?”

তিনি আরও বলেন, “এটা একমাত্র করছে দুর্নীতি করা, বিদেশের মাটিতে… টাকার পাহাড় তৈরি করা- এটাই কোনো ঘটনা কি-না আমরা জানি না।”

এসময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনির গাড়িতে হামলা এবং সেগুনবাগিচায় ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণের ওপর ছাত্রলীগের হামলার নিন্দা জানান মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

About

Popular Links