Saturday, May 18, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

নজরুল ইসলাম খান: ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াই করে মাকে ফিরিয়ে আনবো

"হয় আমরা লড়াই করে আমাদের মাকে আমাদের মাঝে ফিরিয়ে আনবো, আর না হয় আমরা সবাই তার কাছে চলে যাবো।"

আপডেট : ২৮ মার্চ ২০১৯, ০৩:৪৫ পিএম

ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন করে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার কথা বলেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। 

তিনি বলেন, আমাদের সিদ্ধান্ত হোক, "হয় আমরা লড়াই করে আমাদের মাকে আমাদের মাঝে ফিরিয়ে আনবো, আর না হয় আমরা সবাই তার কাছে চলে যাবো। তিনি জেলখানায় তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাবেন আর আমরা বসে বসে আলোচনা আর দাবি জানিয়ে যাবো তা হতে পারে না।"

বৃহস্পতিবার (২৮ মার্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের আব্দুস সালাম হলে জাতীয়তাবাদী কৃষক দল আয়োজিত মহান স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এ মন্তব্য করেন।

চিকিৎসকরা খালেদা জিয়ার কোনও শারীরিক পরীক্ষা করেননি উল্লেখ করে তিনি বলেন, "খালেদা জিয়া কোনও কিছু ধরে রাখতে পারছেন না। তিনি বিছানা থেকে কারও সাহায্য ছাড়া নামতে পারছেন না। এই মানুষটিকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেওয়া হচ্ছে। চিকিৎসকরা তাকে দেখতে যাবে এটা অনুরোধ করে হয় না। আদালতে মামলা করে আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হলে চিকিৎসকরা তাকে দেখতে যায়। পিজি হাসপাতালে তাকে পরীক্ষা করার জন্য নিয়ে আসা হয়েছিল। সেখান থেকে যাওয়ার পরে তিন মাসের মধ্যে কোনও ডাক্তার যায়নি, কেউ তার পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেনি। ৭৬ বয়সী একজন মানুষকে এ অবস্থায় ফেলে রাখার অর্থ কি, উদ্দেশ্যটা কি?"

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদকে উদ্দেশ করে নজরুল ইসলাম বলেন, প্রতিদিনই তিনি আজেবাজে কথা বলেন। যে সব কথার কোনও অর্থ হয় না। এসব কথা কেউ বিশ্বাস করে না। আমি বুঝি না তারা নিজেরা নিজেদের ভালো বুঝেন কিনা। যখন তারা জিয়াউর রহমানকে পাকিস্তানের চর বলেন, তখন তারা এটা ভুলে যান যিনি তাকে বীর উত্তম পদবীতে ভূষিত করেছিলেন তিনি ছিলেন ওই দলেরই নেতা তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিবুর রহমান। জিয়াউর রহমান যদি পাকিস্তানের চর হয়, তবে তাকে যিনি উপাধি দিলেন তার সঙ্গে পাকিস্তানের সম্পর্ক কেমন। এইটুকু বুদ্ধি আমাদের মন্ত্রীদের মধ্যে নেই। তারা জিয়াউর রহমানকে অসম্মান করতে গিয়ে যে নিদের নেতাকে অসম্মান করেছেন, এটা তারা বুঝেন না।

আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন যুগ্ম-মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কৃষকদলের সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, যুগ্ম-আহ্বায়ক তকদির হোসেন মোহাম্মাদ জসিম, নাজিম উদ্দীন মাস্টার, শ্রমিক দলের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, ওলামা দলের সাধারণ সম্পাদক হাফেজ মাওলানা নেছারুল হক, ছাত্রদলের দফতর সম্পাদক আব্দুস সাত্তার পাটোয়ারি প্রমুখ।

About

Popular Links