Friday, June 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

শেষ রক্ষা হল না বাংলাদেশের

 ৫৬ বলে হাফসেঞ্চুরি করা মুশফিক ৬৮ রানে আউট হলে শেষ ৫ বলে মাশরাফি মুর্তজা ও মোসাদ্দেক হোসেন প্রয়োজনীয় রান তুলতে পারেননি

আপডেট : ২৬ জুলাই ২০১৮, ১০:১৭ এএম

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দ্বিতীয় ওয়ানডেতে জয়ের সম্ভাবনা পেয়েও আচমকা তীরে এসে তরী ডুবল বাংলাদেশের। শেষটায় এসে তাড়াহুড়ো কিংবা আত্মবিশ্বাসের অভাবের মাশুল আবারও দিলো বাংলাদেশ। বুধবার তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহিমের হাফসেঞ্চুরিতে ২৭২ রানের লক্ষ্যে দারুণভাবেই আগাচ্ছিল বাংলাদেশ। কিন্তু শেষ ওভারের নাটকীয়তায় তাদের ৩ রানে হারাল ক্যারিবিয়ানরা। ৬ উইকেটে ২৬৮ রানে থেমে যায় বাংলাদেশ তরী। এই জয়ে তিন ম্যাচের সিরিজে ১-১ এ সমতা ফেরাল স্বাগতিকরা। ম্যাচসেরা হয়েছেন স্বাগতিক ব্যাটসম্যান শিমরন হেটমায়ার।

তামিম ও সাকিবের ১০০ ছুঁইছুঁই জুটি ভাঙার পর মাহমুদউল্লাহকে নিয়ে মুশফিক সহজ জয়ের ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। ৪৬তম ওভারের প্রথম বলে মাহমুদউল্লাহর আউটে হুট করে এলোমেলো হয়ে গেল সেই সম্ভাবনা। জেসন হোল্ডারের অল্প উঁচুতে আসা বাউন্স কোনোভাবে ঠেকালেন মুশফিক। কোনও কিছু চিন্তা না করেই নন স্ট্রাইক থেকে দৌড়ে রান নিতে গেলেন মাহমুদউল্লাহ। তার আসা দেখে মুশফিকও দৌড় দিতে গিয়েও দেননি। ততক্ষণে মাহমুদউল্লাহ ফিরে আসার ব্যর্থ চেষ্টা করেন। অ্যাশলে নার্সের থ্রো থেকে সহজে স্টাম্প ভেঙে তাকে রান আউট করেন হোল্ডার।

তারপরও মুশফিকের সঙ্গে সাব্বির রহমান জয়ের আশা বাঁচিয়ে রেখেছিলেন। শেষ ২ ওভারে ১৪ রান দরকার ছিল সফরকারীদের। কিন্তু ৪৯তম ওভারের শেষ বলে কিমো পলের ফুল টস সাব্বির জোরে মারেন বাউন্ডারির দিকে। ডিপ মিডউইকেটে দাঁড়ানো শিমরন হেটমায়ার সেটা ধরে ফেলেন খুব সহজেই। ১১ বলে ১২ রানে আউট হন সাব্বির। শেষ ওভারে দরকার ছিল ৮ রান। মুশফিক থাকায় লক্ষ্যটা খুব বেশি কঠিন মনে হয়নি। কিন্তু কোমড়ের কিছুটা নিচে আসা হোল্ডারের বলটি সপাটে মারতে গিয়ে ডিপ মিডউইকেটে পলের হাতে তুলে দেন এই উইকেটরক্ষক ব্যাটসম্যান। ৫৬ বলে হাফসেঞ্চুরি করা মুশফিক ৬৮ রানে আউট হলে শেষ ৫ বলে মাশরাফি মুর্তজা ও মোসাদ্দেক হোসেন প্রয়োজনীয় রান তুলতে পারেননি।   

এর আগে বোলিংয়ে দারুণ শুরু হয়েছিল বাংলাদেশের। দ্রুত টপ অর্ডারের ৪ ব্যাটসম্যানকে ফেরায় তারা। কিন্তু শিমরন হেটমায়ার সেঞ্চুরি করে সফরকারীদের কাছ থেকে ম্যাচ কেড়ে নেন। সিরিজ বাঁচানোর লড়াইয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৪৯.৩ ওভারে সব উইকেট হারিয়ে করেছে ২৭১ রান।

রুবেল হোসেন সর্বোচ্চ ৩ উইকেট পান। মোস্তাফিজ ও সাকিব পেয়েছেন দুটি করে উইকেট।


About

Popular Links