Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আফগানিস্তানে নারীদের খেলাধুলা বাধাগ্রস্ত হলে টেস্ট বাতিলের হুঁশিয়ারি অস্ট্রেলিয়ার

হোবার্টে অনুষ্ঠিতব্য টেস্ট সিরিজ বাতিল করা ছাড়া আর কোনো উপায় থাকবে না বলে জানিয়েছে অজিরা

আপডেট : ০৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:১৪ পিএম

এ বছরের নভেম্বরে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে নিজেদের ইতিহাসের প্রথম টেস্ট খেলার কথা রয়েছে আফগানিস্তান ক্রিকেট দলের। কিন্তু আফগানদের সঙ্গে ঐতিহাসিক টেস্টটি বাতিলের হুঁশিয়ারি দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সম্প্রতি পুরো আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ নিয়েই তালেবান গোষ্ঠি। 

এর পরেই তারা আভাস দিয়েছে, নারীদের খেলায় অংশ নিতে দিবে না। এ বিষয় জানার পর ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়াও তাদের এই অবস্থানের বিরোধিতা করে নভেম্বরে হতে যাওয়া আফগানিস্তানের পুরুষ দলের বিপক্ষে টেস্ট বাতিলের হুমকি দিয়েছে। ক্রিকইনফো এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানিয়েছে।

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া বৃহস্পতিবার একটি বিবৃতিতে জানিয়েছে, যদি তালেবানরা আফগানিস্তানে নারীদের ক্রিকেট খেলা সমর্থন না করে তবে হোবার্টে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ বাতিল করা ছাড়া আর কোনো উপায় থাকবে না। এছাড়া ক্রীড়ামন্ত্রী রিচার্ড কোলবেকসহ কয়েকজন অস্ট্রেলিয়ান রাজনীতিবিদ বলেছেন, নারীদের খেলায় অংশগ্রহণে বাধা দিলে হোবার্টে ২৭ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া টেস্ট মাঠে গড়াবে না।

কোলব্যাক জানান, আফগানিস্তানের অ্যাথলেটদের দুই হাত বাড়িয়ে স্বাগত জানাবে অস্ট্রেলিয়া। তবে নারীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে না পারলে তালেবান পতাকাতলে কাউকে গ্রহণ করবে না তারা।

প্রসঙ্গত, তালেবান সরকারের সাংস্কৃতিক কমিশনের একজন মুখপাত্র আহমদুল্লাহ ওয়াসিক অস্ট্রেলিয়ার এসবিএস নিউজকে বলেছেন, ইসলামিক আইনে নারীদের জন্য ক্রিকেট নিষেধ। ইসলাম ও ইসলামিক আমিরাতের নিয়ম অনুযায়ী নারীদের জন্য ক্রিকেটে বা এমন কোন খেলাই বৈধ না যেখানে নারীদের দেখা যায়।

তার মতে, “ক্রিকেটে অনেক সময় এমন পরিস্থিতি আসতে পারে যেখানে কোনো নারী ক্রিকেটারের চেহারা ও শরীর ঢাকা থাকবে না, ইসলাম নারীদের এই অবস্থায় থাকা মানে না। এটা মিডিয়ার যুগ। নারীদের ছবি তুলবে ভিডিও করবে এবং মানুষ সেটা দেখবে।”

এই বক্তব্যের পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বার্তাসংস্থা পিএ'র কাছে একটি বিবৃতি দিয়েছে।

About

Popular Links