Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিরতি চান সাকিব

সদ্য সমাপ্ত আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে সাকিব নিজের খেলা পরিপূর্ণভাবে উপভোগ করতে পারেননি

আপডেট : ০৭ মার্চ ২০২২, ১১:০১ এএম

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিরতির কথা ভাবছেন সাকিব আল হাসান। ইতোমধ্যেই বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) কাছেও নিজের এ ভাবনার কথা জানিয়েছেন বাঁহাতি অলরাউন্ডার।

রবিবার (৬ মার্চ) দুবাই সফরের আগে সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে সাকিব এ কথা জানান।

ঢাকার শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে সাকিব জানান, সদ্য সমাপ্ত আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে তিনি নিজের খেলা পরিপূর্ণভাবে উপভোগ করতে পারেননি। আফগানদের বিপক্ষে ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজে নিজের অনুজ্জ্বল পারফরম্যান্সের ভিত্তিতেই যে ৩৪ বয়সী অলরাউন্ডারের এমন মন্তব্য, সেটা স্পষ্ট।

সাকিব বলেন, “মানসিক এবং শারীরিকভাবে বর্তমানে আমি যে অবস্থায় আছি, তাতে আমার মনে হয় না আমি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলতে পারব। আমার ধারণা, আমি যদি বিরতির মাধমে ছন্দ ফিরে পাওয়া আমার জন্য সহজ হবে। নিজের কাছে আফগানিস্তান সিরিজে আমাকে সাধারণ একজন প্যাসেঞ্জারের মতো মনে হয়েছে, যা কখনোই আমি আমার মধ্যে দেখতে চাই না।”

বাংলাদেশের এ তারকা অলরাউন্ডার আরও বলেন, “সত্যি বলতে ওয়ানডে এবং টি-টোয়েন্টি দুটি সিরিজে আমি নিজের খেলা উপভোগ করতে পারিনি। এ মানসিক অবস্থা নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ খেলা আমার জন্য বুদ্ধিমানের কাজ হবে বলে আমার মনে হয় না।”

আফগানিস্তানের বিপক্ষে তিন ওয়ানডেতে সাকিব ব্যাট হাতে ৬০ রান করেন এবং ৫ উইকেট নেন। অন্যদিকে, টি-টোয়েন্টি সিরিজের  দুটি ম্যাচে তিনি যথাক্রমে মাত্র ৫ ও ৯ রান করতে পারেন এবং ২টি উইকেট তুলে নেন।

সাকিব বলেন, “আফগানিস্তানের বিপক্ষে আমার পারফরম্যান্স হতাশাজনক ছিল। নিজের কাছ থেকে এবং বোর্ড ও সমর্থকরা আমার কাছে যেমনটা আশা করে, আমি তেমন পারফর্ম করতে পারিনি। আমি খুবই হতাশ।”

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরের ব্যাপারে দু-একদিনের মধ্যে সিদ্ধান্ত নেবেন বলে জানিয়ে সাকিব বলেন, “আমি জালাল ভাইয়ের  [বিসিবি ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান জালাল ইউনুস] সঙ্গে কথা বলেছি এবং তিনি আমকে দুই দিন ভাবতে বলেছেন। হতে পারে যে আমি ওয়ানডে খেলছি না কিন্তু টেস্ট খেলছি। আবার উল্টোটাও হতে পারে। আমি এখনও নিশ্চিত না হলেও বুঝতে পারছি যে আমার একটা বিরতি দরকার। আগামী এক বছরের জন্য আমাদের আন্তর্জাতিক সময়সূচি নিয়ে আমি বোর্ডের সঙ্গে আলোচনা করেছি। এভাবে আমি ভবিষ্যতের জন্য পরিকল্পনা করতে পারি এবং প্রস্তুত থাকার ব্যাপারে নিশ্চিত করতে পারি।”

সাকিবের এ চিন্তার কারণে তাকে দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে পাওয়া যাবে কী-না, তা নিতে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হয়েছিল, ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগের (আইপিএল) জন্য তিনি দক্ষিণ আফ্রিকা সফর মিস করবেন। তবে খেলোয়াড়দের নিলামে দুবার অবিক্রীত হওয়ায় অনেকেরই ধারণা ছিল যে সাকিব দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে যেতে পারেন।

সাকিবকে নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হলেও বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন জানিয়েছিলেন, সাকিব দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে দলের সঙ্গে থাকবেন। বিসিবিও সাকিবকে রেখেই এ দল ঘোষণা করছিল।

দুই টেস্ট ও তিন ওয়ানডে খেলতে শুক্রবার (১১ মার্চ) দক্ষিণ আফ্রিকার উদ্দেশ্যে বাংলাদেশ দলের রওনা দেওয়ার কথা রয়েছে।   

About

Popular Links