Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ভিনিসিয়াস-বেনজেমার জাদুতে লা লিগায় অব্যাহত রিয়াল মাদ্রিদের জয়রথ

সামনের সপ্তাহের এল ক্লাসিকো মহারণের আগে বড় জয় পেলেও রিয়াল মাদ্রিদের জন্য দুশ্চিন্তার বড় বিষয় হয়ে উঠেছে চোট সমস্যা

আপডেট : ১৫ মার্চ ২০২২, ১০:১৯ এএম

২০১৮ সালে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর প্রস্থানের পর যেন রিয়াল মাদ্রিদের জার্সিতে করিম বেনজেমার পুনরুত্থান হয়েছে। অন্যদিকে, গত মৌসুম হতাশাজনকভাবে কাটানোর পর চলমান মৌসুমে ভিনিসিয়াস জুনিয়রের হয়েছে পুনর্জন্ম। দুজন যেন এ মৌসুমে রিয়াল মাদ্রিদ দলের মূল কাণ্ডারি। তারুণ্য আর অভিজ্ঞতার মিশেলে এই জুটিই একের পর এক ম্যাচ জিতিয়ে চলেছে লস ব্লাঙ্কোসদের।

ব্যতিক্রম ছিল না সর্বশেষ ম্যাচটিও, করিম বেনজেমার জোড়া গোল আর ভিনিসিয়াসের গোলে রিয়াল মায়োর্কাকে তাদেরই মাঠে ৩-০ গোলে হারিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। ফলে আত্মবিশ্বাসী হয়েই সামনের সপ্তাহের এল ক্লাসিকোতে বার্সেলোনার বিপক্ষে মাঠে নামবে কার্লো অ্যানচেলত্তির শিষ্যরা।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিএসজির বিপক্ষে দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তনের পর মায়োর্কার বিপক্ষে ম্যাচে একাদশে ৪টি পরিবর্তন এনেছিলেন রিয়াল মাদ্রিদ কোচ। রাইটব্যাকে দানি কার্ভাহালের বদলে লুকাস ভাসকেস, সেন্ট্রাল ডিফেন্সে এডের মিলিতাও-এর জায়গায় ফার্ল্যান্ড মেন্ডি, মিডফিল্ডে লুকা মডরিচের জায়গায় ক্যাসেমিরো আর রাইট উইংয়ে মার্কো অ্যাসেন্সিওর পরিবর্তে রদ্রিগো গোয়েসকে নিয়ে মাঠে নেমেছিল রিয়াল মাদ্রিদ।

তবে তাতে লস ব্লাঙ্কোসরা বেশি সুবিধা করতে পারেনি। যদিও ম্যাচের ৫ মিনিটে ভিনিসিয়াসের বাড়ানো বল থেকে করিম বেনজেমার নেওয়া শট ঠেকিয়ে দেন মায়োর্কা গোলরক্ষক সার্জিও রিকো। যদিও প্রথমার্ধে গোলের ভালো সুযোগ তৈরি করেছিল মায়োর্কাই। ঘরের মাঠে দুবার গোলের কাছাকাছিও চলে গিয়েছিল স্বাগতিকরা। কিন্তু দুবারই অল্পের জন্য বেঁচে যায় রিয়াল। ফলে গোলহীনভাবেই ম্যাচের মধ্যবিরতিতে যায় দুদল।

প্রথমার্ধের বিবর্ণ রিয়াল যেন দ্বিতীয়ার্ধে পুরোই ভিন্ন এক রূপে আবির্ভূত। প্রথমার্ধে তেমন আক্রমণ না করলেও মায়োর্কার রক্ষণভাগে ত্রাস ছড়াতে শুরু করেন রিয়াল মাদ্রিদের ফরোয়ার্ডরা। ফলও চলে আসে দ্রুতই। ৫৫ মিনিটে ফেদে ভালভার্দের তোপে মায়োর্কা ডিফেন্ডার বল হারালে তা ফাঁকায় দাঁড়ানো ভিনিসিয়াসের দিকে ঠেলে দেন বেনজেমা। সেখান থেকে বল জালে জড়িয়ে দিয়ে রিয়ালকে এগিয়ে দিতে ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গারের কোনো ভুল হয়নি।

৭৫ মিনিটে মায়োর্কার ডি-বক্সে ভিনিসিয়াসকে অবৈধভাবে বাধা দেওয়ায় পেনাল্টি পায় ৩৪ বারের শিরোপা জয়ীরা। ১২ গজ দূর থেকে করা স্পট কিকে লক্ষ্যভেদ করে রিয়ালের লিড দ্বিগুণ করেন বেনজেমা। মিনিট ছয়েক পর বাঁ প্রান্ত থেকে বদলি হিসেবে মাঠে নামা মার্সেলোর ক্রস থেকে মাথা ছুঁইয়ে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন ফরাসি স্ট্রাইকার। শেষ পর্যন্ত ওই ৩-০ গোলের জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে রিয়াল মাদ্রিদ।

এল ক্লাসিকো মহারণের আগে বড় জয়ের আত্মবিশ্বাস পেলেও রিয়াল মাদ্রিদের জন্য দুশ্চিন্তার বড় বিষয় হয়ে উঠেছে চোট সমস্যা। মায়োর্কার বিপক্ষে ম্যাচের মাঝপথে গোড়ালির চোট নিয়ে মাঠ ছেড়েছেন রদ্রিগো। একইভাবে মাঠ ছেড়েছেন লেফটব্যাক ফার্ল্যান্ড মেন্ডিও। দ্বিতীয় গোল করার সময়ে চোটে পড়েছেন বেনজেমাও। তার মাঠ ছাড়ার আগেই নির্ধারিত ৫টি পরিবর্তন করে ফেলায় ১০ জন নিয়েই বাকি সময় খেলতে হয় রিয়ালকে। ৬ দিন পর তারা চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার বিপক্ষে খেলবেন নাকি মাঠের বাইরে থাকবেন, তা জানা যাবে সামনের দিনগুলোতেই।

আপাতত ২৮ ম্যাচে ৬৬ পয়েন্ট নিয়ে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সেভিয়ার (৫৬) চেয়ে ১০ পয়েন্ট এগিয়ে থেকে লা লিগার শীর্ষস্থানে রয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। আর এক ম্যাচ কম খেলে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে বার্সেলোনা রয়েছে ৩য় স্থানে।

About

Popular Links