Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মাঠের বাইরেও ক্রিকেটারদের পেশাদারিত্ব বজায় রাখতে বললেন সুজন

আসন্ন জিম্বাবুয়ে সফরে থাকা জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন খালেদ মাহমুদ সুজন

আপডেট : ২৫ জুলাই ২০২২, ১১:২৭ পিএম

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড ও জাতীয় ক্রিকেট দলের ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন খেলোয়াড়দের ব্যক্তিগত ও পেশাগত জীবনের মধ্যে একটা রেখা বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন। প্রাক্তন এই অধিনায়ক জনসমক্ষে ক্রিকেটারদের তাদের পেশাগত জীবন নিয়ে মতামত প্রকাশের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকতে বলেছেন।

আসন্ন জিম্বাবুয়ে সফরে থাকা জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজের পর সোমবার (২৫ জুলাই) সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন খালেদ মাহমুদ সুজন।

সাম্প্রতিক সময়ে ফেসবুকে মুশফিকুর রহিমের দুটি পোস্ট নিয়ে সমালোচনার চলছে। এই পরিস্থিতিতে ক্রিকেটারদের কাছ থেকে আরও পেশাদার আচরণ প্রত্যাশা করেন টিম ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন ।

জিম্বাবুয়ের বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ থেকে মুশফিকুরকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। এরপর তিনি হতাশা প্রকাশ করে সোশ্যাল মিডিয়ায় দুটি মিডিয়া পোস্ট করেছেন, যা বিতর্কের জন্ম দিয়েছে।

এ প্রসঙ্গে সুজন বলেন, “আমার মনে হয়, এটা অনেকের ব্যক্তিগত ব্যাপার। আমি এসব নিয়ে মন্তব্য করতে পারি না। কিন্তু আমি আজকে (সোমবার) ছেলেদের একটা পরিষ্কার বার্তা দিয়েছি যে, পেশাদারিত্ব তৈরি করতে হবে। আমাদের পেশাদার হতে হবে। আমাদের ক্রিকেট সংস্কৃতি তৈরি করতে হবে। হ্যাঁ, আমাদের অনেকের মন খারাপ হতে পারে। বাদ পড়লে মন খারাপ হবে স্বাভাবিক। দলে ঢুকলে খুশি লাগে। ভালো খেললে ভালো লাগে, খারাপ খেললে খারাপ লাগে।”

সম্প্রতি মুশফিক নিজের ফেসবুক পেজে রহস্যময় দুটি পোস্ট দেন। প্রথম পোস্টে রানিংয়ের একটি ভিডিও আপলোড করে ক্যাপশন দেন, “আমি যখন উঠে অনুশীলন করি, তখন আপনাদের অনেকেই ঘুমিয়ে থাকেন।” দ্বিতীয়টি ড্রেসিং রুমে গা এলিয়ে দুই চোখ বন্ধ করা ছবি। যে ছবিটি বেশ কিছু ইমোজি ব্যবহার করে ফেসবুক পেজে আপলোড করেন। মনে হওয়াটা অস্বাভাবিক নয় জিম্বাবুয়ে বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজে বিশ্রামের সিদ্ধান্তকে রীতিমতো কটাক্ষ করছেন মুশফিক!

সুজন বলেন, “ক্রিকেট একটা মনস্তাত্ত্বিক খেলা, এখানে সবচেয়ে বেশি মানসিক চাপ আসে। আমরা কেন ভালো খেলি না? মানসিক দুর্বলতার কারণেই তো এমন হয়। আমার কথা হচ্ছে, যতদিন পর্যন্ত এসব সংস্কৃতি আমরা তৈরি করতে পারবো না, ততদিন পর্যন্ত ভালো একটা দল হয়ে উঠতে পারবো না।”

তিনি আরও বলেন, “আমি যেমন পেশাদার। আমার চাকরির খবর তো বাসায় যায় না, বা বাসার খবর তো চাকরির জায়গায় এসে জানাই না যে, আজকে আমি আমার বউয়ের সাথে ঝগড়া করে এসেছি। এখানে বিষয়টা একইরকম। আমরা কীভাবে পেশাদার হতে পারি এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ।”

 ড্রেসিং রুমের খবর বাইরে যাওয়া উচিত নয় বলে মনে করেন টিম ডিরেক্টর সুজন।

About

Popular Links