Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিশ্বকাপের আগেই ফুটবলে আসছে সেমি অটোমেটেড অফসাইড প্রযুক্তি

অপটিক্যাল ট্র্যাকিং পদ্ধতি ব্যবহারের মাধ্যমে সেমি অটোমেটেড প্রযুক্তিতে অফসাইডের বাঁশি বাজাবেন রেফারিরা

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২২, ০৮:০২ পিএম

আসন্ন কাতার বিশ্বকাপে মাঠে অফসাইড ধরতে সেমি অটোমেটেড অফসাইড প্রযুক্তি ব্যবহারের কথা নিশ্চিত হয়েছিল গত জুনেই। কিন্তু যুগান্তকারী এ প্রযুক্তির প্রয়োগ দেখতে ফুটবলপ্রেমীদের ততদিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে না। 

আগামী বুধবার (১০ আগস্ট) ফিনল্যান্ডের হেলসিংকিতে রিয়াল মাদ্রিদ ও এইন্ট্রাখট ফ্রাঙ্কফুর্টের মধ্যকার অনুষ্ঠিতব্য উয়েফা সুপার কাপের ম্যাচে সেমি অটোমেটেড অফসাইড প্রযুক্তি ব্যবহার করা হবে।

শুধু তাই না, ২০২২-২৩ মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ প্রতিযোগিতায়ও অফসাইডের সিদ্ধান্ত নিতে এ প্রযুক্তিটির প্রয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছে ইউরোপীয় ফুটবলের অভিভাবক সংস্থা উয়েফা।

এর আগে, গত ফেব্রুয়ারিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে আয়োজিত ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ এবং ২০২১ সালের ডিসেম্বরে কাতারে অনুষ্ঠেয় আরব কাপে পরীক্ষামূলকভাবে সেমি অটোমেটেড অফসাইড প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছিল। 

অপটিক্যাল ট্র্যাকিং পদ্ধতি ব্যবহারের মাধ্যমে সেমি অটোমেটেড প্রযুক্তিতে অফসাইডের বাঁশি বাজাবেন রেফারিরা। ইনফ্রারেড মার্কারের মাধ্যমে মাঠের বিশেষ ক্যামেরাগুলো দিয়ে এ প্রযুক্তিতে ফুটবলার এবং বলের সঠিক অবস্থান জানা যাবে।

মাঠে অবস্থানকারী প্রতিটি ফুটবলারের শরীরে ২৯টি জায়গা চিহ্নিত করে খেলোয়াড়েদের ত্রিমাত্রিক অবয়ব তৈরি করে রেফারিদের কাছে সেকেন্ডের মধ্যে সুনির্দিষ্ট তথ্য সরবরাহ করবে সেমি অটোমেটেড অফসাইড প্রযুক্তি।

উয়েফার পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০২০ সাল থেকে পরীক্ষামূলকভাবে ১৮৮ বার সেমি অটোমেটেড অফসাইড প্রযুক্তির ব্যবহার করে ইতিবাচক ফলাফল এসেছে। 

উয়েফার প্রধান রেফারিং কর্মকর্তা রবার্তো রোসেত্তি বলেন, ফুটবলের মানোন্নয়নে এবং রেফারিংকে নিখুঁত করতে উয়েফা নিত্যনতুন প্রযুক্তির খোঁজ করছে। এ অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ভিডিও অ্যাসিস্ট্যান্ট রেফারির (ভিএআর) দলকে খেলার গতি ব্যাহত না করে অফসাইড নিয়ে দ্রুত ও নিখুঁত সিদ্ধান্ত দিতে সহায়তা করবে।

তিনি আরও বলেন, এই প্রযুক্তি এখন আনুষ্ঠানিকভাবে ব্যবহার করা সম্ভব। চ্যাম্পিয়নস লিগের প্রতিটি ভেন্যুতে তা বসানো হবে।

About

Popular Links