Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

যেসব স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে কাতার বিশ্বকাপের ম্যাচগুলো

কাতারের পাঁচটি শহরের ৮টি দৃষ্টিনন্দন স্টেডিয়ামে গড়াবে আসন্ন বিশ্বকাপের ৬৪টি ম্যাচ

আপডেট : ০২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৮:৫৭ পিএম

২০২২ বিশ্বকাপ শুরু হতে তিন মাসেরও কম সময় বাকি। বিশ্বকাপ ফুটবলের ২২তম আসর বসতে যাচ্ছে কাতারে। এর মাধ্যমে দুই দশক পর আবারও এশিয়া মহাদেশে অনুষ্ঠিত হবে ফিফা বিশ্বকাপ। আগামী ২০ নভেম্বর থেকে ১৮ ডিসেম্বর পর্যন্ত পুরো পৃথিবী বিশ্বকাপ ফুটবলে বুঁদ হয়ে থাকবে।

“গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ”-খ্যাত প্রতিযোগিতাটি ২০২২ সালে আয়োজিত হলেও স্বাগতিক কাতারে এর প্রস্তুতি চলছে আরও অনেক আগে থেকেই। প্রথমবারের মতো আয়োজক হওয়ার সুযোগ পেয়ে আয়োজনের দিক থেকে কোনো কমতি রাখেনি মধ্যপ্রাচ্যের দেশটি।

ইতোমধ্যে বিশ্বকাপ ফুটবল আয়োজনের জন্য কাতারের যাবতীয় প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। এখন শুধু প্রতীক্ষা ফিফা বিশ্বকাপের পর্দা ওঠার। বিশ্ব ফুটবলের তারকা আর মহারথীদের আগমনের অপেক্ষায় রয়েছে আরব দেশটি। আর তাদের পদচারণার অপেক্ষায় রয়েছে কাতারের নান্দনিক স্টেডিয়ামগুলো।

কাতারের পাঁচটি শহরের ৮টি দৃষ্টিনন্দন স্টেডিয়ামে গড়াবে আসন্ন বিশ্বকাপের ৬৪টি ম্যাচ। কেবলমাত্র বাহ্যিক সৌন্দর্য নয়, স্টেডিয়ামগুলো সর্বাধুনিক সেরা নিখুঁত প্রযুক্তিই ব্যবহার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে কাতারের তাপমাত্রার কথা বিবেচনায় রেখে স্টেডিয়ামগুলোকেও করা হয়েছে শীতাতপনিয়ন্ত্রিত আর পরিবেশবান্ধব।

চলুন তাহলে দেখে নিই কাতারের এমন ৪টি স্টেডিয়াম, যেখানে ২০২২ বিশ্বকাপে পদধূলি দেবেন বিশ্ব ফুটবলের তারকারা-

লুসাইল স্টেডিয়াম

কাতার বিশ্বকাপের ভেন্যুগুলোর মধ্যে দর্শক ধারণক্ষমতার দিক থেকে সবচেয়ে বড় হলো লুসাইল স্টেডিয়াম। স্টেডিয়ামটিতে ৮০ হাজার দর্শক বিশ্বকাপের ম্যাচ দেখতে পারবেন। কাতারের রাজধানী দোহা থেকে ২০ কিলোমিটার উত্তরে লুসাইল শহরে স্টেডিয়ামটি অবস্থিত।

কাতারের লুসাইল স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত হবে ২০২২ বিশ্বকাপের ফাইনাল/টুইটার

৭৬৭ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে নির্মিত স্টেডিয়ামটির নির্মাণকাজ শুরু হয় ২০১৭ সালে, যা ২০২১ সালে শেষ হয়। সম্পূর্ণ নিজস্ব সৌরশক্তি দিয়ে পরিচালিত এবং কাচের বিশেষ আবরণবিশিষ্ট কাতারের এই স্টেডিয়ামটিতেই অনুষ্ঠিত হবে সর্বোচ্চ ১০টি ম্যাচ, যার মধ্যে রয়েছে ২০২২ বিশ্বকাপের ফাইনালও।

আল বায়েত স্টেডিয়াম

আগামী ২০ নভেম্বর কাতারের রাজধানী দোহা থেকে ৫০ কিলোমিটার উত্তরের আল খোরে অবস্থিত আল বায়াত স্টেডিয়ামে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের মাধ্যমেই পর্দা উঠবে ২০২২ বিশ্বকাপের। শুধু তাই না, ওইদিন এই স্টেডিয়ামে এ গ্রুপের ম্যাচে ইকুয়েডরের বিপক্ষেও মাঠে নামবে স্বাগতিক কাতার।

আল বায়েত স্টেডিয়ামে ২০২২ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো মাঠে নামবে স্বাগতিক কাতার/টুইটার

৮৪৭ মিলিয়ন ডলার ব্যয়ে নির্মিত তাঁবু আকৃতির এই স্টেডিয়ামটির নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৪ সালে, যা ২০২১ সালের শেষদিকে সম্পন্ন হয়। ৬০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার এই স্টেডিয়ামে একটি সেমিফাইনাল আর কোয়ার্টার ফাইনালসহ এবারের বিশ্বকাপের ৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

এডুকেশন সিটি স্টেডিয়াম

বাহরাইন থেকে ৫১ কিলোমিটার দূরে কাতারের আল-রাইয়ান এলাকায় অবস্থিত এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামকে কাতার ফাউন্ডেশন স্টেডিয়াম নামেও অনেকে চিনে থাকেন। স্টেডিয়ামটির বাইরের দিকটি হীরার মতো দেখতে বলে এটি মরুভূমির হীরা (ডেজার্টস ডায়মন্ড) বলেও পরিচিত।

কাতারের এডুকেশন সিটি স্টেডিয়ামটি মরুভূমির হীরা নামেও পরিচিত/টুইটার

চারপাশে অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থাকায় এটির নাম এডুকেশন সিটি স্টেডিয়াম হওয়ার মূল কারণ। ২০১৫ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত চলা স্টেডিয়ামটির নির্মাণকাজে ৭০০ মিলিয়ন ডলারেরও বেশি খরচ হয়েছে। ৪০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার এই স্টেডিয়ামে এবারের বিশ্বকাপের একটি কোয়ার্টার ফাইনালসহ ৮টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে।

স্টেডিয়াম ৯৭৪

কাতারের রাজধানী দোহায় অবস্থিত স্টেডিয়াম ৯৭৪ এর পূর্ব নাম রাস আবু আবুদ স্টেডিয়াম। এই মাঠটির নাম স্টেডিয়াম ৯৭৪ হওয়ার কারণে এটি নির্মাণে ৯৭৪টি ব্যবহারযোগ্য শিপিং কন্টেইনার ব্যবহৃত হয়েছে। তাছাড়া, কাতারের আন্তর্জাতিক ডায়ালিং কোডও কিন্তু ৯৭৪।

কাতারের দোহায় অবস্থিত স্টেডিয়াম ৯৭৪/টুইটার

এই স্টেডিয়ামটির নির্মাণ কাজ ২০১৭ সালে শুরু হয়, যা ২০২১ সালে এসে সম্পন্ন হয়। ৪০ হাজার দর্শক ধারণক্ষমতার এই স্টেডিয়ামে এবারের বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বের ৬টি এবং শেষ ষোলোর একটি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে। পানি উন্নয়নের পরিকল্পনার অংশ হিসেবে ২০২২ বিশ্বকাপের এই স্টেডিয়ামকে সরিয়ে ফেলা হবে।

About

Popular Links