Tuesday, May 21, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আবারও সাকিবকে ঘিরে বিতর্ক

যদিও আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে চলাকালে সাকিব কিংবা তাসকিনের মধ্যে কে এ বিষয়ের প্রচলন শুরু করেছিলেন, তা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে

আপডেট : ২৮ অক্টোবর ২০২২, ০৯:৫৬ পিএম

বিতর্ক আর সাকিব আল হাসান যেন পরস্পরের বিশ্বস্ত সঙ্গী। দীর্ঘ ১৬ বছরের ক্যারিয়ারের বেশিরভাগ সময়েই সাকিবকে অনুসরণ করে পিছু নিয়েছে বিতর্ক। অস্ট্রেলিয়ায় চলমান আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও তার ব্যতিক্রম হয়নি।

সাম্প্রতিক সময়ে সাকিব নতুন করে বিতর্কে জড়িয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে। আর্থিক সুবিধার বিনিময়ে ডানহাতি পেস বোলার তাসকিন আহমেদকে সঙ্গে নিয়ে সেখানে এক নৈশভোজে অংশ নিয়ে বিতর্কের জন্ম দিয়েছেন এই অলরাউন্ডার।

তবে টুর্নামেন্ট চলাকালীন সময়ে ব্যস্ততম সূচির মধ্যে শুরু থেকেই বিতর্কের কেন্দ্রে ছিলেন সাকিব আল হাসান। আর অস্ট্রেলিয়ায় বসবাসরত বাংলাদেশীদের দ্বারা আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার জন্য টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই শিরোনাম হয়েছেন ৩৪ বছর বয়সী এই বাঁহাতি অলরাউন্ডার।

যদিও আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে চলাকালে সাকিব কিংবা তাসকিনের মধ্যে কে এ ধরনের ইভেন্টে অংশ নেওয়ার প্রচলন শুরু করেছিলেন, তা নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। তবে অধিকাংশই টিম ম্যানেজমেন্ট এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিবি) দায়ী করছেন।

টুর্নামেন্ট শুরুর আগে আনুষ্ঠানিক প্রস্তুতি ম্যাচের জন্য ব্রিসবেনে অবস্থান করছিল বাংলাদেশ। কুইন্সল্যান্ডের রাজধানীতে থাকাকালীন সময়ে বাংলাদেশি সম্প্রদায়ের আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে পুরো বাংলাদেশকে যোগ দিতে বাধ্য করা হয়েছিল বলে শোনা যায়।

বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, বোর্ডের প্রভাবশালী সদস্যরা বাংলাদেশ দলকে ওই নৈশভোজে যোগ দেওয়ার জন্য চাপ দিয়েছিলেন। বলে রাখা ভালো, ওই আয়োজনে উপস্থিত ব্যক্তিদের কাছে টিকিট বিক্রি করা হয়েছিল।

ক্রিকেটাররা ওই নৈশভোজে অংশ নিলেও নাখোশ ছিলেন। এমনকি সেখানে উপস্থিত ব্যক্তিবর্গ সাকিবসহ কয়েকজন খেলোয়াড়ের সঙ্গে ছবি তুলতে এবং ক্রিকেটারদের অটোগ্রাফ স্বাক্ষর দিতে অনুরোধ করলেও দলের টাইগাররা সাড়া দেননি বলে জানা যায়।

ব্রিসবেনের ওই নৈশভোজটি ক্রিকেটারদের জন্য সুযোগ নিয়ে আসে। এর ফলে আর্থিক লাভের বিনিময়ে সিডনির ওই আয়োজনে উপস্থিত হওয়ার প্রস্তাব পেয়ে রাজি হয়ে যান সাকিব ও তাসকিন। এমনকি তারা দল বা বোর্ড থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমতিও নেননি।

বোর্ডের ভেতরের কয়েকজন সদস্য অবশ্য সাকিব এবং তাসকিনকে থামানোর চেষ্টা করেছিলেন। কিন্তু ব্রিসবেনের ইভেন্টের ঘটনার কথা মাথায় রাখে দুই ক্রিকেটারের ওপর তারা জোরাজুরি করতে পারেননি।

সিডনিতে অনুষ্ঠিত যে আয়োজনে সাকিব এবং তাসকিন যোগ দিয়েছিলেন, সেই অনুষ্ঠানের নাম অ্যান এক্সক্লুসিভ ডিনার উইথ বাংলাদেশ ন্যাশনাল ক্রিকেট প্লেয়ার্স। ৯০ অস্ট্রেলিয়ান ডলারের বিনিময়ে যে কারোর জন্য সেই অনুষ্ঠানে অংশ নেওয়ার সুযোগ ছিল।

এছাড়া, ১০ জন সদস্যদের জন্য ২০০০ অস্ট্রেলিয়ান ডলারের বিনিময়ে একই টেবিলে সাকিব-তাসকিনের সঙ্গে একত্রে একান্তে সাক্ষাতের সুযোগও ছিল। সেই সঙ্গে ছিল ফটোসেশন এবং প্রোমো হাইলাইটের সুযোগও।

চলমান আইসিসি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে নেদারল্যান্ডসের বিরুদ্ধে ৯ রানের জয় দিয়ে শুভ সূচনা করলেও দ্বিতীয় ম্যাচে দক্ষিণ আফ্রিকার কাছে ১০৪ রানের বিশাল ব্যবধানে পরাজিত হয় বাংলাদেশ। রবিবার (৩০ অক্টোবর) ব্রিসবেনে নিজেদের পরের ম্যাচে জিম্বাবুয়ের মুখোমুখি হবে টাইগাররা।

About

Popular Links