Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিশ্বকাপ ফাইনালের হার কেড়ে নিয়েছিল মেসির রাতের ঘুম

টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার গোল্ডেন বল মেসির হাতে উঠলেও বিশ্বকাপ হাতাছাড়া হওয়ার দুঃখ ঘোচাতে তা যথেষ্ট ছিল না

আপডেট : ০৩ নভেম্বর ২০২২, ০৪:১৩ পিএম

লিওনেল মেসির নেতৃত্বে ২০১৪ সালে ব্রাজিলে অনুষ্ঠিত ফিফা বিশ্বকাপে ২৪ বছর পর ফাইনালে উঠেছিল আর্জেন্টিনা। বিশ্বকাপ ফুটবলের সোনালি ট্রফিটাও ছিল হাতছোঁয়া দূরত্বে। কিন্তু মারাকানায় অতিরিক্ত সময়ে মারিও গোটজের গোলে জার্মানির কাছে ০-১ গোলে হেরে তৃতীয়বারের মতো বিশ্ব ফুটবলের শ্রেষ্ঠত্ব না পাওয়ার বেদনায় পুড়েছিল আলবিসেলেস্তেরা।

ততদিনে পরপর চারবার ব্যালন ডি অর জিতে সর্বকালের সেরার দৌড়ে অনেকটাই এগিয়ে গিয়েছিলেন। অপূর্ণতা বলতে ছিল শুধু জাতীয় দল আর্জেন্টিনার হয়ে বিশ্বকাপ জেতার। দেশের হয়ে কিছু জয়ের জন্য নিজের সব ব্যালন ডি অরগুলোও ছেড়ে দিতে প্রস্তুত ছিলেন মেসি। কিন্তু হাতের মুঠোয় থাকা স্বপ্ন এভাবে চোখের সামনে চুরমার হয়ে যাওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই তার হৃদয় ভেঙে দেয়।

বিশ্বকাপ ফাইনালে হেরে গেলেও টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার গোল্ডেন বল উঠেছিল মেসির হাতেই। তবে বিশ্বকাপ ফাইনালে হারের বেদনা তাতে মোটেও কমেনি। আট বছর আগে মারাকানার সেই হারের ক্ষত মেসি বয়ে বেড়িয়েছিলেন দীর্ঘদিন। এমনকি এক বছর ধরে রাতে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ডের ঘুম কেড়ে নিয়েছিল সেটি।

মেসির সাবেক এজেন্ট ফাবিয়ান সোলদিনি এ কথা জানিয়েছেন বলে এক প্রতিবেদনে জানায় স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মার্কা।


আরও পড়ুন- কাতার বিশ্বকাপ: ‘গ্রুপ সি' থেকে নকআউট পর্বে আর্জেন্টিনার সঙ্গী কে?


লিওনেল মেসির ক্যারিয়ারের প্রথম দিকে তার এজেন্টের দায়িত্বে ছিলেন ফাবিয়ান সোলদিনি। ২০০৫ সালে মেসি এবং সোলদিনির মধ্যকার পেশাদার সম্পর্ক শেষ হয়ে যায়। তবে ব্যক্তিগতভাবে এখনও মেসির সঙ্গে সোলদিনির সম্পর্ক অটুট। ফলে ২০১৪ বিশ্বকাপ ফাইনালের হার মেসির ওপর কেমন প্রভাব ফেলেছিল, সেটিও ভালোই জানেন তার সাবেক এজেন্ট। 

ইনফোবাইকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মেসির বিশ্বকাপ ফাইনালে হারার অনুভূতি জানিয়ে ফাবিয়ান সোলদিনি বলেন, “১০ বছর সাক্ষাৎ না হওয়ার পর আমি যখন মেসির বাসায় গিয়েছিলাম, তখন সে আমাকে বলেছিল, ‘ফাবি, এক বছর ধরে ব্রাজিলের সেই ফাইনালটির কথা ভেবে আমি রাতে ঘুম থেকে জেগে উঠতাম। আমার ঘুম হতো না।' বিষয়টাই তার মাথার মধ্যে মধ্যে ঘুরঘুর করতো।”

মারাকানার সেই হার কেন মেসিকে এত ব্যথিত করেছিল জানতে চাইলে সোলদিনি বলেন, “দেশের প্রতি এটি মেসির ভালোবাসার বহিঃপ্রকাশ। এটা বার্সেলোনা কিংবা নিউওয়েলস না, এটা আর্জেন্টিনার জন্য তার ভালোবাসা। জাতীয় দল তার ভালোবাসার জায়গা।”

কাতারে পেশাদার ক্যারিয়ারের পঞ্চম এবং সর্বশেষ বিশ্বকাপ খেলতে মাঠে নামবেন লিওনেল মেসি। আট বছর আগের সেই বেদনার ক্ষতে প্রলেপ দিতে এটাই ৩৫ বছর বয়সী ফরোয়ার্ডের জন্য শেষ সুযোগ।

কাতার বিশ্বকাপে “সি” গ্রুপে আর্জেন্টিনার গ্রুপসঙ্গী পোল্যান্ড, মেক্সিকো এবং সৌদি আরব। আগামী ২২ নভেম্বর সৌদি আরবের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে কাতার বিশ্বকাপ অভিযান শুরু করবে দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। পরবর্তীতে ২৬ নভেম্বর মেক্সিকো এবং ৩০ নভেম্বর পোল্যান্ডের বিপক্ষে মোকাবিলা করবে আলবিসেলেস্তেরা।

About

Popular Links