Thursday, May 23, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

ফিফার শাস্তির মুখে পড়তে পারে সার্বিয়া

ফিফার শৃঙ্খলাজনিত আইনের ১১ নম্বর অনুচ্ছেদে ফুটবল মাঠে উগ্র জাতীয়তাবাদী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে কঠোর থাকার কথা বলা হয়েছে

আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৩:০২ এএম

কাতারে অনুষ্ঠিত ফুটবল বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ব্রাজিলের কাছে ২-০ গোলে হেরে এমনিতেই চাপে রয়েছে সার্বিয়া। এর মধ্যেই তাদের বিরুদ্ধে ওঠা গুরুতর এক অভিযোগের বিষয়ে আনুষ্ঠানিক পর্যালোচনা শুরু করেছে ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা।

ঘটনার সূত্রপাত, ব্রাজিলের বিপক্ষে ম্যাচের দিন। সার্বিয়ান খেলোয়াড়রা নিজেদের ড্রেসিং রুমে তাদের পার্শ্ববর্তী দেশ কসোভোর মানচিত্রের পুরোটা সার্বিয়ার পতাকা দিয়ে ঢেকে দেন। সেখানে লেখা ছিল “নো সারেন্ডার”। 

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) কসোভো ফুটবল ফেডারেশন আনুষ্ঠানিকভাবে ফিফার কাছে অভিযোগ দায়ের করেছে। যেখানে তারা সার্বিয়ান ফুটবলারদের এমন কাজকে “উগ্র জাতীয়তাবাদী কর্মকাণ্ড” হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। কসোভোও যেহেতু ফিফার সদস্যভুক্ত দেশ। আর ফিফার শৃঙ্খলাজনিত আইনের ১১ নম্বর অনুচ্ছেদে ফুটবল মাঠে উগ্র জাতীয়তাবাদী কর্মকাণ্ডের বিরুদ্ধে কঠোর থাকার কথা বলা হয়েছে। তাই অভিযোগ প্রমাণিত হলে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে সার্বিয়াকে।

কসোভোর অভিযোগে বলা হয়, “ফুটবলে এমন উগ্র জাতীয়তাবাদী কর্মকাণ্ড কখনোই আমরা কাম্য করি না। বিশ্বকাপের মত বড় মঞ্চে একদমই এটা আশা করিনি। আমরা তাদের শাস্তি কামনা করছি। যাতে করে এমন কাজ তারা আর না করতে পারে।”

উল্লেখ্য, ইউরোপ অঞ্চলের ক্ষুদ্রতম একটি দেশ কসোভো। দেশটি ২০০৮ সালে সার্বিয়ার কাছ থেকে স্বাধীনতা অর্জন করে। তবে সার্বিয়ানদের এমন কর্মকাণ্ড দুই দেশের ভেতর বিগত ২৩ বছর আগের বিরাজমান অস্থিরতাকে আরও উসকে দিতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

স্বাধীনতা লাভের পর ২০১৬ সালে ফিফা ও উয়েফার পূর্ণ সদস্যপদ পায় কসোভো।

About

Popular Links