Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

৬৪ বছর পর বিশ্বকাপে ফিরে তিন ম্যাচ খেলেই ওয়েলসের বিদায়

ব্রিটিশ ডার্বিতে ইংল্যান্ডের কাছে ০-৩ গোলে হেরে কোনো জয় ছাড়াই বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নিলো ওয়েলশ ড্রাগনরা

আপডেট : ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৮:১২ এএম

কাতার বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে ১৯৫৮ সালের পর ফুটবলের বিশ্বমঞ্চে পা রেখেছিল ওয়েলস। তবে তাদের বিশ্বকাপ অভিযান স্থায়ী হলো মাত্র তিন ম্যাচ। ব্রিটিশ ডার্বিতে ইংল্যান্ডের কাছে ০-৩ গোলে হেরে ওয়েলশ ড্রাগনদের বিদায়টা হলো হতাশাজনক।

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) আহমেদ বিন আলী স্টেডিয়ামে প্রথম দশ মিনিটে কোনো আক্রমণই করতে পারেনি ইংল্যান্ড। তবে সময় এগোনোর সঙ্গে সঙ্গে তাদের আক্রমণের ধার বাড়ে। কিন্তু ইংলিশদের কোনো আক্রমণই পরিপূর্ণতা পাচ্ছিলো না। ৩৮ মিনিটে ফিল ফোডেন দারুণভাবে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েও শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি। একটু পর মার্কাস র‍াশফোর্ডের অ্যাক্রোবেটিক কিক পোস্টের বাইরে দিয়ে চলে গেলে গোলশূন্যভাবে প্রথমার্ধ শেষ হয়।

প্রথমার্ধে ম্যাচে নিয়ন্ত্রণ রেখেও গোলের দেখা না পাওয়া ইংল্যান্ড আক্রমণে মরিয়া হয়ে ওঠে। ৫০ মিনিটে বিপজ্জনক জায়গায় ফ্রি–কিক পায় ইংলিশরা। মার্কাস রাশফোর্ড অসাধারণ এক ফ্রি-কিক থেকে গোল করে ইংল্যান্ডকে এগিয়ে দেন। ২০০৬ বিশ্বকাপে ডেভিড বেকহামের পর এই প্রথম কোনো ইংলিশ ফুটবলার বিশ্বকাপে সরাসরি ফ্রি-কিকে গোল করলেন।

রাশফোর্ডের গোলের রেশ তখনও কাটেনি। মিনিটখানেক পরই আবারও ওয়েলসের জালে বল। ৫১ মিনিটে ওয়েলস ডিফেন্সের ভুলে বল পান হ্যারি কেইন। তার পাস থেকে নিঁখুত ফিনিশিংয়ে ইংলিশদের লিড দ্বিগুণ করেন ফোডেন।

দুই গোল হজম করে ওয়েলস ম্যাচে ফেরার চেষ্টা করলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। উল্টো ৬৮ মিনিটে তাদের কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেয় ইংল্যান্ড। ডান দিক দিয়ে বল পায়ে নিয়ে বক্সে ঢুকে পড়ে এক ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে দ্বিতীয় গোলের দেখা পান রাশফোর্ড। ম্যাচের বাকি অংশে গোল না হওয়ায় ৩-০ গোলের জয়ে বি গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন শেষ ষোলোর টিকিট পায় থ্রি লায়ন্সরা।

এই জয়ের মাধ্যমে ২০১০ সালের পর আবারও নকআউট পর্বে পা রাখলো ইংল্যান্ড। শেষ ষোলোতে তাদের প্রতিপক্ষ সেসেগাল।

About

Popular Links