Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

এঞ্জো ফার্নান্দেজকে কিনতে আগ্রহী চেলসিকে ভর্ৎসনা বেনফিকা কোচের

এঞ্জো ফার্নান্দেজের দলবদল নিয়ে চেলসির কাজকর্ম পছন্দ না হওয়ায় লন্ডনের ক্লাবটির আচরণকে অসম্মানজনক বলে উল্লেখ করেন বেনফিকা কোচ

আপডেট : ০৬ জানুয়ারি ২০২৩, ০৬:১২ পিএম

ছয় মাস আগেও গ্রীষ্মকালীন দলবদলে এঞ্জো ফার্নান্দেজের বাইআউট ক্লজ ছিল মাত্র ১৮ মিলিয়ন ইউরো। তবে দুর্মূল্যের বাজারেও এই দামে আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডারকে নিয়ে ইউরোপের কোনো ক্লাব তেমন আগ্রহ দেখায়নি। শেষ পর্যন্ত বাইআউট ক্লজ পরিশোধ করে রিভারপ্লেট থেকে ফার্নান্দেজকে দলে ভেড়ায় পর্তুগিজ ক্লাব বেনফিকা।

তবে সদ্য সমাপ্ত কাতার বিশ্বকাপের পর বর্তমান দৃশ্যপট পুরোটাই পাল্টে গিয়েছে। ৩৬ বছর পর আর্জেন্টিনা ঘরে তুলেছে ফিফা বিশ্বকাপের সোনালি ট্রফি। আলবিসেলেস্তেদের তিন যুগের প্রতীক্ষার অবসানের পেছনে বড় ভূমিকা রেখে টুর্নামেন্টের সেরা উদীয়মান খেলোয়াড়ের পুরস্কার বগলদাবা করেছেন এঞ্জো ফার্নান্দেজ।

গ্রীষ্মকালীন দলবদলে কেউ এঞ্জো ফার্নান্দেজের দিকে চোখ না রাখলেও বর্তমান পরিস্থিতি সম্পূর্ণ বিপরীত। জানুয়ারির আসন্ন শীতকালীন দলবদলে তরুণ আর্জেন্টাইনকে পেতে হুমড়ি খেয়ে পড়েছে ইউরোপের অন্যান্য বড় ক্লাবগুলো। কিছুদিন আগেও এঞ্জোকে দলে টানার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে ছিল প্রিমিয়ার লিগের দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এবং লিভারপুল।

এবার সেই তালিকায় যোগ দিয়েছে প্রিমিয়ার লিগের আরেক ক্লাব চেলসিও। কাতার বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড়কে দলে ভেড়াতে আগ্রহী হয়ে উঠেছে ইংলিশ ক্লাবটি। এমনকি এঞ্জো ফার্নান্দেজও আগ্রহী ছিলেন ব্লুজদের হয়ে খেলতে। কিন্তু আচমকাই এই দলবদল থেকে পিছু হটেছে চেলসি। এ কারণে লন্ডনের ক্লাবটির বিরুদ্ধে অসম্মানের অভিযোগ এনে সমালোচনা করেছেন বেনফিকা কোচ রজার স্মিডথ।

শীতকালীন দলবদলে এঞ্জো ফার্নান্দেজকে দলে টানতে প্রথমে বেশি আগ্রহী ছিল লিভারপুল এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। কাতার বিশ্বকাপের পরপরই এঞ্জো ফার্নান্দেজকে টানার উদ্দেশে বেনফিকার কাছে প্রস্তাব দিয়েছিল লিভারপুল। কিন্তু অলরেডদের ১০০ মিলিয়ন ইউরোর প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয় পর্তুগিজ ক্লাবটি। বেনফিকার সাফ কথা, ১২০ কোটি ইউরোর কমে কোনোভাবেই এঞ্জো ফার্নান্দেজকে ছাড়া হবে না।

লিভারপুল মেনে না নিলেও ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ঠিকই বেনফিকার দাবি মেনে নেয়। এঞ্জো ফার্নান্দেজের জন্য ১২০ মিলিয়ন ইউরো খরচ করতে প্রস্তুত ছিল রেড ডেভিলরা। তবে এরপর অনেকটা হুট করে দৃশ্যপটে আগমন হয়ে চেলসির। প্রয়োজনে তরুণ আর্জেন্টাইন মিডফিল্ডারের বাইআউট ক্লজ পরিশোধেও রাজি ছিল ব্লুজরা। কিন্তু পরবর্তীতে সেই বাইআউট ক্লজের টাকা পুরো নগদে না দিয়ে দরাদরি এবং খেলোয়াড় অদল-বদলের প্রস্তাব দিয়ে বসে লন্ডনের ক্লাবটি।

এঞ্জো ফার্নান্দেজের দলবদল নিয়ে চেলসির এমন কাজকর্ম পছন্দ হয়নি বেনফিকা কোচ রজার স্মিডথের। প্রিমিয়ার লিগ ক্লাবটির আচরণকে অসম্মানজনক বলে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এনজোকে দলে টানার জন্য আগ্রহী ক্লাবটি তার সঙ্গে যা করছে, সেটা আমাদের সবার জন্যই অসম্মানজনক। তারা যা করছে, সেটা কোনোভাবেই মেনে নেওয়ার মতো না।

চেলসির সমালোচনা করে রজার স্মিডথ বলেন, এমন একটি ক্লাব আছে যারা এঞ্জোকে দলে চায়। তারা জানে যে আমরা তাকে বিক্রি করতে চাই না। তবুও তারা সেই খেলোয়াড়কে দলে নেওয়ার চেষ্টা করেছিল। প্রথমে রিলিজ ক্লজের পুরো অর্থ পরিশোধের ভাব ধরে খেলোয়াড়ের মাথা খারাপ করে দিয়ে তারা পরবর্তীতে দামাদামি করতে চাইছে। খেলোয়াড়ের দলবদল নিয়ে এ ধরনের আলোচনা কীভাবে দুটি ক্লাবের মধ্যে সুসম্পর্ক বজায় রাখবে, সেটি আমার বুঝে আসে না।

তিনি আরও বলেন, বেনফিকায় আমরা কেউই এঞ্জো ফার্নান্দেজকে বিক্রি করতে চাচ্ছি না। সবাই জানে তার চুক্তিতে একটি ক্লজ আছে। খেলোয়াড় দল ছাড়তে চাইলে এবং কেউ যদি তার বাইআউট ক্লজ পরিশোধ করে, তাহলে আমদের কিছু করার নেই। সেই খেলোয়াড়কে আমরা ধরে রাখতে পারব না।

এঞ্জো ফার্নান্দেজ প্রসঙ্গে বেনফিকা কোচ বলেন, এঞ্জো দারুণ একজন খেলোয়াড়। আমরা সবাই তাকে পছন্দ করি এবং চাই যে সে বেনফিকায় থাকুক। অবশ্যই তার জন্য বর্তমান পরিস্থিতি খুবই কঠিন। সে বিশ্বকাপ জিতে ফিরে এসেছে, তার সামনে এখন প্রচুর প্রস্তাব এসেছে যা অনেক টাকার ব্যাপার। এই পরিস্থিতিতে দ্বিধাদ্বন্দ্বে ভুগে অনেক খেলোয়াড়ই ভুল সিদ্ধান্ত নেয়। আমার মনে হয়, সবাই ব্যাপারটা বুঝে।

About

Popular Links