Sunday, May 26, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা মুখোমুখি এ বছরই

পরস্পরের মুখোমুখি হওয়ার আগে সেপ্টেম্বরেই অবশ্য ২০২৬ বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়ার লড়াই শুরু হয়ে যাবে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার

আপডেট : ১৬ মার্চ ২০২৩, ০৪:০২ পিএম

ফিফা বিশ্বকাপের পরবর্তী আসরের বাকি তিন বছর। তবে এখনই ক্ষণগণনা শুরু হয়ে গেছে দ্য গ্রেটেস্ট শো অন আর্থ-এর। ২০২৬ বিশ্বকাপের টিকিট পেতে আগামী সেপ্টেম্বর থেকে মাঠে নামবে ল্যাটিন আমেরিকার দলগুলো। 

বুধবার (১৫ মার্চ) দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশটির ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা (কনমেবল) এ কথা জানায়।

ল্যাটিন আমেরিকান অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচগুলোর তারিখ ও ভেন্যু এখনও ঠিক হয়নি। তবে কততম রাউন্ডে কোন দল কার মুখোমুখি হবে, তা ইতোমধ্যে প্রকাশ করা হয়েছে। তাতে দেখা যায়, এ বছরেই মুখোমুখি হবে দুই ল্যাটিন আমেরিকান পরাশক্তি ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা। আগামী নভেম্বরে ষষ্ঠ রাউন্ডে ঘরের মাঠে আলবিসেলেস্তেদের আতিথ্য দেবে ব্রাজিলিয়ানরা।

২০২১ সালের সেপ্টেম্বরে সাও পাওলোতে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা-ব্রাজিল। তবে ম্যাচ শুরুর কয়েক মিনিটের মধ্যেই মাঠে হানা দেয় ব্রাজিলের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। আর্জেন্টিনার চারজন খেলোয়াড় দেশটির করোনাভাইরাস সম্পর্কিত বিধি লঙ্ঘন করেছেন, এই অভিযোগে তখন তাদের আটক করতে উদ্যত হয় ব্রাজিলীয় আইন প্রয়োগকারীরা। অনাকাঙ্ক্ষিত ওই ঘটনার পর ম্যাচটি বাতিল হয়ে যায়।

সেই ম্যাচের জন্য দুই দলকে প্রায় ৪৪ লাখ টাকা জরিমানা করেছিল ফিফা। পরবর্তীতে ফিফা ম্যাচটি আবারও আয়োজনের নির্দেশ দেয়। কিন্তু ততদিনে ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা দুদলেরই বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ নিশ্চিত হওয়ায় তারা আর ম্যাচটি পুনরায় খেলতে সম্মত হয়নি। এরপর এটিই হবে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দলের প্রথম সাক্ষাৎ।

নভেম্বরে মুখোমুখি হওয়ার আগে সেপ্টেম্বরেই অবশ্য ২০২৬ বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়ার লড়াই শুরু হয়ে যাবে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনার। কনমেবল অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ইকুয়েডরের মুখোমুখি হবে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন আর্জেন্টিনা। অন্যদিকে, বলিভিয়ার বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে ২০২৬ বিশ্বকাপের টিকিট পাওয়ার অভিযাত্রা শুরু করবে টুর্নামেন্টের সফলতম দল ব্রাজিল। ২০২৫ সালে বাছাইপর্বের ১৪তম রাউন্ড ফিরতি ম্যাচে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনা পরস্পরের মোকাবিলা করবে।

২০২৬ বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে এ বছর ৬টি করে ম্যাচ খেলবে প্রতিটি দল। সেপ্টেম্বর, অক্টোবর ও নভেম্বর-এসব মাসে প্রতিটি দল দুটি করে ম্যাচ খেলবে। আগামী বছরও এসব মাসে দুটি করে ম্যাচ খেলবে সব দল। কিন্তু ২০২৫ সালে মার্চ ও জুনের পর সেপ্টেম্বরে দক্ষিণ আমেরিকান অঞ্চলের বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব শেষ হবে।

আগামী সেপ্টেম্বরে বলিভিয়ার পাশাপাশি পেরুর মু্খোমুখি হবে ব্রাজিল। পরবর্তীতে অক্টোবরে ভেনেজুয়েলা এবং উরুগুয়ের বিপক্ষে মাঠে নামবে পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা। এছাড়া, নভেম্বরে আর্জেন্টিনার মোকাবিলা করার আগে সেলেসাওরা কলম্বিয়ার মু্খোমুখি হবে।

অন্যদিকে, আগামী সেপ্টেম্বরে ইকুয়েডরের পাশাপাশি বলিভিয়ার মোকাবিলা করবে আর্জেন্টিনা। পরবর্তীতে অক্টোবরে প্যারাগুয়ে আর উরুগুয়ের মু্খোমুখি হবে আলবিসেলেস্তেরা। নভেম্বরে ব্রাজিলের মোকাবিলা করার আগে উরুগুয়েকে আতিথ্য দেবে বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়নরা।

আগে দক্ষিণ আমেরিকা থেকে সরাসরি ৪টি দল বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে খেলার সুযোগ পেয়েছে। পঞ্চম দলটিকে কনক্যাকাফ অঞ্চলের দেশের বিপক্ষে প্লে-অফ খেলে মূলপর্বে জায়গা করে নিতে হতো। তবে আগামী বিশ্বকাপে কনমেবল অঞ্চল থেকে অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা বাড়বে।

২০২৬ বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ৪৮ দল অংশ নেবে। স্বাভাবিকভাবে বেড়েছে দক্ষিণ আমেরিকা মহাদেশ থেকে অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যাও। কনমেবল অঞ্চল থেকে ৬টি দল সরাসরি বিশ্বকাপের চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবে। পয়েন্ট টেবিলে ৭ম দলটিকে প্লে-অফ খেলে বিশ্বকাপের টিকিট পেতে হবে।

About

Popular Links