Friday, May 24, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

এমবাপ্পে অধিনায়কত্ব পাওয়ায় অবসরের কথা ভেবেছিলেন গ্রিজম্যান!

জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে এমবাপ্পের নির্বাচিত হওয়াটা গ্রিজম্যানের জন্য একরকম ধাক্কা হয়েই এসেছিল

আপডেট : ২২ মার্চ ২০২৩, ০৬:১৪ পিএম

কাতার বিশ্বকাপ শেষে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে হুগো লরিসের অবসরের পর নতুন কারও ফ্রান্স ফুটবল দলের অধিনায়কত্ব পাওয়াটা ভবিতব্যই ছিল। দুবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের নতুন অধিনায়ক হওয়ার দৌড়ে সবচেয়ে এগিয়ে ছিলেন রাফায়েল ভারান। কিন্তু বিশ্বকাপের পর এ ডিফেন্ডারও জাতীয় দলকে বিদায় জানিয়ে দেন।

ফ্রান্স ফুটবল দলের অধিনায়ক হিসেবে সবচেয়ে বেশি শোনা যাচ্ছিল আন্তোয়ান গ্রিজম্যান এবং কিলিয়ান এমবাপ্পের নাম। শেষ পর্যন্ত লেস ব্লুজদের নেতৃত্বভার উঠল এমবাপ্পের কাঁধেই। অন্যদিকে, গ্রিজম্যান মনোনীত হয়েছেন সহ-অধিনায়ক হিসেবে।

লরিস-ভারানের বিদায়ের পর নিজের বাহুডোরেই অধিনায়কত্বের আর্মব্যান্ড দেখছিলেন গ্রিজম্যান। কিন্তু জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে এমবাপ্পের নির্বাচিত হওয়াটা তার জন্য একরকম ধাক্কা হয়েই এসেছিল। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম এএসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, অধিনায়কত্বের দৌড়ে উপেক্ষিত হওয়ায় জাতীয় দল থেকে অবসরের ভাবনাও উঁকি দিয়েছিল এ ফরোয়ার্ডের মনে।

জাতীয় দলের নতুন অধিনায়ক বেছে নেওয়ার জন্য মাত্র কয়েক ঘণ্টা সময় পেয়েছিলন কোচ দিদিয়ের দেশম। সোমবার (২০ মার্চ) দলের একাধিক খেলোয়াড়ের সঙ্গে আলোচনার পর এমবাপ্পেকেই অধিনায়ক হিসেবে ঘোষণা করেন ২০১৮ সালে ফরাসিদের বিশ্বকাপ জেতানো ৫৪ বছর বয়সী এ কোচ।

এমবাপ্পে অধিনায়কত্ব পাওয়ায় গ্রিজম্যানের মনঃক্ষুণ্ণ হওয়ার কারণও আছে বৈকি। একে তো জাতীয় দলে এমবাপ্পেরও আগে এসেছেন, তার ওপর ফ্রান্সের অধিনায়ক হিসেবেও আগে দায়িত্বপালন করেছেন ৩২ বছর বয়সী এ ফরোয়ার্ড। উদাহরণস্বরূপ, কাতার বিশ্বকাপে লরিস-ভারানের অনুপস্থিতিতে ডেনমার্কের বিপক্ষে ফ্রান্সের অধিনায়ক ছিলেন গ্রিজম্যানই।    

রবিবার রেনের বিরুদ্ধে লিগ ওয়ানে পরাজয়ের ম্যাচটিতে এমবাপ্পে মারকুইনহোসের অনুপস্থিতিতে অধিনায়কের দায়িত্ব পালন করেছেন। এমবাপ্পের হাতে জাতীয় দলের নেতৃত্ব তুলে দেওয়ার পেছনে সেই ম্যাচটিই ভূমিকা রেখেছে বলে জানান ফ্রান্স কোচ দিদিয়ের দেশম। 

দেশম বলেন, “এমবাপ্পের নেতৃত্ব দেওয়া ম্যাচটা আমি দেখেছি। ক্লাবে তার অবস্থান আর অন্য ফুটবলারদের অবস্থান এক নয়। জাতীয় দলে অধিনায়ক বাছাইয়ের ক্ষেত্রে এ উপায় আমি অনুসরণ করব না। আর অন্য সব গুণের সঙ্গে যদি সবার সঙ্গে সংমিশ্রণের যোগ্যতাটা থাকে, তাহলে আমার মনে হয় না এটা নিয়ে কোনো সমস্যা হবে।”

ফ্রান্সের অধিনায়কত্ব না পাওয়া নিয়ে অসন্তুষ্ট হলেও এমবাপ্পের সঙ্গে গ্রিজম্যানের কোনো সমস্যা নেই। বরং দুজনের মধ্যকার ব্যক্তিগত সম্পর্ক বেশ চমৎকার। সম্প্রতি জাতীয় দলের অনুশীলনে দুজনকে একত্রে হাস্যোজ্জ্বল অবস্থায় দেখা গেছে।

চলমান আন্তর্জাতিক বিরতিতে ইউরো ২০২৪ বাছাইপর্বে আগামী ২৪ মার্চ প্যারিসের স্তাদে ডি ফ্রান্সে নেদারল্যান্ডের বিপক্ষে মাঠে নামবে ফ্রান্স। পরবর্তীতে ২৭ মার্চ আয়ারল্যান্ডের মুখোমুখি হবে ফরাসিরা।

About

Popular Links