Thursday, May 30, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

সানের মুখে মানের ‘ঘুষি’

তাদের ক্লাব বায়ার্ন মিউনিখের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু বলা হয়নি

আপডেট : ১৩ এপ্রিল ২০২৩, ০৩:৪১ পিএম

ইউরোপিয়ান ক্লাব ফুটবলে আজকাল যেন মাঠের বাইরে ঘুষি হাঁকানোর নতুন প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। এ সপ্তাহেই রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার ফেদে ভালভার্দে এবং ভিয়ারিয়ালের অ্যালেক্স বায়েনার মধ্যকার “ঘুষি” কাণ্ড নিয়ে সরগরম ছিল স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমগুলো। ঘটনা মাঠের বাইরে হওয়ায় বিষয়টি গড়িয়েছে আইনি লড়াইয়ের দিকে।

ভালভার্দে-বায়েনার মহারণ শেষ না হতেই “ঘুষি” কাণ্ড নিয়ে আবার সরব হয়েছে ইউরোপিয়ান ফুটবল। তবে এবার আর প্রতিপক্ষ দলের কেউ নন, খোদ নিজ দলের সতীর্থরাই “ঘুষি” কাণ্ডের প্রধান কুশীলব। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের প্রথম লেগে ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে ম্যাচের পর ড্রেসিংরুমে বায়ার্ন মিউনিখ সতীর্থ লেরয় সানের মুখে সাদিও মানে “ঘুষি” মেরেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (১১ এপ্রিল) ইংল্যান্ডের ইতিহাদ স্টেডিয়ামে  চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ম্যানসিটির কাছে ০-৩ গোলে পরাজিত হয় বায়ার্ন মিউনিখ। জার্মান সংবাদমাধ্যম বিল্ডের বরাত দিয়ে খেলাধুলা বিষয়ক ওয়েবসাইট গোল ডট কমের এক প্রতিবেদনে বলা হয়, ম্যাচের মাঝপথেই বায়ার্নের দুই ফুটবলারের মাঝে বাদানুবাদ হয়।

মূলত মাঠে কথা বলার সময় সানের দেখানো প্রতিক্রিয়াতেই ক্ষিপ্ত হন সেনেগালিজ ফরোয়ার্ড। ম্যাচের পর দুজনের এ লড়াই গড়ায় ড্রেসিংরুমেও, সানে-মানে দুজনই হাতাহাতিতে জড়িয়ে পড়েন। আর তখনই জার্মান উইঙ্গারের মুখে ঘুষি মেরে বসেন মানে। জার্মান সংবাদমাধ্যম স্কাই জার্মানির ভাষ্যমতে, মানের ঘুষিতে সানের ঠোঁট কেটে রক্ত ঝরছিল।

শেষ পর্যন্ত সতীর্থদের হস্তক্ষেপে দুজন আলাদা হন। এমনকি লেরয় সানেকে কিছুক্ষণ ড্রেসিংরুমের বাইরেও থাকতে বলা হয়েছিল। দুজনের শীতল সম্পর্ক অব্যাহত ছিল মিউনিখে ফেরার পরেও। বিমানবন্দর থেকে ব্যক্তিগত গাড়িতে ফিরেছেন মানে। আর সানে উঠেছেন টিম বাসে। এখনও আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না বলা হলেও ক্লাবের পক্ষ থেকে মানেকে শাস্তির আওতায় আনা হবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ম্যানচেস্টার বিপক্ষে গত ছয় বছরের মধ্যে ইউরোপিয়ান মঞ্চে সবচেয়ে বাজে পরাজয়ের মুখ দেখেছে বায়ার্ন মিউনিখ। আগামী বুধবার অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনায় চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ আটের ফিরতি লেগে ম্যানসিটিকে আতিথ্য দেবে জার্মান ক্লাবটি। সেমিফাইনালের টিকিট পেতে হলে অ্যালিয়াঞ্জ অ্যারেনার ফিরতি লেগে ইংলিশ ক্লাবটির বিপক্ষে ন্যুনতম চার গোলের ব্যবধানে জিততে হবে বাভারিয়ানদের।

About

Popular Links