Wednesday, May 29, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

হেলায় সুযোগ হারিয়ে রিয়ালের কষ্টার্জিত জয়

ম্যাচে কাদিজের গোলমুখে রিয়াল মাদ্রিদ শট নিয়েছে ৩২টি, যা এবারের লা লিগায় এক ম্যাচে কোনো দলের সর্বোচ্চ শট নেওয়ার নজির

আপডেট : ১৬ এপ্রিল ২০২৩, ১২:১৬ পিএম

গোটা ম্যাচে কাদিজের গোলবারে একের পর এক শট নিয়ে গেল রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু শট নেওয়ার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে একের পর এক সুযোগও হাতছাড়া করতে থাকলেন করিম বেনজেমা-রদ্রিগো গোয়েস-মার্কো অ্যাসেন্সিওরা। তবে চার মিনিটের ব্যবধানে দুবারের লক্ষ্যভেদে শেষ পর্যন্ত ২-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে লস ব্লাঙ্কোসরা।

আন্দালুসিয়ান ক্লাবগুলোর মাঠে টানা ১১ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ড নিয়ে শনিবার (১৫ এপ্রিল) কাদিজের বিপক্ষে তাদের মাঠে নামে রিয়াল মাদ্রিদ। চেলসির বিপক্ষে উয়ে্রপা চ্যাম্পিয়নস লিগ কোয়ার্টার ফাইনাল প্রথম লেগের একাদশ থেকে ৬টি পরিবর্তন আনেন কোচ কার্লো অ্যানচেলত্তি।ম্যাচের শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের ওপর চড়াও হওয়ার আভাস দিলেও ১২ মিনিটে উল্টো গোল হজম করতে বসেছিল রিয়াল। আলফোন্সো এসপিনোর আড়াআড়ি জোরাল শট পোস্টে প্রতিহত হয়।

এরপর সময় যত গড়িয়েছে, কাদিজের রক্ষণভাগের ওপর তত তাণ্ডব সৃষ্টি করেছে রিয়াল। ১৬ মিনিটে অ্যাসেন্সিওর শট কর্নারের বিনিময়ে রক্ষা করেন কাদিজ গোলরক্ষক ডেভিড গিল। মিনিট দুয়েক পর অধিনায়ক বেনজেমাকেও গোলবঞ্চিত করেন তিনি।

৩৫ মিনিটে কয়েক মুহূর্তের ব্যবধানে রিয়ালকে দুবার হতাশ হতে হয়। বাঁ প্রান্ত থেকে রদ্রিগোর বাড়ানোর বলে অ্যাসেন্সিও শট নিলেও তা ঠেকিয়ে দেন গিল। ফিরতি বলে বেনজেমা সুবিধাজনক জায়গায় থাকলেও তার শট ক্রসবারে লেগে ফিরে আসে।

পাঁচ মিনিট পর রদ্রিগো নিজেও গোলের সুযোগ হাতছাড়া করেন। বাঁ দিক থেকে হার্নান্দেজকে কাটিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে সামনে গোলরক্ষককে একা পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তরুণ ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গারের নেওয়া শট ঠেকিয়ে দেন গিল। মিনিট দুয়েক পর দ্যানি সেবায়োসের শটও তিনি ঠেকিয়ে দিলে গোলশূন্যভাবেই প্রথমার্ধ শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেও গিল বাধা অতিক্রম করতে ব্যর্থ হয় রিয়াল মাদ্রিদ। ৫০ মিনিটে এডের মিলিটাওয়ের বাড়ানো দারুণ থ্রু বল নিয়ন্ত্রণে নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন রদ্রিগো। কিন্তু কাদিজের স্প্যানিশ গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি তিনি।

৫৭ মিনিটে সম্ভবত ম্যাচের সবচেয়ে সহজ সুযোগটিই হাতছাড়া করেন রদ্রিগো। ডান প্রান্ত থেকে অ্যাসেন্সিও থেকে ফেদে ভালভার্দে হয়ে বল যখন ছয় গজ বক্সের মুখে দাঁড়ানো রদ্রিগোর পায়ে আসে, তততক্ষণে কাদিজ গোলরক্ষক আগেই অন্যদিকে ঝুঁকে পড়েছেন। কিন্তু সামনে ফাঁকা গোলবার পেয়েও ব্রাজিলিয়ান উইঙ্গার অবিশ্বাস্যভাবে পোস্টের বাইরে বল মারেন। ৭ মিনিট পর আবারও বেনজেমার সামনে বাধা হয়ে দাঁড়ায় প্রতিপক্ষের গোলপোস্ট।

অবশেষে ৭২ মিনিটে এগিয়ে যেতে সমর্থ হয় রিয়াল মাদ্রিদ। অঁরেলিয়েন শুয়ামেনির পাস থেকে প্রায় ২৫ গজ দূর থেকে নেওয়া নিচু জোরাল শটে জালে জড়ান নাচো ফার্নান্দেস। মিনিট চারেক পরেই ব্যবধান দ্বিগুণ করে রিয়াল। মাঝ বরাবর দিয়ে ওঠা আক্রমণে ভালভার্দের পাস থেকে বাঁ দিক থেকে আড়াআড়ি শটে কাদিজের জালে বল পাঠান অ্যাসেন্সিও।

গোটা ম্যাচে কাদিজের গোলমুখে রিয়াল মাদ্রিদ শট নিয়েছে ৩২টি, যা যা এবারের লা লিগায় এক ম্যাচে কোনো দলের সর্বোচ্চ শট নেওয়ার নজির। এর মধ্যে ১২টি শট লক্ষ্যে থাকলেও মাত্র দুটিকে গোলে পরিণত করতে পেরেছে ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নরা। এছাড়া, কাদিজের ডি-বক্সে রিয়াল মোট ৬৯ বার বল স্পর্শ করেছে, যা চলতি মৌসুমে প্রতিপক্ষের বক্সে কোনো দলের সর্বোচ্চ।

কাদিজের বিপক্ষে কষ্টার্জিত এ জয়ে বার্সেলোনার সঙ্গে ব্যবধান কমিয়ে আনলেও শিরোপা লড়াইয়ে অনেক পিছিয়ে রিয়াল মাদ্রিদ। ২৯ ম্যাচ শেষে ৬২ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার দুইয়ে রয়েছে কার্লো অ্যানচেলত্তির শিষ্যরা। এক ম্যাচ কম খেলে শীর্ষে থাকা বার্সেলোনার সংগ্রহ ৭২ পয়েন্ট।

About

Popular Links