Wednesday, May 22, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

বাংলাদেশে চাকরি খুঁজছেন নেপালের কোচ!

প্রথমবারের মতো নেপালের ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব নিয়ে মাঠে সফলতা দেখিয়েছেন হুমাগাই। তবে সামনের দিকে নেপালের পুরোদমে কোচিং করাতে পারবেন কিনা, এ নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে। তাই দৃষ্টি বাংলাদেশের দিকে

আপডেট : ০৮ অক্টোবর ২০২২, ০৯:০২ পিএম

ফিফা প্রীতি ম্যাচে নেপাল জাতীয় ফুটবল দলের ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব পালন করেন প্রদীপ হুমাগাই। তার নির্দেশনায় গত ২৭ সেপ্টেম্বর কাঠমান্ডুতে নেপালের কাছে হেরে যায় জামাল ভূঁইয়ারা। সেই হুমাগাই এখন বাংলাদেশে চাকরি খুঁজছেন!

চাকরি খোঁজার বিষয়টি তিনি অনলাইন সংবাদমাধ্যম বাংলা ট্রিবিউনকে জানিয়েছেন।  শনিবার (৮ অক্টোবর) সংবাদমাধ্যমটি এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে।

ই-মেইলে হুমাগাই বলেছেন, “জনসংখ্যার দিক দিয়ে বাংলাদেশ অনেক বড়। এখানকার জনগণ ফুটবল ভালোবাসে। এই অঞ্চলে কোচিং করানোর অনুভূতি অন্যরকম। কেননা এখানকার সামাজিক সংস্কৃতি প্রায় একই। আমি এতে অভ্যস্ত আছি। সবকিছুই জানা আমার। তাই এখানে কাজ করার আগ্রহ জন্মেছে।”

নেপালের বিভিন্ন ক্লাবে কোচিং করানোর অভিজ্ঞতা নিয়ে দুই বছর আগে যুক্তরাষ্ট্রে থিতু হন হুমাগাই। এবার প্রথমবারের মতো ভারপ্রাপ্ত কোচের দায়িত্ব নিয়ে মাঠে সফলতা দেখিয়েছেন। তবে সামনের দিকে নেপালের পুরোদমে কোচিং করাতে পারবেন কিনা, এ নিয়ে অনিশ্চয়তা আছে। তাই দৃষ্টি দিয়েছেন বাংলাদেশের ফুটবলের দিকে।

ফিফা র‌্যাঙ্কিংয়ে বাংলাদেশ ১৯২তম স্থানে থাকলেও জনপ্রিয়তা কিংবা অর্থের ঝনঝনানি কম নয়। অর্থকড়ির দিক দিয়ে দক্ষিণ এশিয়াতে ভারতের পরের অবস্থানে আছে বাংলাদেশ। কিছু কিছু ক্ষেত্রে সমানও। তাই কাঠমান্ডুর সেই ম্যাচের পরই হুমাগাই ঢাকাতে কোচিং করানোর পরিকল্পনা করেছেন।

হুমাগাই বলেন, “বাংলাদেশের ফুটবল সংস্কৃতি আমি ভালোবাসি। ভালোবাসি এদেশের জনগণকে। ফুটবল ফেডারেশনের পাশাপাশি এই দেশের ক্লাব ফুটবলেও অবদান রাখতে পারি তাহলে নিজের কাছেই ভালো লাগবে।”

২৭ সেপ্টেম্বর কাঠমান্ডুতে ৩-১ গোলে হারার ম্যাচটি নিয়েও কথা বলেছেন হুমাগাই। নিজেদের কৌশল দিয়েই বাংলাদেশকে বধ করেছেন বলে হুমাগাইয়ের ভাষ্য, “আমরা শুধু আমাদের ফুটবলটাই খেলে গেছি। নিজেদের খেলোয়াড়দের সামর্থ্য বিবেচনা করে মাঠে পারফর্ম করেছি। এরপর বাংলাদেশের খেলার দিকে তাকিয়েছি। আমরা অপেক্ষা করেছি। ‍সুযোগ বুঝে আক্রমণ করে সফলও হয়েছি। বাংলাদেশও চেয়েছিল চাপ প্রয়োগ করে খেলতে। কিন্তু স্থির থেকেছি। আমরা আগে থেকে পরিকল্পনা করেছিলাম ডেড বল থেকে আক্রমণ কীভাবে নস্যাৎ করবো। তবে হ্যাঁ বাংলাদেশ যদি ভিন্ন পরিকল্পনা নিয়ে মাঠে খেলতো তাহলে আমাদের জন্য জয়টা কঠিন হয়ে পড়তো।”

About

Popular Links