Sunday, May 19, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

আইপিএলের ২০২২ আসরে বিসিসিআই’র আয় ৩০০ মিলিয়ন

ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডকে (বিসিসিআই) বলা হয় বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড, তাদের আয়ের অন্যতম বড় উৎস আইপিএল

আপডেট : ১৯ আগস্ট ২০২৩, ০৫:৪৯ পিএম

আইপিএলের ২০২২ আসর আয়োজন করে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই) ৩০০ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে।

বৃহস্পতিবার (১৭ আগস্ট) বিসিসিআই ওয়েবসাইটে প্রকাশিত বার্ষিক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, ২০২২ সালের এপ্রিল পর্যন্ত বোর্ড ৩২০ বিলিয়ন রুপি (২.৭ বিলিয়ন ডলার) উদ্বৃত্ত রয়েছে।

বিসিসিআইকে বলা হয় বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড। তাদের আয়ের অন্যতম বড় উৎস আইপিএল।

২০০৮ সালে লিগ শুরুর পর থেকে টেলিভিশন ও ওটিটি সম্প্রচার সত্ত্ব, বিভিন্ন স্পন্সর মিলিয়ে ফ্র্যাঞ্চাইজি আসরটি বিসিসিআই এর আয়ের অন্যতম বড় উৎস।

এর পরের বছরে অন্যান্য ক্রিকেট-প্রেমী দেশেও একই ধরনের লিগ চালু করা হয়েছে।

২০২১-২২ অর্থ বছরের বার্ষিক প্রতিবেদনে দেখা যায়, খরচ বাদ দিয়ে ২০২২ সালের আইপিএল থেকে উঠে এসেছে ২৯২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার।

যদিও এর আগের বছরগুলোর নথি প্রকাশ করেনি বিসিসিআই।

বিসিসিআই-এর দুর্নীতিবিরোধী সাবেক উপদেষ্টা নীরজ কুমার এই বছরে বোর্ড সম্পর্কে একটি বই প্রকাশ করেন। জুন মাসে অস্ট্রেলিয়ান এক সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে সাক্ষাৎকারে আর্থিক বিষয়ে বোর্ডের গোপনীয়তার সমালোচনা করেন।

তিনি সিডনি মর্নিং হেরাল্ডকে বলেন, এটি অত্যন্ত দুঃখের বিষয় আমরা এত ধনী, আমাদের রাজ্যগুলোতে এত অর্থ বিতরণ করা হয়। কিন্তু কখনও সেই হিসাব প্রকাশ করা হয় না।

ধারণা করা হচ্ছে, আগামী বছরগুলোতে আইপিএলের আয় আরও বাড়বে।

২০২৩-২৭ সালের আইপিএলের জন্য সম্প্রচার সত্ত্ব থেকে ৬.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করবে বিসিসিআই।

এ সংখ্যাটি আগের পাঁচ বছরের মিডিয়া অধিকার চুক্তির মূল্যের প্রায় আড়াই গুণ বেশি।

এ বছর নারীদের আইপিএলও শুরু করেছে ভারতীয় বোর্ড। ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি ও মিডিয়া সত্ত্ব মিলিয়ে প্রায় ৭০০ মিলিয়ন ডলার আয় হয়েছে নতুন এই উদ্যোগ থেকে।

About

Popular Links