Monday, May 20, 2024

সেকশন

English
Dhaka Tribune

মিরাজের সেঞ্চুরি ও শান্তর ফিফটিতে চালকের আসনে বাংলাদেশ

পাঁচ বছর পর ওপেনিংয়ে নামা মিরাজের পর শতকের দিকে এগোচ্ছেন শান্তও 

আপডেট : ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩, ০৬:৩২ পিএম

পাওয়ারপ্লেতে ৬০ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়ে আফগানিস্তানের বিপক্ষে দারুণ শুরু পেয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু দুই বলের ব্যবধানে ওপেনার নাইম ও তিন নম্বরে নামা তাওহীদ হৃদয়কে হারিয়ে খানিকটা বিপদেই পড়েছিল টাইগাররা। এরপরের গল্পটা শুধুই মেহেদি হাসান মিরাজ ও নাজমুল হাসান শান্তের।

দলীয় ৬৩ রানে দুই উইকেটের পতনের পর দেড়শ রানের জুটি গড়েন মিরাজ ও শান্ত। পাঁচ বছর ওপেনিংয়ে নেমে শতক হাঁকিয়েছেন মিরাজ। পাশাপাশি এশিয়া কাপে টানা দ্বিতীয় ফিফটি পেয়েছেন শান্তও। দুজনের জুটির ওপর ভর করে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বড় সংগ্রহের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

প্রথম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কাছে হতাশাজনকভাবে ৫ উইকেটে পরাজিত হওয়ায় এশিয়া কাপে টিকে থাকতে আফগানিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশকে জিততেই হবে। বাঁচামরার সেই ম্যাচে একাদশে তিন পরিবর্তন নিয়ে মাঠে নেমেছে টাইগাররা। তানজিদ হাসান, শেখ মেহেদী হাসান ও মোস্তাফিজুর রহমানের জায়গায় এসেছেন আফিফ হোসেন, শামিম হোসেন ও হাসান মাহমুদ।

রবিবার (৩ সেপ্টেম্বর) পাকিস্তানের লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে আফিগানিস্তানের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন বাংলাদেশ অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। তানজীদ হাসান তামিম বাদ পড়ায় আফগানদের বিপক্ষে ওপেনিংয়ে মোহাম্মদ নাঈম শেখের সঙ্গে জুটি বাঁধেন মেহেদী হাসান মিরাজ। এর আগে শুধু ২০১৮ সালের এশিয়া কাপের ফাইনালেই ওপেনিংয়ে নেমেছিলেন মিরাজ।

লাহোরের ব্যাটিং সহায়ক উইকেটে আফগানিস্তানের বিপক্ষে শুরু থেকেই ব্যাটিংয়ে আক্রমণাত্মক ছিল বাংলাদেশ। বিশেষ করে নাইম একটু বেশিই মারমুখী ছিলেন। শুরুতে খোলসবন্দি থাকলেও পরে তার সঙ্গে হাত খুলেন মিরাজও। দুজনের ব্যাটে ভর করে পাওয়ারপ্লেতে দারুণ শুরু করেছে টাইগাররা। সেই সঙ্গে সাত ম্যাচ পর ওপেনিং জুটিতে ৫০ রানের সাক্ষী হলো বাংলাদেশ।

তবে পাওয়ারপ্লের পর হুট করেই দুই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। আফগান স্পিনার মুজিব উর রেহমানের করা ইনিংসের দশম ওভারের শেষ বলে বোল্ড হন এই বাঁহাতি ওপেনার। সাজঘরে ফেরার আগে পাঁচটি বাউন্ডারির সাহায্যে ৩২ বলে ২৮ রান করেছেন নাঈম। তার বিদায়ের পর মিরাজের সঙ্গে জুটি বাঁধা তাওহীদ হৃদয় ফিরে যান দুই বল পরেই। একাদশ ওভারে গুলবদিন নাইবের বলে ইব্রাহিম জাদরানের হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে রানের খাতা খুলতে পারেননি হৃদয়।

এরপর বাংলাদেশের ইনিংস মেরামতের কাজে হাত দেন মিরাজ ও শান্ত। শুরুতে ধীরস্থির থাকলেও পরে ধীরে ধীরে হাত খোলা মিরাজ ২৪তম ওভারে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটি তুলে নেন। পরে ৩১তম ওভারে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা শান্তও অর্ধশতক তুলে নেন। ইনিংসের ৪১তম ওভারে ১১৫ বল মোকাবিলা করে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি তুলে নেন মিরাজ।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে শান্ত ও মিরাজ দুজন মিলে এখন পর্যন্ত যোগ করেছেন ১৭৬ রান। এখন পর্যন্ত ৪১ ওভারে দুই উইকেট হারিয়ে ২৩৯ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। সাত বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায় মিরাজ ১০৪ রানে অপরাজিত আছেন। অন্যদিকে, শান্ত ৮৯ রানে ব্যাট করছেন।

About

Popular Links